২৩ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

বিশ্ব এ্যাথলেটিক্সে প্রথম স্বর্ণ ঘিরমের, সেমিতে বোল্ট-গ্যাটলিন

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ চীনের বেজিংয়ে শনিবার শুরু হয়ে গেছে বিশ্বের সেরা এ্যাথলেটদের শ্রেষ্ঠত্বের লড়াই। বিশ্বের নানাপ্রান্তে যারা সবসময়েই নৈপুণ্য দেখিয়ে তাক লাগিয়েছেন তারাই এবারের আসরে সব আকর্ষণ নিজেদের দিকে টেনে নিয়েছেন। আর সব আলো এখন মাত্র দু’জনের ওপর। সর্বকালের সবচেয়ে গতিধর মানব উসাইন বোল্ট এবার কী করেন সেজন্য মুখিয়ে আছেন সবাই। তার শ্রেষ্ঠত্বে এবার হানা দিতে পারেন মার্কিন স্প্রিন্টার জাস্টিন গ্যাটলিন। কারণ বর্তমানে ১০০ মিটারের র‌্যাঙ্কিংয়ে শীর্ষে তিনি। আসর শুরুর আগেই এ দু’জনের লড়াইয়ের আলোচনায় আগেভাগেই সরগরম হয়ে গেছে এবারের এ্যাথলেটিক্স বিশ্ব চ্যাম্পিয়নশিপস আসর। তবে সে লড়াইয়ের জন্য অপেক্ষা করতে হবে। শুরুর দিনেই ক্রীড়াপ্রেমী মানুষের মনোযোগ কিছুটা বোল্ট-গ্যাটলিন থেকে সরিয়ে নিতে পেরেছেন ঘিরমে ঘেবরেসøাসি। ইরিত্রিয়ার এই ১৯ বছর বয়সী তরুণ পুরুষদের ম্যারাথনে স্বর্ণ জিতেছেন। ফেবারিট ও ম্যারাথন তারকাদের হারিয়ে এবারের আসরের প্রথম স্বর্ণপদকটা নিজের গলায় পরলেন ঘিরমে। ইরিত্রিয়ার হয়ে এটি বিশ্ব আসরের ইতিহাসে সবেমাত্র দ্বিতীয় স্বর্ণ। ২০০৯ সালেই হঠাৎ প্রথমবার বিশ্ব আসরে কোন ইরিত্রিয়ান এ্যাথলেট স্বর্ণপদক জিতেছিলেন। সেবার বার্লিন বিশ্ব আসরে ১০ হাজার মিটারে টাডেসি জেরসিনে স্বর্ণ জেতেন। এবারও দেশটির কোন এ্যাথলেট স্বর্ণপদক জিতবেন কেউ চিন্তা করতে পারেনি। তাছাড়া উগান্ডার স্টিফেন কিপ্রোটিচ গত আসরের চ্যাম্পিয়ন হিসেবে এবারও মনোযোগের কারণ ছিলেন। তাছাড়া কেনিয়ার বিশ্বরেকর্ডধারী ডেনিস কিমেটো ও উইলসন কিপসাং, ইথিওপিয়ার লেলিসা ডেসিসা ও বারহানু লেমি এবং উগান্ডার জ্যাকসন কিপরপ ছিলেন ফেবারিট। কিন্তু ম্যারাথনে সফল হলেন ইরিত্রিয়ারই তরুণ এ্যাথলেট, যার নিজেরই তেমন বেশি কোন প্রতিযোগিতায় লড়া হয়নি। ঘিরমে বিশ্ব আসরে আসার আগে মাত্র দুটি ম্যারাথনে অংশ নিয়েছিলেন। ১৯ বছর বয়সী এ তারকা এই প্রথম বড় কোন আসরে আসেন অংশ নিতে। ৩৬ কিলোমিটার পর্যন্ত তিনি পিছিয়েই ছিলেন। কিন্তু এরপরই লেসেথোর সেপো র‌্যামোনেনে মাথিবেলকে পেছনে ফেলে সবার সামনে চলে যান ঘিরমে।

