২০ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

ঠাকুরগাঁওয়ে ‘আলোকিত সীমান্ত প্রকল্প’ চালু

নিজস্ব সংবাদদাতা, ঠাকুরগাঁও॥ ঠাকুরগাঁওয়ের সীমান্ত এলাকায় চোরাচালান, হত্যা বন্ধ ও নতুন কর্মসংস্থান সৃষ্টির লক্ষ্যে ঠাকুরগাঁও ৩০ বিজিবি’র উদ্যোগে আলোকিত সীমান্ত সমবায় সমিতি নামে একটি প্রকল্প চালু করা হয়েছে।

রাণীশংকৈল উপজেলার ধর্মগড় আলোকিত সীমান্ত প্রকল্পটিতে সহায়তা ও এর পরিসর বৃদ্ধিতে এবং সীমান্তের অবহেলিত, দুঃস্থ্য ও অসহায়দের কর্মসংস্থানের জন্য আর্থিক সহযোগিতা দিতে এগিয়ে এসেছে মিউচুয়াল ট্রাস্ট ব্যাংক লিমিটেড। এ উপলক্ষে ঠাকুরগাঁও ৩০ বিজিবি ও ধর্মগড় আলোকিত সীমান্ত সমবায় সমিতির যৌথ উদ্যোগে শনিবার দুপুরে জেলার রানীশংকৈল উপজেলার ধর্মগড় সীমান্তের বিজিবি ক্যাম্প প্রাঙ্গণে এক সহায়তা প্রদান অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন মিউচুয়াল ট্রাস্ট ব্যাংক এর এক্সিকিউটিভ ভাইস প্রেসিডেন্ট আজাদ শামসী। বিশেষ অতিথি ছিলেন ৩০ বিজিবি′র অধিনায়ক লে. কর্নেল তুষার বিন ইউনুস। রানীশংকৈল উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আশরাফুল ইসলামের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন মিউচুয়াল ট্রাষ্ট ব্যাংক ঠাকুরগাঁও শাখা ব্যবস্থাপক নাসির উদ্দিন, রানীশংকৈল মডেল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক বিজয় কুমার ও ধর্মগড় আলোকিত সীমান্ত সমবায় সমিতির সভাপতি হাবিবুর রহমান দুলাল। অনুষ্ঠানে মিউচুয়াল ট্রাস্ট ব্যাংক এর পক্ষ থেকে ধর্মগড় আলোকিত সীমান্ত সমবায় সমিতিকে বৃক্ষরোপণ, মৎস্যচাষ ও হাস পালনে ৫ লাখ টাকার অনুদান প্রদান করা হয়। এর আগে অতিথিবৃন্দ আনুষ্ঠানিকভাবে এ প্রকল্পের যাত্রা শুরু উপলক্ষে প্রকল্পের জমিতে গাছের চারা রোপন ও পুকুরে মৎস্য পোনা অবমুক্ত করেন। এ সময় স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ ও জেলার বিভিন্ন প্রিন্ট ও ইলেকট্রনিক মিডিয়ার সাংবাদিকরা উপস্থিত ছিলেন। এছাড়া জেলার বালিয়াডাঙ্গী উপজেলার সুটকিবস্তি গ্রামে ইতোপূর্বে চালু করা একটি প্রকল্প ইতোমধ্যে অনেক সফলতা বয়ে এনেছে। ওই এলাকায় চোরাচালান ও সীমান্ত হত্যা প্রায় শতভাগ কমে এসেছে এবং চোরাকারবারীরা নতুন ভাবে বাঁচার স্বপ্ন দেখছে।