২২ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

পদ্মা সেতুর ইয়ার্ডে ভাঙ্গন থেমেছে বেড়েছে অন্যত্র

পদ্মা সেতুর ইয়ার্ডে ভাঙ্গন থেমেছে বেড়েছে অন্যত্র

মীর নাসিরউদ্দিন উজ্জ্বল, মুন্সীগঞ্জ ॥ পদ্মা সেতুর কন্সট্রাকশন ইয়ার্ডের ভাঙ্গন থেমেছে। তবে পাশের খড়িয়া এবং মাওয়া পুরনো ঘাটসহ বিভিন্ন স্থানে মঙ্গলবার ভাঙ্গন দেখা দিয়েছে। এই ইয়ার্ডের আকস্মিক ভাঙ্গনে রবিবার রাতে বিলীন হয় প্রায় ২শ’ মিটির দীর্ঘ এবং প্রায় ৫০ মিটার প্রস্থ এলাকা। এতে ইয়ার্ডের একটি জেটি, জেটিতে ওঠার রাস্তা এবং অস্থায়ী কংক্রিট প্লান্ট বিলীন হয়ে গেছে। তবে বাঁশ ও বালুর বস্তাসহ নানাভাবে ভাঙ্গন নিয়ন্ত্রণ করা হয়েছে। নতুন করে যাতে ভাঙ্গন না দেখা দেয় তাই মঙ্গলবার দিনভর এখানে কাজ করেছে আনেক কর্মী। প্রতিরক্ষামূলক ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে। এদিকে এই ভাঙ্গনের খবর শুনে রওনা হওয়া পদ্মা সেতুর ঠিকাদার চায়না মেজর ব্রিজ কোম্পানি লিমিটেডের জেনারেল ম্যানেজার বাংলাদেশে পৌঁছেছেন। তিনি মঙ্গলবার ভাঙ্গন বিষয়ে সরেজমিন পরিদর্শন করে খুুঁটিনাটি খোঁজখবর নেন। তিনি ফের ভাঙ্গন যাতে না হয়, সেলক্ষ্যে কাজ করার জন্যও সংশ্লিষ্টদের নির্দেশ দিয়েছেন।

মূল সেতু এলাকা থেকে প্রায় ১ কিলোমিটার ভাটিতে লৌহজংয়ের কুমারভোগস্থ পদ্মা সেতুর কন্সট্রাকশন ইয়ার্ডের এ ভাঙ্গন প্রথম দেখা দেয় গত ২৭ জুন। সে সময় ১শ’ মিটার দীর্ঘ ও ৫০ মিটার প্রস্থ এলাকায় বিলীন হয়। এবার সে একই স্থানে ভাঙ্গন দেখা দেয় প্রায় দু’মাস পর। তবে এবারের ভাঙ্গন আগের চেয়ে বেশি ভয়াবহ। এদিকে দোহার উপজেলার মেঘুলায় পদ্মা ভাঙ্গন দেখা দিয়েছে। এখানে বহু জনপদ বিলীন হচ্ছে। ভাঙ্গনের মুখে লোকজন ঘরবাড়ি সরিয়ে নিচ্ছে। মঙ্গলবার নৌকাসহ নানাভাবে সহায় সম্বল সরিয়ে নিতে দেখা যায়। লৌহজং উপজেলার পুরনো মাওয়া ফেরিঘাট এলাকায় পদ্মার ভাঙ্গন দেখা দিয়েছে। কুমারভোগের পাশের খড়িয়া এলাকায়ও ভাঙ্গন দেখা দিয়েছে।

মঙ্গলবার এখানে আরও ২০ সেন্টিমিটার পানি বেড়েছে। তাই এই এলাকায় নদী তীরের মানুষের মধ্যে ভাঙ্গন আতঙ্ক দেখা দিয়েছে। ভাগ্যকুল পয়েন্টে পদ্মা এখন বিপদসীমার ১২ সেন্টিমিটার ওপর দিয়ে বইছে। তাই এই এলাকায় নতুন নতুন নিম্নাঞ্চল প্লাবিত হয়েছে। বেড়েছে নদী ভাঙ্গন। কুমারভোগের পদ্মা সেতুর নদী শাসনের কন্সট্রাকশন ইয়ার্ডের কিছু এলাকা জলমগ্ন হয়েছে।

পদ্মা সেতুর টেস্ট পাইল এলাকায় ভাঙ্গনরোধে পর্যাপ্ত ব্যবস্থা নেয়ায় এখন তা নিরাপদে রয়েছে। এটি পদ্মা সেতুর জন্য আশার কথা। কারণ সংশ্লিষ্টরা আশঙ্কা করছিল পদ্মা সেতুর গুরুত্বপূর্ণ এই পয়েন্টে ভাঙ্গন দেখা দিতে পারে। এখানে ভাঙ্গন দেখা দিলে পদ্মা সেতুর কাজ বিলম্বিত হওয়ার আশঙ্কা ছিল। তবে এটি আপাতত কেটে গেছে বলে সংশ্লিষ্ট বিশেষজ্ঞরা জানিয়েছেন।

মুন্সীগঞ্জের জেলা প্রশাসক মোঃ সাইফুল হাসান বাদল জানান, এসব বিষয়ে স্থানীয়ভাবে যথাযথ ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে। এতে হতাশ হওয়ার কিছু নেই। পদ্মা সেতুর কাজ যথাযথভাবেই এগুচ্ছে।