২০ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

পদ্মা সেতুর কনস্ট্রাকশন ট্রায়াল পাইল বসানো শুরু হচ্ছে আজ

স্টাফ রির্পোটার, মুন্সীগঞ্জ ॥ পদ্মা সেতুর কনস্ট্রাকশন ট্রায়াল পাইল স্থাপনের কাজ শুরু হচ্ছে আজ শুক্রবার। সকাল ১০টায় ৩ জাহার টন ওজন ক্ষমতার জার্মানীর হ্যামার ড্রাইভ করে এটি স্থাপন শুরু হবে। মাওয়া সাইডের নদীর ৭ নম্বর পিলারে বসছে এটি। এর আগে টেস্ট পাইল স্থাপন কাজ শুরু হলেও কনস্ট্রাকশন ট্রায়াল পাইল স্থাপন এই প্রথম। পদ্মা সেতুতে মোট দু’টি কনস্ট্রাকশন ট্রায়াল পাইল স্থাপন হবে। আর টেস্ট পাইল স্থাপন হবে মোট ১০টি। এরইমধ্যে ৩টি টেস্ট পাইল স্থাপন হয়েগেছে। ১২০ মিটার দীর্ঘ এই পাইলটি মূল পাইলের মতই তিন মিটার ব্যাস রয়েছে। জার্মানী থেকে আসা বিশাল হ্যামার এই প্রথম ব্যবহার করা হচ্ছে।

পদ্মা সেতুর নির্বাহী প্রকৌশলী (মূল সেতু) দেওয়ান আব্দুল কাদের বলেছেন, পদ্মা সেতুর কাজ দ্রুত এগিয়ে চলছে। এই কনস্ট্রাকশন ট্রয়াল পাইল স্থানের মধ্য দিয়ে পদ্মা সেতুর কাজ আরেক ধাপ এগিয়ে যাবে। এরই মধ্য দিয়ে মূল পাইল স্থাপনের কাজ শুরু প্রক্রিয়াও এগিয়ে গেল। তিনি আশা প্রকাশ করেন আগামী অক্টোবরেই স্বপ্নের পদ্মা সেতুর মূল পাইল স্থাপনের কাজ শুরু হবে। ইতোমধ্যেই মূল সেতুর ১৩ দশমিক ৫৫ শতাংশ কাজ সম্পন্ন হয়েছে। সবমিলিয়ে পদ্মা সেতুর কাজ সম্পন্ন হয়েছে প্রায় ২০ শতাংশ।

৪২টি পিলারের ওপর ৬ দশমিক ১৫ কিলোমিটার দীর্ঘ দেশের সর্ববৃহৎ এই সেতুটি নির্মিত হবে। ১৫০ মিটার পর পর এই পিলার। এছাড়া দেড় কিলোমিটার করে উভয়পারে তিন কিলোমিটার সংযোগ সেতুর জন্য আরও ২৪টি পিলার করা হবে। মূল সেতুর ৪০টি পিলারে ৬টি করে ২৪০ এবং দু’পারের ১২টিতে দু’টি করে ২৪টি অর্থ্যাৎ সর্বমোট ২৬৪টি পাইল করতে হবে।

পদ্মা বহুমুখী এই সেতু হবে দ্বিতল। সেতু উপরের তলায় থাকবে চার লেনের মহাসড়ক। নিচে রেল লাইন। ট্রেনের গতিসীমা হবে ১৬০ কিলোমিটার। থাকবে গ্যাস ও বিদ্যুত সংযোগ। দেশের দক্ষিণ পশ্চিম গ্যাস সরবরাহের জন্য থাকবে হাই প্রেসার গ্যাস পাইপ লাইন। পদ্মা সেতু নির্মাণের পর মঙ্গলা সমুদ্রবন্দরের ব্যবহার বাড়বে। পিছিয়ে পরা দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলের শিল্পায়ন ও বিনিযোগ বাড়বে। বাড়বে জীনযাত্রার মান ও মাথাপিছু আয়। নানা প্রতিকূলতা মোকাবেলা করে নিজস্ব অর্থে সেই সেতুর দ্রুত গতির বাস্তবায়ন প্রক্রিয়া দেখে তাই আনন্দে উদ্বেল এই অঞ্চলের মানুষ।

নির্বাচিত সংবাদ