২০ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

হাইকোর্টের আদেশ আপীল বিভাগে বহাল

  • ব্রাজিলের গম

স্টাফ রিপোর্টার ॥ ব্রাজিল থেকে আমদানি করা গম- কাউকে জোর করে দেয়া যাবে না, কেউ ফেরত দিতে চাইলে তা ফেরত নিতে হবে মর্মে হাইকোর্টের দেয়া আদেশ বহাল রেখেছেন আপীল বিভাগ। গম বিষয়ে হাইকোর্টের আদেশের বিরুদ্ধে সরকার পক্ষের করা আপীল উত্থাপিত হয়নি মর্মে খারিজ করে দিয়েছেন আদালত। বিষয়টি রিটকারী আইনজীবী পাভেল মিয়া সাংবাদিকদের জানিয়েছেন। প্রধান বিচারপতি এসকে সিনহার নেতৃত্বাধীন চার বিচারপতির আপীল বেঞ্চ বৃহস্পতিবার এ আদেশ দেন। এর আগে গত ৯ জুলাই হাইকোর্টের আদেশের বিরুদ্ধে সুপ্রীমকোর্টের সংশ্লিষ্ট শাখায় আপীল দায়ের করে রাষ্ট্রপক্ষ। গত ৮ জুলাই ব্রাজিল থেকে আমদানি করা গম কাউকে জোর করে দেয়া যাবে না এবং কেউ ওই গম ফেরত দিতে চাইলে কর্তৃপক্ষকে তা ফেরত নিতে হবে’ এমন পর্যবেক্ষণ দিয়ে এ বিষয়ে দায়ের করা রিট নিষ্পত্তি করে দেন হাইকোর্ট। রাষ্ট্রপক্ষে এ বিষয়ে শুনানি করেন এ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম; অন্যদিকে হাইকোর্টে রিট আবেদনকারীর পক্ষে ছিলেন আইনজীবী জয়নুল আবেদীন। আদেশের পর এ্যার্টনি জেনারেল মাহবুবে আলম সাংবাদিকদের বলেন, ইতোমধ্যে গম কেউ ফেরত দিতে আসেনি, কাউকে জোর করে দেয়াও হয়নি। গম খেয়ে কেউ অসুস্থ হয়েছে এমন কোন খবরও প্রকাশিত হয়নি। এ সব বিবেচনা করে আমি যে আবেদনটি দায়ের করেছিলাম মনে করেছি তা অকার্যকর হয়ে গেছে। সুতরাং আমি এটা না চালানের জন্য আদালতের কাছে প্রার্থনা করেছি, নট প্রেস করার জন্য। না চালানোর জন্য এটা খারিজ হয়ে গেছে। আমদানি করা দুই লাখ পাঁচ হাজার ১২৮ মেট্রিক টন গমের মধ্যে চৌদ্দ আনা (৮৭ শতাংশের বেশি) আদালতে রিট আবেদন হওয়ার আগেই বিতরণ করা হয়ে গিয়েছিল বলেও এ্যার্টনি জেনারেল জানান।

ব্রাজিল থেকে আমদানি করা ওই গম ‘নষ্ট ও পচা’ বলে পুলিশের পক্ষ থেকে আপত্তি তোলার খবর গণমাধ্যমে এলে গত জুনে এ বিষয়ে আলোচনা শুরু হয়। এরপর ‘নিম্নমানের’ গম আমদানি ও সরবরাহের অভিযোগ দুদককে দিয়ে তদন্তের আদেশ চেয়ে পাভেল মিয়া নামের এক আইনজীবী গত ২৮ জুন একটি রিট আবেদন করেন। এ বিষয়ে প্রাথমিক শুনানি করে ৩০ জুন হাইকোর্ট রুলসহ আদেশ দেয়। ওই গম মানুষের খাওয়ার উপযোগী কি-না, সে বিষয়ে খাদ্য অধিদফতরের মহাপরিচালককে ৭২ ঘণ্টার মধ্যে প্রতিবেদন দিতে বলা হয়। সে অনুযায়ী, খাদ্য অধিদফতরের মহাপরিচালকের পাঠানো প্রতিবেদন ৫ জুলাই আদালতে জমা দেয় রাষ্ট্রপক্ষ। বাংলাদেশ শিল্প বিজ্ঞান গবেষণা পরিষদ (বিসিএসআইআর), কৃষি গবেষণা ইনস্টিটিউট ও ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে পরীক্ষার কথা উল্লেখ করে মহাপরিচালকের প্রতিবেদনে বলা হয়, “ব্রাজিল থেকে আমদানি করা গম চুক্তিপত্রের নির্দেশ অনুসারে গ্রহণীয় সীমার মধ্যে থাকায় মানুষের খাওয়ার উপযুক্ত বলে খাদ্য অধিদফতর হতে প্রত্যয়ন করা হল।”

নির্বাচিত সংবাদ