এদিকে শুরুর দিনেই বার্ডস নেস্ট আকর্ষণের কেন্দ্রবিন্দুতে পরিণত হয়েছে। যদিও সর্বকালের সবচেয়ে দ্রুততম মানব উসাইন বোল্ট এবং চলতি মৌসুমে র‌্যাঙ্কিংয়ের শীর্ষে থাকা যুক্তরাষ্ট্রের জাস্টিন গ্যাটলিন পরস্পরের বিরুদ্ধে এখনও লড়াইয়ে নামেননি। কিন্তু শনিবার থেকে বেজিংয়ের বিখ্যাত বার্ডস নেস্ট স্টেডিয়ামে শুরু হওয়া বিশ্ব এ্যাথলেটিক্স চ্যাম্পিয়নশিপসে ট্র্যাক এ্যান্ড ফিল্ডের প্রতিযোগিতা শুরু হয়ে গেছে। আকর্ষণ ছিল ১০০ মিটারের দিকেই। যার যার হিটে জিতে সেমিফাইনাল নিশ্চিত করেছেন বোল্ট ও গ্যাটলিন।ডোপপাপ কাটিয়ে ফেরার পর ২০১২ বিশ্ব ইনডোরের ৬০ মিটারে স্বর্ণ এবং ২০১২ লন্ডন অলিম্পিকে ব্রোঞ্জ, মস্কোয় বিশ্ব আসরে রৌপ্য জিতেছেন গ্যাটলিন। ৩৩ বছর বয়সেও তিনি দারুণ গতি রেখে দৌড়ে ২০১৩ থেকে এখন পর্যন্ত মোট ২৭টি রেসে অংশ নিয়ে অপরাজেয় আছেন। অবশ্য বোল্ট-গ্যাটলিন দ্বৈরথে বোল্ট ৬-১ ব্যবধানে এগিয়ে। কিন্তু সাম্প্রতিক বিবেচনায় গ্যাটলিনকেই এগিয়ে রাখছেন সবাই। এ বিষয়ে গ্যাটলিন নিজেই বলছেন, ‘প্রতিযোগিতা হচ্ছে প্রতিদ্বন্দ্বিতা। এটা সবসময় নির্ভর করে কে ভাল ফর্মে আছে এবং সেটার প্রয়োগ ঘটাতে পারছে সেটার ওপর।’ কম প্রতিযোগিতায় অংশ নিলেও বোল্ট অবশ্য নিজেকে নিয়ে বেশ আত্মবিশ্বাসী। দীর্ঘদিন ইনজুরি এবং দুটি গাড়ি দুর্ঘটনার শিকার হওয়া বোল্ট এমনকি বেজিংয়ে আসার আগে দলের অনুশীলন ক্যাম্পে জাপান আসেননি। তবে কম সময় ট্র্যাকে নামলেও নিজের মৌসুম সেরা টাইমিং ছিল ৯.৮৭ সেকেন্ড।

টাইমিং বিবেচনা করলে সাম্প্রতিক সময়ে বেশ পিছিয়ে বোল্ট। গ্যাটলিন অনেক এগিয়ে। র‌্যাঙ্কিংও তাই বলছে। গ্যাটলিন যেখানে শীর্ষে, বিশ্বসেরা স্প্রিন্টার বোল্ট সেখানে ৬ নম্বরে। কিন্তু তবু আত্মবিশ্বাসে ফুটছেন বোল্ট। একে তো বিশ্ব আসর, তারপর আবার বার্ডস নেস্ট স্টেডিয়াম। এখানেই ২০০৮ অলিম্পিকে ৯.৬৯ সেকেন্ড টাইমিং গড়েছিলেন বোল্ট। জিতেছিলেন প্রথম অলিম্পিক সোনা। তাই অনুপ্রেরণার অভাব নেই। তিনি বলেন, ‘প্রতিদ্বন্দ্বিতামূলক কোন রেসকে আমি অবশ্যই পছন্দ করি। কিন্তু আমার মনে হয় এর চেয়ে ভাল অনুশীলন করা। সেটা আমি ভালভাবেই করেছি।’

বার্ডস নেস্টে শনিবার প্রতিযোগিতার প্রথম দিনেই তাই বোল্ট-গ্যাটলিন মনোযোগের কেন্দ্রে ছিলেন। হিটে গ্যাটলিন জেতেন ৯.৮৩ সেকেন্ড টাইমিং করে, যা বোল্টের মৌসুম সেরা টাইমিংয়ের চেয়েও দ্রুততর। আর এদিন বোল্ট নিজের হিটে জিতেছেন ৯.৯৬ সেকেন্ড টাইমিং নিয়ে। তবু নিজের পারফর্মেন্স নিয়ে সন্তোষ প্রকাশ করেছেন জ্যামাইকান গতিতারকা। যুক্তরাষ্ট্রের আরেক তারকা ট্রেভন ব্রোমেল ৯.৯১ সেকেন্ড টাইমিং নিয়ে সেমিতে পা রেখেছেন। ফরাসী জিমি ভিকো সময় নিয়েছেন ৯.৯২ সেকেন্ড। আরেক জ্যামাইকান আসাফা পাওয়েলের সময় লাগে ৯.৯৫ সেকেন্ড।