২৪ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

আর্সেনাল-লিভারপুল লড়াই অমীমাংসিত

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ উত্তেজনায় ঠাসা আর্সেনাল-লিভারপুলের ম্যাচে কোন দলই হারেনি। সোমবার রাতে লন্ডনের এমিরেটস স্টেডিয়ামে ইংলিশ প্রিমিয়ার লীগের ম্যাচ শেষ হয় গোলশূন্যভাবে। গোল মিসের মহড়া ছাড়াও ম্যাচটি ছিল নানা কারণে ঘটনাবহুল।

আর্সেনালের একটি ন্যায্য গোল অফসাইডের অজুহাতে বাতিল করেন রেফারি। দু’দলেরই কয়েকটি প্রচেষ্টা সাইডপোস্ট ও বারপোস্টে লেগে প্রতিহত হয়। তৃতীয় ম্যাচে লিভারপুল এই প্রথম পয়েন্ট খুইয়েছে। ৭ পয়েন্ট নিয়ে তাদের অবস্থান এখন তিন নম্বরে। তিন ম্যাচে একটি করে জয়, হার ও ড্র সঙ্গী করে ৪ পয়েন্ট নিয়ে নয় নম্বরে আর্সেনাল। তিন ম্যাচের সবকটিতে জেতা ম্যানচেস্টার সিটি ৯ পয়েন্ট নিয়ে সবার উপরে।

এমিরেটস স্টেডিয়ামে শুরু থেকেই আক্রমণ-পাল্টা আক্রমণে জমজমাট হয়ে ওঠে ম্যাচ। শুরুতেই এগিয়ে যেতে পারত অতিথি লিভারপুল। কিন্তু ডি বক্সের মধ্য থেকে ব্রাজিলিয়ান তারকা ফিলিপ কাউটিনহোর শট পোস্টে লেগে প্রতিহত হয়। ভাগ্যের জোরে বেঁচে যাওয়ার পর আক্রমণাত্মক ফুটবল শুরু করে আর্সেনাল। দশম মিনিটে এ্যারন রামসে বল জালেও জড়িয়েছিলেন, কিন্তু লাইন্সম্যানের অফসাইডের সিদ্ধান্তে গোল পায়নি স্বাগতিকরা। কিন্তু টিভি রিপ্লেতে দেখা যায়, গোলটি সঠিক ছিল। যে কারণে ম্যাচ শেষে আর্সেনাল কোচ আর্সেন ওয়েঙ্গার ক্ষোভ প্রকাশ করেন। ম্যাচে দুর্দান্ত খেলেন গানার্স গোলরক্ষক পিটার চেক। আগের দুই ম্যাচের ব্যর্থতা কাটিয়ে গোলপোস্টে দুর্বার ছিলেন চেক প্রজাতন্ত্রের এই তারকা। ৪০ মিনিটে বেলজিয়ামের ফরোয়ার্ড ক্রিশ্চিয়ান বেনটেকের একটি প্রচেষ্টা লাফিয়ে ব্যর্থ করে দেন চেক। ৪৪তম মিনিটে আরেকবার পোস্টে বল লাগার হতাশায় পুড়তে হয় লিভারপুলকে। এবারও দুর্ভাগ্যের শিকার ব্রাজিরিয়ান কাউটিনহো। তার শটটি চেকের আঙুল ছুঁয়ে পোস্টে বাধা পেলে গোলশূন্যভাবে শেষ হয় প্রথমার্ধের খেলা। বিরতির পর শুরু থেকেই প্রতিপক্ষের রক্ষণে চাপ বাড়াতে থাকে আর্সেনাল। আলেক্সিস সানচেজ ও অলিভিয়ের জিরুডরা একের পর এক আক্রমণ শাণাতে থাকে। কিন্তু সাফল্য মিলছিল না। গোল মিসের মহড়ার মধ্যে ৫৯ মিনিটে যোগ হয় পোস্টের বাধা। বাঁদিক থেকে সানচেজের দারুণ একটি কোনাকুনি শট পোস্টে লেগে বাইরে চলে যায়। শেষদিকে গোল পেতে আক্রমণের ধার আরও বাড়িয়ে দেয় স্বাগতিকরা। কিন্তু অতিথি গোলরক্ষক সিমোন মিগনোলেটের নৈপুণ্যে গোল পায়নি গানার্সরা। দ্বিতীয়ার্ধে অনেকটা একচেটিয়া খেলেও জয় না পাওয়ার আক্ষেপ নিয়ে মাঠ ছাড়ে আর্সেনাল।

ম্যাচ শেষে আর্সেনাল কোচ আর্সেন ওয়েঙ্গার গোল বাতিলের জন্য রেফারির কড়া সমালোচনা করে বলেন, আপনারা সবাই দেখেছেন কি হয়েছে। সেটা পরিষ্কার গোল ছিল। অথচ রেফারি অফসাইডের অজুহাতে বাতিল করলেন। এমন বাজে রেফারিং মোটেও কাম্য নয়। আমরা গোটা ম্যাচেই ভাল খেলেছে। জয় আমাদের প্রাপ্য ছিল। ওয়েঙ্গার যেমন জয়ের কথা বলছেন, তেমনি লিভারপুল কোচ ব্রেন্ডন রজার্সও মনে করেন তার দলের জয় প্রাপ্য ছিল। ম্যাচ শেষে রজার্স বলেন, প্রথমার্ধে আমার দল অনেক ভাল ফুটবল খেলেছে। আমাদের জয় প্রাপ্য ছিল। আমরাই বেশি সুযোগ পেয়েছি। কিন্তু পোস্টের বিড়ম্বনায় তা হয়নি।

জড়তা কাটিয়ে স্বরূপে ফিরতে পেরে উচ্ছ্বসিত আর্সেনাল গোলরক্ষক পিটার চেক। ম্যাচ শেষে তিনি বলেন, নতুন ক্লাবে যোগ দিয়ে প্রথম ম্যাচেই যদি সবকিছু খারাপ হয়ে যায়, তাহলে ঘুরে দাঁড়ানোর সর্বোচ্চ চেষ্টা করতে হয়। আমি সেটাই করেছি। প্রথমার্ধে আমি সব সময় ঠিক জায়গায় ছিলাম। আর দলকে সাহায্য করেছি কঠিন মুহূর্তগুলো সামলে নেয়ার জন্য। এটা বিশ্বাস করা খুবই কঠিন যে, লিভারপুল এত সুযোগ পাওয়ার পরও আমরা গোলশূন্য ড্র করতে পেরেছি। উজ্জ্বল নৈপুণ্যের কারণে তাই ম্যাচসেরাও হন চেক।

নির্বাচিত সংবাদ