২০ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

ক্লার্কের বিদায়ী ম্যাচে অস্ট্রেলিয়ার জয়

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ এক ম্যাচ বাকি থাকতেই ঐতিহ্যের এ্যাশেজ হাতছাড়া করে অস্ট্রেলিয়া। ওভালের শেষ টেস্টটি ছিল মাইকেল ক্লার্কের শেষ আন্তর্জাতিক ম্যাচ। সেখানে ইনিংস ও ৪৬ রানের বড় জয়ে অধিনায়ককে বিদায়ী উপহার দিলেন স্টিভেন স্মিথ-মিচেল জনসনরা। পাঁচ ম্যাচের লড়াইয়ে ব্যবধান কমিয়ে ২-৩ এ শেষ করল অতিথিরা। অস্ট্রেলিয়ার ৪৮১ রানের জবাবে যথাক্রমে ১৪৯ ও ২৮৬ রানে অলআউট হয় ইংলিশরা। দু’দল এক টি২০ এবং পাঁচ ওয়ানডের সিরিজে মুখোমুখি হবে। সাউদাম্পটনে প্রথম ওয়ানডে ৩ সেপ্টেম্বর। তার আগে বৃহস্পতিবার বেলফাস্টে আয়ারল্যান্ডের সঙ্গে একটি ওয়ানডে খেলবে সফরকারী অস্ট্রেলিয়া।

আগেই সিরিজ হাত ছাড়া হওয়ায় ওভালে অসিদের হারানোর কিছু ছিল না। নির্ভার অস্ট্রেলিয়া তাই দুর্দান্ত ক্রিকেট খেলে। ফলোঅনে পড়ে দ্বিতীয় ইনিংসে ২০৩ রানে ৬ উইকেট হারানোর পর তৃতীয় দিনেই হারের প্রহর গুনছিল এ্যালিস্টার কুকের দল। দেখার ছিল ইনিংস হার এড়াতে পারে কি না। শেষ পর্যন্ত সেটিও হয়নি। বৃষ্টিবিঘিœত চতুর্থ দিনে বাকি ৪ উইকেট হারিয়ে আর ৮৩ রান যোগ করে তারা। আগের দিনই সর্বোচ্চ ৮৫ রান করে আউট হন অধিনায়ক কুক। সাত নম্বরে নামা জস বাটলার ৪২, এরপর মঈন আলির ৩৫ কেবল হারের পথে অপেক্ষাই বাড়িয়েছে! অস্ট্রেলিয়ার হয়ে পিটার সিডল ৪, নাথান লেয়ন ও মিচেল মার্শ নেন ২টি করে উইকেট।

এর আগে প্রথম ইনিংসে অস্ট্রেলিয়ার বড় সংগ্রহে ১৪৩ রানের ম্যারাথন ইনিংস খেলেন স্মিথ। ৩৩তম টেস্টে তুলে নেন ১১ নম্বর সেঞ্চুরি। ওপেনার ডেভিড ওয়ার্নর ৮৫ এবং টপঅর্ডারে এ্যাডাম ভোগস করেন ৭৬ রান। নয় নম্বরে নেমে ম্যারাথন এক হাফসেঞ্চুরি হাঁকান মিচেল স্টার্ক (৫২ বলে ৫৮)। ইংল্যান্ডের হয়ে মঈন আলি, বেন স্টোকস ৩ ও স্টিভেন ফিন নেন ২টি করে উইকেট। এবারের এ্যাশেজে ব্যাট হাতে লড়াইটা ছিল অস্ট্রেলিয়ার স্টিভেন স্মিথ ও ইংল্যান্ডের জো রুটের মধ্যে। সেখানে রুট যেমন দ্যুতি ছড়িয়েছেন, তেমিন সাফল্যে ভাসিয়েছেন দলকে। স্মিথই বা কম গেলেন কোথায়? লর্ডসের দ্বিতীয় টেস্টে জ্বলে উঠেছিলেন, দলও জিতেছিল। ওভালের শেষ ম্যাচেও একই ঘটনার পুনরাবৃত্তি! নতুন কা-ারি জ্বলে উঠলেন অন্তিম সময়ে। দারুণ ব্যাটিংয়ে ক্লার্ককে বিদায় বেলায় জয় উপহার দিলেন।