২৪ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

অনাগত সন্তানের পিতৃ পরিচয়ের দাবিতে শারমিন

স্টাফ রিপোর্টার, বরিশাল ॥ বিয়ের প্রলোভনে ১২দিন আটকে রেখে ধর্ষণের ফলে অন্তঃস্বত্তা হওয়া অসহায় শারমিন এখন তার অনাগত সন্তানের পিতৃ পরিচয়ের দাবিতে মামলা করেও কোন সুফল না পেয়ে স্থানীয় প্রভাবশালীদের দ্বারে দ্বারে ঘুরে বেড়াচ্ছেন।

এজাহার ও বিচারপ্রার্থী শারমিন আক্তার জানান, জেলার আগৈলঝাড়া উপজেলার পয়সারহাট গ্রামের ইউসুফ সিকাদারের পুত্র জহিরুল ইসলাম জয়ের সাথে ঢাকায় বসে পরিচয়ের সূত্রধরে তাদের মধ্যে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে। গত ১৮ জুন ঢাকায় বসে তাকে (শারমিন) নিয়ে বেড়াতে যাওয়ার কথা বলে জহিরুল তার পরিচিত জাহিদের কামরাঙ্গির চরের বাসায় নিয়ে একাধিকবার ধর্ষণ করে। পরবর্তীতে তাকে মিরপুর-১ নাম্বার আনসার ক্যাম্প সংলগ্ন একটি বাসায় ১২দিন আটকে রেখে জহিরুল ধর্ষণ করে। এসময় বিয়ের জন্য তাকে (জহিরুল) চাপপ্রয়োগ করা হলে কৌশলে সে পালিয়ে যায়।

একপর্যায়ে শারমিন বিষয়টি তার মা ঝর্না বেগমকে জানায়। ধর্ষণের ফলে শারমিন অন্তঃস্বত্তা হয়ে পরলে তাকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। বিষয়টি শারমিনের মা ধর্ষক জহিরুলের পিতা ইউসুফ সিকদারকে জানালে তিনি (ইউসুফ) শারমিন ও তার মা ঝর্ণা বেগমকে মারধর করে তাড়িয়ে দেয়।

এনিয়ে ঢাকার শাহবাগ থানার আনন্দ বাজার এলাকার কাউন্সিলর রোকসানা ইসলাম চামেলীর কাছে অভিযোগ দায়েরের পর তিনি উভয়ের মধ্যে বিয়ে দেয়ার জন্য একাধিকবার চেষ্ঠা করেও কোন সুরাহা করতে পারেননি। পরে তার পরামর্শে গত ২ আগস্ট শাহবাগ থানায় শারমিন বাদি হয়ে ধর্ষণের অভিযোগে মামলা দায়ের করেন। অভিযোগে আরও জানা গেছে, ঘটনার পর থেকে জহিরুল নিজ এলাকায় আত্মগোপন করে। খবর পেয়ে রবিবার সকালে অসহায় শারমিন জহিরুলের খোঁজে আগৈলঝাড়ার পয়সারহাট গ্রামে এসে তার অনাগত সন্তানের পিতৃ পরিচয়ের দাবিতে স্থানীয় জনপ্রতিনিধিসহ গ্রামের প্রভাবশালীদের দ্বারে দ্বারে ঘুরে বেড়াচ্ছেন।

নির্বাচিত সংবাদ