২১ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

দ. আফ্রিকা-নিউজিল্যান্ড সিরিজ নির্ধারণী ওয়ানডে আজ

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ ডারবানে স্বাগতিক দক্ষিণ আফ্রিকা ও নিউজিল্যান্ডের মধ্যকার তিন ম্যাচ সিরিজের শেষ ওয়ানডে আজ। ১-১এ সমতা বিরাজ করায় এটি সিরিজ নির্ধারণী ম্যাচ। সেঞ্চুরিয়নে প্রথম ওয়ানডেতে স্বাগতিক দ. আফ্রিকা ৬ উইকেটে এবং পচেফস্ট্রমের দ্বিতীয়টিতে ৮ উইকেটের বড় ব্যবধানে জয় পায় অতিথি নিউজিল্যান্ড। এর আগে দুই ম্যাচ টি২০ ১-১এ অমীমাংসিত থাকে। আজকের সিরিজ নির্ধারণী লড়াই দিয়ে শেষ হচ্ছে বিশ্বকাপের ফাইনালিস্ট কিউদের জিম্বাবুইয়ে ও দ. আফ্রিকা সফর। শুরুতে জিম্বাবুইয়ের বিপক্ষে তিন ওয়ানডের সিরিজ ২-১এ জেতে কেন উইলিয়ামসনের দল। একমাত্র টি২০তেও তুলে নেয় সাফল্য।

আধুনিক ক্রিকেটের সুপার পাওয়ার দক্ষিণ আফ্রিকা, অন্যদিকে বিশ্বকাপের ফাইনালিস্ট নিউজিল্যান্ড। সাড়ে চার মাস আগে এই নিউজিল্যান্ডে কাছে হেরেই বিশ্বকাপের সেমিফাইনাল থেকে বিদায় নিতে হয়েছিল প্রোটিয়াদের। এবারের সিরিজ ঘিরে তাই বিশ্বের ক্রিকেটপাগল মানুষের ছিল বাড়তি আগ্রহ। ‘সেয়ানে সেয়ানে টক্কর’ দিয়ে যেটি ঠিকই জমিয়ে তুলেছে দল দুটি। হাইস্কোরিং প্রথম ওয়ানডেতে ৭ উইকেটে ৩০৪ রানের বড় স্কোর গড়ে এবি ডি ভিলিয়ার্সের দক্ষিণ আফ্রিকা। ১২৪ রানের দুর্দান্ত এক সেঞ্চুরির ইনিংস উপহার দেন তারকা ব্যাটসম্যান হাশিম আমলা। রাইলি রুশো করেন ৮৯। জবাবে কম যায়নি ব্ল্যাক ক্যাপসরা। ৪৮.১ ওভারে অলআউট হওয়ার আগে ২৮৪ রান সংগ্রহ করে ২০ রানে হারে উইলিয়ামসনের দল। টম ল্যাথাম ৬০, অধিনায়ক উইলিয়ামসন ৬৭ ও জিমি নিশাম করেন ৪১ রান।

বদলটা মন্দ নেয়নি কিউইরা। দ্বিতীয় ওয়ানডেতে ৮ উইকেটে জয়ের পথে স্বাগতিকদের দাঁড়াতেই দেয়নি তারা। লো-স্কোরিং ম্যাচে ২০৪ রানে অলআউট হয় স্বাগতিক দক্ষিণ আফ্রিকা। ফারহান বিহারদিয়ান করেন সর্বোচ্চ ৭০ রান। এছাড়া রাইলি রুশো ৩৯, অধিনায়ক এবি ডি ভিলিয়ার্সের ৩১, ভারনন ফিল্যান্ডারের ৩০* উল্লেখ্য। অতিথিদের হয়ে ডগ ব্রেসওয়েল নেন ৩ উইকেট। জবাবে ৪৪.৩ ওভারে ২ উইকেট হারিয়ে লক্ষ্যে পৌঁছে যায় নিউজিল্যান্ড। মর্টিন গাপটিল ১০৩ ও জর্জ ওয়ার্কার ২০ রানে অপরাজিত থাকেন। টম ল্যাথাম আউট হন ৬৪ রান করে। প্রোটিয়াদের জন্য আজও মাথাব্যথার কারণ হয়ে উঠতে পারেন গাপটিল। ব্যাট হাতে দুর্দান্ত ছন্দে রয়েছেন নিউজিল্যান্ড ওপেনার। জিম্বাবুইয়ে সফর হয়ে এ পর্যন্ত ৭০ গড়ে ৪৩১ রান করেছেন তিনি। গাপটিলের আট ইনিংসে যথাক্রমে ১১, ১১৬*, ৪২, ৩৩, ৪২, ৬০, ২৫ ও ১০৩*!

মাঝে ইনজুরির জন্য এক ওয়ানডে খেলতে পারেননি। দক্ষিণ আফ্রিকা অধিনায়ক ডি ভিলিয়ার্স আত্মবিশ্বাসী। তিনি বলেন, ‘বিশ্বকাপের স্মৃতি এখন অতীত। আমরা ২০১৭ চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফি টার্গেট করে এগিয়ে যাচ্ছি। দ্বিতীয় ম্যাচে ব্যাটিং ভাল হয়নি। ভুলত্রুটি শুধরে শেষ ম্যাচে জয় তুলে নিতে চাই।’ অন্যদিকে নিয়মিত অধিনায়ক ব্রেন্ডন ম্যাককুলামের অনুপস্থিতিতে নেতৃত্ব দেয়া কিউই সেনাপতিও সতর্ক। উইলিয়ামসন বলেন, ‘দক্ষিণ আফ্রিকা খুবই শক্তিশালী দল। সিরিজ জিতে হলে তাই আমাদের শেষ ম্যাচেও সেরাটা দিতে হবে। দ্বিতীয় ওয়ানডেতে বোলাররা কাজটা সহজ করে দিয়েছিল। ব্যাট হাতে গাপটিল যথারীতি দুর্দান্ত। আমি আশাবাদী।’

তবে ব্যাট হাতে অধিনায়ক নিজে প্রত্যাশা পূরণ করতে পারছেন না। সফরে একটি হাফসেঞ্চুরি। সেঞ্চুরিয়নে ৭ রানে সাজঘরে ফেরেন প্রতিভাবান উইলোবাজ।