২০ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

কেশপুরের মাদ্রাসায় ১২ বছর পর চাকুরিতে পূর্নবহাল

নিজস্ব সংবাদদাতা, কেশবপুর॥ কেশবপুর উপজেলার গড়ভাঙ্গা দাখিল মাদ্রাসার ক্রীড়া শিক্ষক আলতাফ হোসেন ১২ বছর পর ভারত থেকে ফিরে এসে আবারও স্বপদে চাকুরি করছেন। মাদ্রাসার সুপার মাওলানা রেজাউল ইসলাম টাকার বিনিময়ে তাকে ওই চাকুরিতে বহাল করেছেন অভিযোগ উঠেছে। এ ঘটনায় এলাকার মানুষের মধ্যে তীব্র ক্ষোভ দেখা দিয়েছে।

নির্ভরযোগ্য সূত্র জানায় আলতাফ হোসেন ১২ বছর আগে চলে যাওয়ার পর ওই পদে আব্দুল মালেক নামের এক ব্যক্তিকে নিয়োগ দেয়া হয়। আব্দুল মালেক গত ৭ বছর যাবৎ ওই পদে চাকুরি করেন। আলতাফ হোসেন পুলিশের ভয়ে পালিয়ে ভারতে যেয়ে ১২ বছর বসবাস করে সম্প্রতি বাড়ি ফিরে আসেন। এসেই মাদ্রাসা সুপারের সাথে গোপন আতায়াত করে মালেকের চাকরি সনদ জাল অভিযোগ এনে তাকে কৌশলে চাকুরি থেকে সরিয়ে দেয়া হয়। ওই পদে পুনরায় আলতাফ হোসেনকে অনিয়ম ও দূর্নীতির আশ্রয় নিয়ে স্বপদে বহাল করানো হয়েছে। মাদ্রাসা সুপার রেজাউল ইসলাম জানান, পূর্বের কমিটির নিকট আলতাফ স্বপদে বহাল করতে একটা আবেদন করেন। কমিটি তার স্বপদে বহাল করে গেছে। আমি তার কাছ থেকে কোন টাকা পয়সা নেয়নি। মাদ্রাসা পরিচালনা কমিটির সভাপতি শফিকুল ইসলাম মুকুল বলেন আমাকে না জানিয়ে সুপার ব্যক্তি উদ্যোগে আলতাফ হোসেনকে তার পূর্বের পদে কোন প্রকার নিয়োগ বোর্ড না করেই বহাল করেছেন। অথচ তার পদ শুন্য করেই নিয়ম তান্ত্রিকভাবে আব্দুল মালেককে তার পদে নিয়োগ দেয়া হয়েছিল। এ ব্যাপারে উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার বিকাশ চন্দ্র সরকার জানান ১২/১৩ বছর আগে যে প্রতিষ্ঠান ছেড়ে চলে যায় তাকে ওই পদে নেয়ার কোন সুযোগ নেই। আলতাফ হোসেনকে বহাল করার কাগজ পত্রে স্বাক্ষর করানোর জন্যে সুপার এনেছিলেন আমি তাতে স্বাক্ষর করিনি। সুপার ও সভাপতিকে ব্যবস্থা নেয়ার নির্দেশ দেয়া হয়েছে বলে শিক্ষা অফিসার জানান।