২৩ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

শত বছর পর আলেম-ওলামাদের বিশ্ববিদ্যালয়ের স্বপ্ন পূরণ- শিক্ষামন্ত্রী

স্টাফ রিপোর্টার ॥ সদ্য প্রতিষ্ঠিত ইসলামি আরবি বিশ্ববিদ্যালয়ের অস্থায়ী ক্যাম্পাস পরিদর্শন করেছেন শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ। এসময় তিনি ইসলামি আরবি বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিষ্ঠায় সন্তোষ প্রকাশ করে বলেছেন, শত বছর পর আলেম-ওলামাদের ইসলামিক আরবি বিশ্ববিদ্যালয়ের স্বপ্ন পূরণ হয়েছে। অচিরেই পুরিপূর্ণভাবে এর কার্যক্রম শুরু হবে।

সকালে প্রতিষ্ঠানটির ধানমন্ডিস্থ ক্যাম্পাস পরির্দশন করে বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্যসহ কর্মকর্তাদের সঙ্গে বৈঠক করেন শিক্ষা মন্ত্রী। এসময় আরো উপস্থিত ছিলেন বিশ্ববিদ্যালয়ের উপচার্য অধ্যাপক ড. মুহাম্মদ আহসান উল্লাহ, শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব মো. হেলাল উদ্দিন, মাদ্রাসা শিক্ষা বোর্ডের চেয়ারম্যান এ কে এম সাইদুল্লাহ, জমিায়াতুল মোদাররেসীদের সভাপতি ও দৈনিক ইনকিলাবের সম্পাদক এ এ এম বাহাউদ্দিন প্রমুখ। শিক্ষা মন্ত্রী এসময় বলেন, ইসলামি শিক্ষার পাশাপাশি আধুনিক শিক্ষা অর্জন করতে হবে। তা না হলে মাদ্রাসার শিক্ষার্থীরা পিছিয়ে যাবে। মানুষের নৈতিক মূল্যবোধ জাগ্রত হয় ধর্মীয় শিক্ষার মধ্য দিয়ে। ধর্মীয় মূল্যবোধই নৈতিক শিক্ষার মূল ভিত্তি। শিক্ষকদের মধ্যে ইসলামিক মনোভাব থাকতে হবে। শিক্ষার্থীরা যেন ধর্মীয় মূল্যবোধকে মাথায় রেখে নৈতিক শিক্ষা লাভ করে সেজন্য শিক্ষকদের ট্রেনিংয়ের ব্যবস্থাও করা হয়েছে। তিনি আরো বলেন, বিশ্ববিদ্যালয়ে শিক্ষার্থীরা শুধু আসবে যাবে তা হবে না। বিশ্ববিদ্যালয় হবে জ্ঞান চর্চার গবেষণাগার। তবেই সেটা হবে বিশ্ববিদ্যালয়ের সার্থকতা। আর এজন্যই ইসলামী আরবি বিশ্ববিদ্যালয়ের জন্য জমি দেখা হচ্ছে। যেন সেখানে বড় ভবন নির্মাণ করা যেতে পারে। গবেষণাগার থেকে শুরু করে শিক্ষার্থীদের জন্য এখানে থাকবে সব ধরনের সুযোগ সুবিধা। এ সময় শিক্ষার উন্নয়ন এবং মান সম্মত শিক্ষা দেয়ার জন্য সরকারের বিভিন্ন পদক্ষেপের বিষয় উল্লেখ করে শিক্ষামন্ত্রী বলেন, ধর্মীয় মূল্যবোধই নৈতিক শিক্ষার মূল ভিত্তি। তাই সরকার সাধারণ শিক্ষার পাশাপাশি মাদ্রসা শিক্ষায় গুরুত্ব দিয়েছে। মাদ্রাসা শিক্ষা বোর্ডের চেয়ারম্যান এ কে এম সাইদুল্লাহ বলেন, আগে মাদ্রাসা শিক্ষাবোর্ডের উন্নয়নের জন্য অনেক পদক্ষেপ গ্রহণ করেও বাস্তবায়ন করা সম্ভব হয়নি। তবে এবার মাদ্রাসা শিক্ষা বোর্ডের উন্নয়নের জন্য বিভিন্ন পদক্ষেপ গ্রহণ করা হয়েছে। সেই ধারাবাহিকতায় এই বিশ্ববিদ্যালয়কে আমাদের পক্ষ থেকে সব ধরনের লজিস্টিক সাপোর্ট দেয়া হবে।