২১ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

কারা হেফাজতে থাকা স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতার মৃত্যু

কারা হেফাজতে থাকা স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতার মৃত্যু

স্টাফ রিপোর্টার ॥ কারা হেফাজতে ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন স্বেচ্ছাসেবক লীগের নেতা ফরহাদ হোসেনের (৪২) মৃত্যু হয়েছে। তিনি মাদক মামলায় গ্রেফতার হয়ে কারাগারে ছিলেন। তবে নিহত ফরহাদ বাড্ডার আলোচিত ফোর মার্ডার মামলার অন্যতম সন্দেহভাজন আসামি ছিলেন বলে পুলিশের তরফ থেকে দাবি করা হয়েছে। এদিকে র‌্যাবের অভিযানে গ্রেফতার হয়েছে ১৫ প্রতারক। উদ্ধার হয়েছে চাকরি দেয়ার নাম করে প্রতারণার শিকার হওয়া ৪২ জন।

ঢাকা কেন্দ্রীয় কারাগারের জেলার নেসার আলম জানান, বুধবার ভোরে ফরহাদ হোসেনের হার্ট এ্যাটাক হয়। সঙ্গে সঙ্গে তাকে ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। ভোর ৬টায় কর্তব্যরত চিকিৎসকরা তাকে মৃত ঘোষণা করেন। তিনি ঢাকা মহানগর উত্তরের স্বেচ্ছাসেবক লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ছিলেন।

নিহত ফরহাদকে গত ১৮ আগস্ট বাড্ডায় তার অফিস থেকে গ্রেফতার করা হয়েছিল বলে বাড্ডা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা এম এ জলিল জানান। তাকে অফিস থেকে ১৩ বোতল ফেনসিডিল, ৬২টি ইয়াবা ট্যাবলেট এবং ফেনসিডিলের কিছু খালি বোতলসহ গ্রেফতার করা হয়। পরে মাদকের মামলায় তাকে আদালতে সোপর্দ করা হয়। আদালত তাকে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন। সম্প্রতি বাড্ডায় চার খুনের ঘটনায় সন্দেহভাজনদের তালিকায় ফরহাদের নাম ছিল। আসামিদের গ্রেফতারে চলমান অভিযানেই ফরহাদ গ্রেফতার হয়।

প্রসঙ্গত, গত ১৩ আগস্ট বাড্ডার আদর্শনগর পানির পাম্পের কাছে সন্ত্রাসীদের গুলিতে যুবলীগ কর্মী ও উত্তর বাড্ডার এইচএএফ হাসপাতালের ব্যবস্থাপক ফিরোজ আহমেদ মানিক ( ৪৫) ও ঢাকার ৬ নম্বর ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের যুগ্ম সম্পাদক শামসুদ্দিন মোল্লা ওরফে শামছু মোল্লার (৫৩) মৃত্যু হয়।

এ ঘটনায় গত ১৬ আগস্ট মামলাটির তদন্তকারী সংস্থা ডিবি পুলিশ গুলশান থানা ছাত্রলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক নূর আলম (২৬) ও বাড্ডা থানা আওয়ামী লীগের শিক্ষা বিষয়ক সম্পাদক ফারুক মিলনকে (৪০) গ্রেফতার করে রিমান্ডে নেয়।

তবে নিহতের স্ত্রী মুনমুন তাসলিমা সুবর্ণা ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ মর্গে সাংবাদিকদের জানান, গত ১৮ আগস্ট রাত সাড়ে ৮টার দিকে মধ্যবাড্ডার পার্টি অফিস থেকে পুলিশ তাকে ধরে নিয়ে যায়। রাজনৈতিক কারণে ফরহাদকে ধরা হয়েছে বলে পুলিশের তরফ থেকে বলা হয়েছিল। পরে তাকে মাদকের মামলায় চালান দেয়া হয়। তার স্বামী মাদক সেবন করতেন না। তাদের বাড়ি মধ্যবাড্ডায়। ১৭ বছরের বিবাহিত জীবনে তাদের কোন সন্তান নেই। তার স্বামীকে মৃত অবস্থায় হাসপাতালে আনা হয়েছিল বলে রেজিস্ট্রারে উল্লেখ রয়েছে বলেও তিনি দাবি করেন। যদিও চিকিৎসক মারা যাওয়া বা রোগ সম্পর্কে তেমন কিছুই লিখেননি রেজিস্ট্রারে।

১৫ প্রতারক গ্রেফতার ও ৪২ জন উদ্ধার ॥ বুধবার র‌্যাব-৩ এর একটি দল চাকরি দেয়ার নাম করে প্রতারণায় দায়ে ১৫ জনকে গ্রেফতার করেছে। গ্রেফতারকৃতদের তথ্যমতে উদ্ধার করা হয়েছে ৪২ চাকরিপ্রার্থীকে। উদ্ধারকৃতদের চাকরি দেয়ার নাম করে ঢাকায় ডেকে এনে আটকে রাখা হয়েছিল।