২৫ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

থাই-মালয়েশিয়া সীমান্তে আরও গণকবরের সন্ধান ॥ ২৪ লাশ উদ্ধার

মালয়েশীয় কর্তৃপক্ষ থাইল্যান্ড সীমান্তের কাছের ঘন জঙ্গলে কয়েকটি গণকবরের সন্ধান পেয়েছে, যেখানে অন্তত ২৪ হতভাগ্যের দেহাবশেষ পড়ে আছে। রবিবার মালয়েশীয় পুলিশ জানিয়েছে, এরা মানবপাচারের শিকার বলে মনে করছেন তারা। ঘন জঙ্গলবেষ্টিত থাই-মালয় সীমান্ত মানবপাচারকারীদের একটি ট্রানজিট পয়েন্ট। মিয়ানমার ও বাংলাদেশ থেকে লোকজন এনে এই সীমান্তের বিভিন্ন গোপন শিবিরে তাদের আটক রাখে পাচারকারীরা এবং এখান থেকে দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ার বিভিন্ন দেশে পাচার করে। অনেক সময়ই অভিবাসীদের অস্বাস্থ্যকর এসব শিবিরে আটকে রেখে মুক্তিপণ আদায় করা হয়। মুক্তিপণ আদায়ের জন্য বন্দীদের অকথ্য নির্যাতনসহ অভুক্তও রাখা হয়। শনিবার মালয়-থাই সীমান্তের বুকিত ওয়াং বার্মা এলাকায় গণকবরগুলো খুঁজে পায় পুলিশ এখান থেকে ২৪টি মৃতদেহের অবশিষ্টাংশ উদ্ধার করে তারা। মে মাসে এই এলাকার কাছাকাছি কয়েকটি অবৈধ বন্দীশিবির থেকে কয়েক শ’ অভিবাসীর লাশ উদ্ধার করেছিল মালয়েশিয়া কর্তৃপক্ষ। এক বিবৃতিতে পুলিশ জানিয়েছে, চলমান অভিযানে অবৈধ অভিবাসীদের আরও লাশ পাওয়া গেছে মাটি খুঁড়ে ২৪টি লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। লাশগুলোর অবশিষ্টাংশ মেডিক্যাল বিশেষজ্ঞদের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন তারা। লাশগুলো মিয়ানমারের সংখ্যালঘু রোহিঙ্গা না বাংলাদেশীদের, তাৎক্ষণিকভাবে তা পরিষ্কার হওয়া যায়নি। খবর ওয়েবসাইটের।