২৬ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

একযোগে ২৮শ’ আইডি বাতিল করায় অনিশ্চয়তার মুখে সহস্রাধিক নাবিক

  • সংবাদ সম্মেলনে অভিযোগ

স্টাফ রিপোর্টার, চট্টগ্রাম অফিস ॥ কোন ধরনের বিকল্প ব্যবস্থা না রেখে একযোগে ২৮শ’ আইডি (আইডেন্টিটি ডক্যুমেন্ট) বাতিল করায় অনিশ্চয়তার মুখে পড়েছে বিদেশী জাহাজে কর্মরত সহস্রাধিক নাবিকের চাকরি। অনেকেই চাকরি পেয়েও যোগ দিতে পারছেন না আবার আইডি নবায়ন করতে না পেরে কর্মহীন হওয়ার আশঙ্কায় রয়েছেন কর্মরতরা। এ অবস্থায় নাবিকদের কর্মজীবন সচল রাখার স্বার্থে আইডি বাতিলের সিদ্ধান্ত প্রত্যাহারের দাবি জানিয়েছে বাংলাদেশ সীফেয়ারার্স আইডি হোল্ডারস এ্যাসোসিয়েশন।

বৃহস্পতিবার দুপুরে চট্টগ্রাম প্রেসক্লাবে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে এ্যাসোসিয়েশন নেতৃবৃন্দ বলেন, আমরা সম্পূর্ণ নিজ যোগ্যতা বলে দেশের বিভিন্ন জাহাজে কাজ করে আসছি। বৈদেশিক মুদ্রা অর্জনের মাধ্যমে দেশের অর্থনৈতিক উন্নয়নে ভূমিকাও রাখছি। কিন্তু হঠাৎ কোন ধরনের নোটিস ছাড়াই গত ১২ আগস্ট বাতিল করে দেয়া হয় ২৮শ’ আইডি। এতে আমাদের কর্মজীবন গভীর অনিশ্চয়তার মধ্যে পড়ে যায়। তারা সহস্রাধিক নাবিকের কর্মজীবন রক্ষার স্বার্থে এ ব্যাপারে যথাযথ সিদ্ধান্ত গ্রহণের জন্য নৌপরিবহণ মন্ত্রণালয় ও পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের প্রতি অনুরোধ জানান।

সংবাদ সম্মেলনে এ্যাসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক মোঃ মাহবুব আলম চৌধুরী জানান, কি কারণে আইডি বাতিল করা হলো তাও পরিষ্কারভাবে জানানো হয়নি। তিনি বলেন, সরকারের লক্ষ্য যেখানে প্রতি ঘরে অন্তত একজনকে চাকরি দেয়া সেখানে এ ধরনের সিদ্ধান্তের কারণে বেকার হয়ে পড়ছেন শত শত নাবিক। তিনি জানান, কোনো প্রকারের পূর্ব নোটিস ছাড়াই মহাপরিচালক সমুদ্র পরিবহন অধিদফতর থেকে ‘কনভেনশনাল’ শব্দটি বাদ দিয়ে ‘নন কনভেনশনাল’ শব্দ জুড়ে দিয়ে আমাদের প্রায় অর্ধেকেরও বেশি সদস্যকে বেকার করে রাখা হয়েছে। এতে সহস্রাধিক দক্ষ সদস্য বর্তমানে বেকার ও মানবেতর জীবনযাপন করছে।