২৪ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

যুক্তরাষ্ট্রে তেলের দাম ৬ বছরের মধ্যে সর্বনিম্নে

অর্থনৈতিক রিপোর্টার ॥ অস্বাভাবিকভাবে মজুদ বেড়ে যাওয়ায় যুক্তরাষ্ট্রে অপরিশোধিত তেলের দাম ৬ বছরেরও বেশি সময়ের মধ্যে সর্বনিম্নে নেমে এসেছে।

নিউইয়র্ক মার্কেন্টাইল এক্সচেঞ্জে গত বুধবার তেলের দাম ব্যারেলপ্রতি ৪০.৮০ ডলারে নেমে এসেছে। ২০০৯ সালের ২ মার্চের পর এটিই তেলের সর্বনিম্ন দর। ওই সময় ব্যারেলপ্রতি তেলের দর ছিল ৪০.৪৬ ডলার। ব্লুমবার্গে চলতি বছরের জুন মাসের সর্বোচ্চ দর থেকে ৩০ শতাংশ কমে গেছে। তেলের দর কমলেও উৎপাদকারী কোম্পানিগুলো উৎপাদন অব্যাহত রেখেছে। অতিরিক্ত সরবরাহের কারণে তেলের দর ক্রমেই কমছে বলে বিশেষজ্ঞরা মনে করছেন।

তেলের অস্বাভাবিক সরবরাহ অব্যাহত থাকলে ব্যারেলপ্রতি ৩২ ডলারে নেমে আসতে পারে বলে আশঙ্কা করছে সিটি গ্রুপ। বুধবার প্রকাশিত কোম্পানিটির এক প্রতিবেদনে এ আশঙ্কার কথা জানানো হয়েছে। যুক্তরাষ্ট্রের পাশাপাশি যুক্তরাজ্যেও তেলের দর কমছে। লন্ডন বেইজড আইসিই ফিউচারস এক্সচেঞ্জে ব্রেন্ট ব্র্যান্ডের অপরিশোধিত তেলের ব্যারেলপ্রতি দর ৪৭.১৬ ডলারে নেমে এসেছে। ২০১৩ সালের জানুয়ারি মাসের পর এটিই সর্বনিম্ন লেনদেন।

এদিকে তেলের দর কমে যাওয়ায় তেল উৎপাদনকারী কোম্পানি ম্যারাথন অয়েল করপোরেশন কোম্পানির শেয়ারের দর ৭ শতাংশ কমেছে। তেল ও প্রাকৃতিক গ্যাস উৎপাদনকারী কোম্পানি এ্যানাডার্কো পেট্রোলিয়াম কর্পোরেশনের শেয়ারের দর কমেছে ৪.৯ শতাংশ।

বোস্টনের জন হ্যানককের জ্যেষ্ঠ ব্যবস্থাপনা পরিচালক চীফ হজ বলেন, চাহিদা ও যোগানের মধ্যে সমন্বয় না থাকার কারণে তেলের দর কমছে। চাহিদা ও যোগানের মধ্যে সমন্বয়ের জন্য আরও সময় লাগবে।

নির্বাচিত সংবাদ