১৪ ডিসেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

খেতাব পুনরুদ্ধারের লড়াই জেসিকার

খেতাব পুনরুদ্ধারের লড়াই জেসিকার

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ ৬ বছর আগের কথা। সে সময় মাত্র ২৩ বছর বয়সেই বিশ্ব আসরের হেপ্টাথলনে শ্রেষ্ঠত্ব অর্জন করেছিলেন ব্রিটেনের জেসিকা ইন্নিস হিল। ২০০৯ সালের বিশ্ব আসরে হেপ্টাথলনে স্বর্ণ, ২০১১ সালে দেগুতে রৌপ্য জিতলেও গতবার মস্কোর বিশ্ব আসরে কিছুই করতে পারেননি তিনি। আর মাঝে ১৮ মাস ছিলেন ট্র্যাক এ্যান্ড ফিল্ডের বাইরে। সন্তান জন্ম দিতে সাময়িকভাবে সরে দাঁড়িয়েছিলেন। তবে ফেরার পর কঠোর অনুশীলন করেছেন। নিজেকে ফিরে পেতে চেষ্টার ত্রুটি যে করেননি তা বোঝা গেল শনিবার বেজিংয়ে শুরু হওয়া বিশ্ব এ্যাথলেটিক্স আসরের প্রথম দিনে। অবশ্য হেপ্টাথলন প্রতিযোগিতার দুটি ইভেন্ট হয়েছে এদিন। আর দুটোতেই শীর্ষে আছেন তিনি। বিশ্বসেরার মুকুট পুনরুদ্ধারের মিশনে বেশ ভালভাবেই এগোচ্ছেন জেসিকা। ট্র্র্যাক এ্যান্ড ফিল্ডের বহুমাত্রিক ক্রীড়ায় সিদ্ধহস্ত জেসিকা। এ ব্রিটিশ এ্যাথলেট যদিও ১০০ মিটার হার্ডলস, হাই জাম্প ও ইনডোর পেন্টাথলনে সাবেক ব্রিটিশ রেকর্ডধারী; কিন্তু হেপ্টাথলন ছাড়া আর কোন ইভেন্টে আন্তর্জাতিক আসরে সাফল্য পাননি। অবশ্য বিশ্ব ইনডোর চ্যাম্পিয়নশিপসে ২০১০ সালে দোহায় পেন্টাথলনের স্বর্ণ জিতেছিলেন। কিন্তু হেপ্টাথলনেই দক্ষ আর সেরা জেসিকা। সে কারণেই শুধু হেপ্টাথলনের রানী বলা হয় তাকেÑ বিষয়টা এমন নয়। বিশ্বসেরা যেমন হয়েছিলেন, তেমনি গত অলিম্পিকে ২০১২ সালে লন্ডনে এবং ২০১০ সালে বার্সিলোনায় ইউরোপিয়ান চ্যাম্পিয়নশিপসে স্বর্ণ জিতেছেন তিনি। কিন্তু বিশ্বসেরার মুকুট হাতছাড়া হয়েছে ২০১১ সালে দেগুতেই। ২০১৩ সালেও পারেননি, বরং আরও বাজে নৈপুণ্য প্রদর্শন করেছেন। এবারই হয়ত ২৯ বছর বয়সী এ ব্রিটিশ হেপ্টাথলন রানীর শেষ সুযোগ। কারণ পরবর্তী বিশ্ব আসর আসতে আসতে হয়ত বয়সটাই সেভাবে আর সাপোর্ট দেবে না তাকে। তবে ১৮ মাস সন্তান জন্মদানের জন্য ট্র্যাকের বাইরে থেকে ফিরে কতটা ভাল করতে পারবেন তিনি? শুরুটা ভালভাবেই করেছেন জেসিকা। বেজিংয়ের ঐতিহাসিক বার্ডস নেস্টে ১০০ মিটার হার্ডেলসের হিটে ১২.৯১ সেকেন্ড সময় নিয়েছেন। আর হাই জাম্পে মৌসুম সেরা ১.৮৬ মিটার পেরিয়েছেন। এরপর শটপুট ও ২০০ মিটার দৌড়ে ২ হাজার ১৯২ পয়েন্ট নিয়ে শেষ করেন তিনি। যদিও তাকে বেশ চাপে ফেলেছিলেন স্বদেশী জনসন-থম্পসন।