২২ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

শ্রমিকরা নিরাপদ কর্মবান্ধব পরিবেশে কাজ করছেন ॥ বাণিজ্যমন্ত্রী

অর্থনৈতিক রিপোর্টার ॥ বাংলাদেশের তৈরি পোশাক শিল্পে নিয়োজিত শ্রমিকরা এখন অনেক নিরাপদ ও কর্মবান্ধব পরিবেশে কাজ করছে বলে জার্মানিতে এক উচ্চ পর্যায়ের সভায় বলেছেন বাণিজ্যমন্ত্রী তোফায়েল আহমেদ। এদিকে, শ্রমিকদের কল্যাণে নেয়া পদক্ষেপে বাংলাদেশের প্রতি সন্তোষ জানিয়েছে দেশটি। সোমবার বার্লিনে ‘দি ফেডারেল মিনিস্ট্রি অব ইকোনমিক কো-অপারেশন এ্যান্ড ডেভেলপমেন্ট’ ও ‘জার্মান সোস্যাল এ্যাক্সিডেন্ট ইন্স্যুরেন্স’র যৌথ উদ্যোগে সভা হয়। তৈরি পোশাকের প্রোডাকশন চেনের কমপ্লায়েন্স প্রতিপালনের বিষয়ে উচ্চ পর্যায়ের চার দিনের সভায় আলোচকরা বাংলাদেশের গৃহীত পদক্ষেপের প্রশংসা করেন।

বাণিজ্যমন্ত্রী তোফায়েল আহমেদ প্যানেল আলোচনা ও দ্বিপাক্ষিক সভায় বলেন, বাংলাদেশে অপ্রত্যাশিত রানা প্লাজা দুর্ঘটনা সরকার সফলভাবে মোকাবেলা করেছে। এ দুর্ঘটনার পর বাংলাদেশ সরকার প্রয়োজনীয় কার্যকর পদক্ষেপ নেয়ার ফলে আর কোন শিল্পে দুর্ঘটনা ঘটেনি। বিভিন্ন শিল্পের শ্রমিকদের নিরাপদ ও কর্মবান্ধব পরিবেশ সৃষ্টির জন্য বাংলাদেশ সরকার, প্রাইভেট সেক্টর, শ্রমিকদের সংগঠন, ডেভেলপমেন্ট পার্টনার, আইএলও, এ্যাকোর্ড ও অ্যালায়েন্স একযোগে কাজ করে যাচ্ছে বলে তিনি জানান। তোফায়েল বলেন, এখন নিরাপদ ও কর্মবান্ধব পরিবেশে বাংলাদেশের তৈরি পোশাক শ্রমিকরা কাজ করে যাচ্ছেন। মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের দেয়া ‘বাংলাদেশ এ্যাকশন প্ল্যান-২০১৩’-এ শ্রমিকদের অধিকার, কাজের পরিবেশ ও স্বাস্থ্যসেবা নিশ্চিত করতে বলা হয়েছে। তিনি জানান, শিল্প কারখানায় যেকোন ধরনের দুর্ঘটনায় বাংলাদেশকে প্রয়োজনীয় সহযোগিতা দেয়ার আগ্রহ প্রকাশ করেছে জার্মান সোশ্যাল এ্যাক্সিডেন্ট ইন্স্যুরেন্স।

বাংলাদেশের শিল্প প্রতিষ্ঠানে ফায়ার সেফটি ডোর ও অন্য যন্ত্রপাতি আমদানি শুল্কমুক্ত করায় বাংলাদেশ সরকারের প্রশংসা করা হয় সভায়। বাংলাদেশ সরকারের উদ্যোগে তৈরি পোশাক শিল্পের বিল্ডিং সেফটি, ফায়ার সেফটি, ইলেকট্রিক সেফটি এবং শ্রমিকদের নিরাপদ কর্মবান্ধব পরিবেশেরও প্রশংসা করেছে জার্মানি ও আইএলও। জার্মানি বাংলাদেশের অর্থনৈতিক উন্নয়ন, ব্যবসাবাণিজ্য ও শিল্প প্রসারে একসঙ্গে কাজ করার আগ্রহ প্রকাশ করেছে বলেও জানান বাণিজ্যমন্ত্রী।