২৩ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

আ’লীগে মোশতাকদের চিহ্নিত করতে হবে

  • সিইউজের সেমিনারে বক্তারা

স্টাফ রিপোর্টার, চট্টগ্রাম অফিস ॥ বাংলাদেশ ফেডারেল সাংবাদিক ইউনিয়নের (বিএফইউজে) সভাপতি মঞ্জুরুল আহসান বুলবুল বলেছেন, ২১ সাল পর্যন্ত আওয়ামী লীগকে ক্ষমতায় রাখতে দলের ভেতর ‘খন্দকার মোস্তাক’দের চিহ্নিত করে তাদের প্রতিরোধ করতে হবে। একইসঙ্গে জয়বাংলা স্লোগান দিয়ে অপকর্ম করে বঙ্গবন্ধুকে যারা অবমাননা করছে, তাদের বিরুদ্ধেও ব্যবস্থা নিতে হবে।

শনিবার চট্টগ্রাম সাংবাদিক ইউনিয়ন (সিইউজে) ‘বঙ্গবন্ধুর স্বপ্ন ও আজকের বাংলাদেশ’ শীর্ষক সেমিনারে তিনি এ আহবান জানান। চট্টগ্রাম প্রেসক্লাবের ইঞ্জিনিয়ার আবদুল খালেক মিলনায়তনে অনুষ্ঠিত এ সেমিনারে মূল প্রবন্ধ পাঠ করেন সিইউজের সভাপতি এজাজ ইউসুফী। সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক হাসান ফেরদৌসের সঞ্চালনায় বক্তব্য রাখেন সিটি মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দিন ও সাবেক মেয়র নগর আওয়ামী লীগ সভাপতি এবিএম মহিউদ্দিন চৌধুরী, প্রেসক্লাব সভাপতি কলিম সরওয়ার, সাধারণ সম্পাদক মহসিন চৌধুরী, সিইউজের ৫৫ বছর উদযাপন পরিষদের আহবায়ক আবু সুফিয়ান, সিইউজের সাবেক সভাপতি আতাউল হাকিম, মোস্তাক আহমেদ, শহীদ উল আলম, সাংবাদিক সমীর বড়–য়া ও আসিফ সিরাজ।

ইউপি সদস্যের লালসার শিকার গৃহবধূ পালিয়ে বেড়াচ্ছে

নিজস্ব সংবাদদাতা, আমতলী, বরগুনা, ২২ আগস্ট ॥ বরগুনার তালতলী উপজেলার ছোটবগী ইউনিয়ন পরিষদের সদস্য মর্তুজা মোল্লার যৌন লালসার শিকার হয়ে আট মাসের অন্তঃসত্ত্বা গৃহবধূ আঁখি বেগম (২৩) পালিয়ে বেড়াচ্ছে। আখির অভিযোগ, চরিত্রহীন অপবাদ দিয়ে এলাকা থেকে মারধর করে তাকে তাড়িয়ে দেয়া হয়েছে। মামলা তুলে নেয়ার জন্য জীবননাশের হুমকি দেয়া হচ্ছে।

জানা গেছে, উপজেলার ছোটবগী আশ্রয়ণ প্রকল্পের ঘরে স্বামী পরিত্যক্তা আঁখি বেগম দীর্ঘদিন ধরে বসবাস করে আসছে। ইউপি সদস্য মর্তুজা মোল্লা অসহায় গৃহবধূকে বিবাহের মিথ্যা আশ্বাস দিয়ে অবৈধ মেলামেশা করে। এক পর্যায় আঁখি বেগম অন্তঃসত্ত্বা হয়ে যায়। তাকে বিবাহ করার জন্য ইউপি সদস্যকে চাপ দিয়ে সে কোন গুরুত্ব না দিয়ে টালবাহানা শুরু করে। পরে চরিত্রহীন অপবাদ দিয়ে মারধর করে এলাকা থেকে তাড়িয়ে দিয়েছে। আঁখি বেগম কোন উপায় না পেয়ে গত ২৬ জুলাই বরগুনা নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালে মর্তুজা মোল্লাসহ ৪ জনের বিরুদ্ধে মামলা করেন। আদালতের বিজ্ঞ বিচারক শরিফুল ইসলাম বরগুনা সিভিল সার্জনকে আখি বেগমের ডাক্তারী পরীক্ষার আদেশ দিয়েছেন। এদিকে মর্তুজা মোল্লা ও তার লোকজন মামলা তুলে নেয়ার জন্য আঁখি বেগমকে জীবননাশের হুমকি দেয়। সন্ত্রাসীদের ভয়ে সে এলাকা ছেড়ে পালিয়ে বেড়াচ্ছে।

আঁখি বেগম শনিবার মুঠোফোনে জানান, ‘মুই অনেক সমস্যায় আছি, মোরে ওরা মাইর‌্যা হ্যালাইতে চায়, মুই ঘরে গোনে নামতে পারি না, মেম্বরে মোরে মামলা তুইল্যা নেওয়ার লইগ্যা হুমকি দেয়, মোরে আপনারা বাচাঁন। মেম্বরে মোরে বিয়া হরার কথা কইয়্যা ধর্ষণ হরছে, মোর গর্ভে আট মাসের বাচ্চা, মোরে এ্যাহন বিয়া হরবে না।’

ইউপি সদস্য মর্তুজা মোল্লা মুঠোফোনে জানান, আখি বেগম চরিত্রহীন। আমাকে জড়িয়ে মিথ্যা মামলা দায়ের করেছে। তাকে জীবননাশের হুমকি দেয়ার প্রশ্নই আসে না।

বরগুনা জেনারেল হাসপাতালের চিকিৎসক সানজিদা মাহমুদ জানান, আঁখি বেগমের ডাক্তারী পরীক্ষা শেষে রিপোর্ট আদালতে পাঠিয়ে দেয়া হয়েছে।