১৬ অক্টোবর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

চট্টগ্রামে ধর্ষণের দায়ে ৭ ধর্ষকের যাবজ্জীবন

স্টাফ রিপোর্টার, চট্টগ্রাম অফিস ॥ চট্টগ্রামে তরুণীকে গণধর্ষণের অপরাধে সাত আসামীকে যাবজ্জীবন কারাদ- প্রদান করেছে একটি আদালত। চট্টগ্রাম নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল-১ এর বিচারক মোঃ রেজাউল করিম এ রায় প্রদান করেন। দন্ডিত আসামিদের মধ্যে ৪ জন কারাগারে। বাকিরা পলাতক রয়েছে।

আদালত সূত্রে জানা যায়, দন্ডাদেশপ্রাপ্ত আসামিরা হলো- আবদুল মালেক, বদর রহমান, দেলোয়ার হোসেন, মোক্তার হোসেন, কামাল উদ্দিন, রিয়াজুর রহমান ও শামসুদ্দিন। এদের বিরুদ্ধে ধর্ষণের অভিযোগ সন্দেহাতীতভাবে প্রমাণিত হওয়ায় আদালত এ দ- প্রদান করেন বলে জানান ট্রাইব্যুনালের পিপি এ্যাডভোকেট জেসমিন আক্তার।

মামলার বিবরণে জানা যায়, ১৯৯৭ সালের ২২ ডিসেম্বর চন্দনাইশ উপজেলার আরাকান সড়কের দেওয়ানহাট এলাকায় ধর্ষিত হয় এক তরুণী। তার মা তাকে ও ছোট বোনকে নিয়ে চট্টগ্রাম শহর থেকে সাতকানিয়ায় খালার বাড়িতে বেড়াতে যাচ্ছিলেন। যে বাসে তারা চড়েছিলেন সে বাসটি চন্দনাইশ উপজেলার দেওয়ানহাট এলাকায় পৌঁছলে চালকের সহকারী রিয়াজুর রহমান যাত্রীদের জানায় যে, বাসটি সাতকানিয়ায় যাবে না। এ সময় অন্যান্য যাত্রীর সঙ্গে ঐ তিনজনও নেমে গিয়ে আরেকটি বাসের জন্য অপেক্ষায় থাকেন। কিছুক্ষণ পর বাসের সহকারী রিয়াজুর তাদের সাতকানিয়ামুখী বাসে তুলে দেয়ার নাম করে খানিকটা দূরে নিয়ে যায় এবং মা ও ছোট বোনকে বেঁধে রেখে ৮ জনে মিলে তরুণীকে ধর্ষণ করে। এ ঘটনায় ঐ তরুণী বাদী হয়ে ২০ ডিসেম্বর একটি মামলা দায়ের করেন। এতে মোট ৮ জনকে আসামি করা হয়। একই বছরের ১৬ জুন চার্জশীট এবং ১৮ অক্টোবর আসামিদের বিরুদ্ধে চার্জগঠিত হয়। ১৫ সাক্ষীর মধ্যে মোট ১০ জনের সাক্ষ্যে অপরাধ প্রমাণিত হওয়ায় বিচারক ৭ আসামিকে যাবজ্জীবন কারাদন্ডাদেশ প্রদান করেন। মামলায় আসামি মোট ৮ জন হলেও এর মধ্যে একজনের মৃত্যু হওয়ায় তার নাম বাদ দেয়া হয়।