২৪ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

বাগমারায় শিয়ালের উপদ্রব ॥ কামড়েছে ৩০ নারীপুরুষকে

স্টাফ রিপোর্টার, রাজশাহী ॥ রাজশাহীর বাগমারার গ্রামে পাগলা শিয়াল আতঙ্ক দেখা দিয়েছে। গত দু’দিনে উপজেলার নরদাশ ইউনিয়নের পূর্ব দৌলতপুর গ্রামে শিয়ালের কামড়ে অন্তত ৩০ জন আহত হয়েছেন। তাদের কয়েকজনকে রাজশাহী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতাল ও স্থানীয় ক্লিনিকে ভর্তি করা হয়েছে। অতিষ্ঠ হয়ে শিয়াল তাড়াতে অভিযান শুরু করেছে এলাকাবাসী। স্থানীয় তিন গ্রামের লোকজন একজোট হয়ে বিভিন্ন জঙ্গলে হানা দিয়ে এরই মধ্যে ১২টি শিয়াল মেরে ফেলেছে।

স্থানীয়রা জানান, গত শনিবার রাতে পূর্বদৌলতপুর গ্রামের সিয়ারুল ইসলাম প্রথমে পাগলা শিয়ালের আক্রমণের শিকার হন। কোন কিছু বুঝে ওঠার আগেই তাকে কামড়ে রক্তাক্ত করে। তার চিৎকারে লোকজন ছুটে এলে শিয়ালগুলো দল বেঁধে আক্রমণের চেষ্টা করে। এ সময় আরও কয়েকজন শিয়ালের নখের থাবায় আক্রান্ত হয়। গত দু’দিনে বিভিন্ন স্থানে অন্তত ৩০ জনকে কামড় দেয় পাগলা শিয়াল।

এদিকে শিয়ালের আক্রমণের শিকার ওই গ্রামের আফাজ উদ্দিন, রেহেনা বেগম, সায়লেন, মকবুল হোসেন জানান, শুক্রবার রাতে হঠাৎ বেশকিছু শিয়াল ফকিন্নী নদীর পাশে এসে জমা হয়। দিনের বেলা শিয়ালগুলো পূর্বদৌলতপুর গ্রামের বিভিন্ন জঙ্গল ও ধানক্ষেতেও আশ্রয় নেয়। আর রাতে লোকালয়ে ঢুকে পড়ে লোকজনের ওপর আক্রমণ শুরু করে। দিনে শিয়াল দেখা না গেলেও সন্ধ্যার পর লোকালয়ে ঢুকে পড়ছে।

এ ঘটনার পর গ্রামের লোকজন আতঙ্কিত হয়ে পড়েছেন। তাঁরাও লাঠিসোটা ও ধারাল অস্ত্র নিয়ে সংঘবদ্ধভাবে চলাফেলা শুরু করেছেন। শনিবার রাতেই পূর্বদৌলতপুর, গোড়সার ও হুলিখালী গ্রামের লোকজন সভা করে শিয়াল তাড়ানোর জন্য একজোট হয়েছেন বলে জানা গেছে। তারা এলাকার জঙ্গল ও ঝোপ-ঝাড়ে অভিযান চালিয়ে শিয়াল তাড়ানোর অভিযান শুরু করেছেন। স্থানীয় স্কুল শিক্ষক ইসাহাক আলী জানান, পাগলা শিয়ালের ভয়ে এলাকার লোকজন আতঙ্কিত হয়ে পড়েছেন। তারা স্বাভাবিক চলাফেরা করতে পারছেন না।

নির্বাচিত সংবাদ