১৫ ডিসেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

মন্ত্রীর উপস্থিতিতে দু’গ্রুপে সংঘর্ষে যুবলীগ নেতা নিহত

নিজস্ব সংবাদদাতা, গাজীপুর, ২১ আগস্ট ॥ কালিয়াকৈরে আওয়ামী লীগের ১৫ ও ২১ আগস্ট শোক দিবসের অনুষ্ঠানে মন্ত্রীর উপস্থিতিতে প্রতিপক্ষের ছুরিকাঘাতে এক যুবলীগ নেতা খুন হয়েছেন। শুক্রবার সন্ধ্যায় বিবদমান দু’পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষ চলাকালে এ ঘটনা ঘটে। নিহতের নাম রফিকুল ইসলাম (৫০)। তিনি উপজেলা যুবলীগের সাবেক সভাপতি এবং উপজেলার টেংরাবাড়ি এলাকার মৃত আব্দুল জলিলের ছেলে। এ সময় কালিয়াকৈর পৌর আওয়ামী লীগের ৩নং ওয়ার্ডের সভাপতি মোঃ হোসেন আলীসহ কমপক্ষে তিনজন আহত হন। যুবলীগ নেতার মৃত্যুর খবর পেয়ে মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রী আ ক ম মোজাম্মেল হক তার বক্তব্য না দিয়েই অনুষ্ঠানস্থল ত্যাগ করে হাসপাতালে চলে যান।

আহত মোঃ হোসেন আলী ও স্থানীয় আওয়ামী লীগের কর্মী মোঃ আব্দুল মোতালেব জানান, কালিয়াকৈর পৌর আওয়ামী লীগের উদ্যোগে শুক্রবার বিকেলে উপজেলার চন্দ্রায় অবস্থিত জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু কলেজ মাঠে জাতীয় শোক দিবস ও ২১ আগস্টের গ্রেনেড হামলায় নিহতদের স্মরণে আলোচনা সভার আয়োজন করা হয়। সভায় সভাপতিত্ব করেন কালিয়াকৈর পৌর আওয়ামী লীগের ৫ নং ওয়ার্ডের সভাপতি আব্দুল আজিজ। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন গাজীপুর-১ আসনের সংসদ সদস্য ও মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রী আ ক ম মোজাম্মেল হক। অনুষ্ঠান শুরুর কিছু সময় পর বক্তব্য রাখেন কালিয়াকৈর উপজেলা যুবলীগের সাবেক সভাপতি রফিকুল ইসলাম। তিনি তাঁর বক্তব্য শেষ করে অনুষ্ঠান চলা অবস্থায় মঞ্চ থেকে নেমে সভাস্থলের পশ্চিম পাশে একটি চায়ের দোকানে বসে চা খাচ্ছিলেন। এ সময়ে প্রতিপক্ষের ১০-১২ যুবক লাঠি, রড ও ধারাল অস্ত্র নিয়ে তার ওপর হামলা চালায় এবং ধারাল অস্ত্র দিয়ে এলোপাতাড়ি কুপিয়ে পালিয়ে যায়। পরে আশপাশের লোকজন ও দলীয় নেতাকর্মীরা তাকে উদ্ধার করে কালিয়াকৈর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। তার মৃত্যুর সংবাদ সভাস্থলসহ আশপাশের এলাকায় ছড়িয়ে পড়লে ব্যাপক উত্তেজনা দেখা দেয়।

দলের স্থানীয় নেতাকর্মীরা জানায়, সম্প্রতি কালিয়াকৈর উপজেলা শ্রমিক লীগের সভাপতি মোঃ মোস্তাফিজুর রহমানের সঙ্গে দলীয় বিভিন্ন কর্মকা- নিয়ে রফিকুলের দ্বন্দ্ব চলছিল। এর জেরেই রফিকুলের ওপর ওই হামলার ঘটনা ঘটে থাকতে পারে বলে তাদের ধারণা।

কালিয়াকৈর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) ওমর ফারুক জানান, কারা তার ওপর হামলা চালিয়েছে তা এখনও নিশ্চিত হওয়া যায়নি।