১৯ ডিসেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

কলারোয়ায় স্কুলে ঢুকে দুই শিশুকে পিটিয়ে জখম ॥ প্রতিবাদে সড়ক অবরোধ ঘেরাও

স্টাফ রিপোর্টার, সাতক্ষীরা ॥ কলারোয়ায় প্রাথমিক বিদ্যালয়ের কক্ষে ঢুকে দুই ছাত্রকে পিটিয়ে জখম করার প্রতিবাদে এবং দোষী ব্যক্তির বিচার দাবিতে এলাকাবাসী ও অভিভাবকরা সড়ক অবরোধ এবং স্কুল ঘেরাও করেছে। বুধবার সকালে কলারোয়ার ‘হঠাৎগঞ্জ সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ে’ এসব কর্মসূচী পালন করে তারা। নির্যাতনকারী প্রকাশ্যে ক্ষমা চাওয়ার পর প্রধান শিক্ষক দোষী ব্যক্তির বিচারের আশ্বাস দিলে ঘেরাও কর্মসূচী প্রত্যাহার করা হয়। তবে এ নিয়ে এলাকায় উত্তেজনা বিরাজ করছে। এর আগে মঙ্গলবার সন্ধ্যায় স্থানীয় লোকজন নির্যাতনকারী ওই ব্যক্তিকে একটি বাজারে ঘেরাও করে রাখে।

এলাকাবাসী জানায়, মঙ্গলবার সকাল নয়টার দিকে কলারোয়া উপজেলার হঠাৎগঞ্জ সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের তৃতীয় শ্রেণীর ছাত্র সাব্বির হোসেন ও রায়হান বিদ্যালয়ের সামনে খেলছিল। এ সময় ওই স্থান দিয়ে যাওয়ার সময় বাকসা গ্রামের সাবেক সেনা সদস্য গোলাম রহমান তাদের দু’জনকে দেখে ক্ষিপ্ত হয়ে তাড়িয়ে বিদ্যালয়ে নিয়ে যায়। পরে গোলাম রহমান বিদ্যালয়ে ঢুকে দু’জনকে লাঠি দিয়ে পিটিয়ে গুরুতর জখম করে চলে যায়। এ ঘটনায় আহত দুই ছাত্রের পিতা ইয়াদুল ইসলাম ও শফিকুল ইসলাম বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক বদরুজ্জামানের কাছে বিচার দাবি করলেও প্রধান শিক্ষক কোন পদক্ষেপ না নেয়ায় এলাকায় উত্তেজনা বাড়তে থাকে।

বুধবার এলাকাবাসী নির্যাতনকারীর বিচার দাবিসহ বিদ্যালয় চলাকালীন ক্যাম্পাসে ঢুকে দুই ছাত্রকে নির্মমভাবে পেটানোয় প্রধান শিক্ষকেরও শাস্তি দাবি করেন। তারা সকাল থেকে সড়ক অবরোধ করার পাশাপাশি বিদ্যালয়ও ঘেরাও করে রাখে। একপর্যায়ে নির্যাতনকারী অবরোধকারী লোকজনের কাছে প্রার্থনা চাইলে ঘেরাও প্রত্যাহার করা হয়। এ বিষয়ে প্রধান শিক্ষক বদরুজ্জামানের সঙ্গে মোবাইল ফোনে যোগাযোগের চেষ্টা করা হলেও তাকে পাওয়া যায়নি।