২২ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

আবার আলোচনায় পিস্টোরিয়াস

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ ইতোমধ্যেই শাস্তি পেয়েছেন। কারাভোগও করছিলেন দক্ষিণ আফ্রিকার বিখ্যাত ব্লেড রানার অস্কার পিস্টোরিয়াস। অবশ্য ৫ বছরের কারাদ- শেষ হওয়ার অনেক আগেই গত ২১ আগস্ট তিনি ছাড়া পেয়েছেন এবং গৃহবন্দী রাখার আদেশ দিয়েছে আদালত। নতুন করে তার পক্ষের আইনজীবীরা মামলা তুলেছেন। ২০১৩ সালের ভ্যালেন্টাইন্স ডে’র রাতে বান্ধবী রিভা স্টিনক্যাম্পকে গুলি করে হত্যায় দায় রয়েছে পিস্টোরিয়াসের ওপরে। দেশেরই একটি আদালত থেকে রুল জারি করা হয়েছে যে পিস্টোরিয়াস খুনের জন্য দোষী নয়। আদালতের এমন রায়ে বিস্ময় প্রকাশ করেছে রিভার মাতাপিতা এবং তারা দাবি করেছেন পিস্টোরিয়াস অবিরাম গুলি বর্ষণ করে হত্যা করেছেন তাদের কন্যাকে। এই প্রথম রিভার বাবা-মা আদালতের রায়ের বিরুদ্ধে কোন মন্তব্য করলেন।

২৮ বছর বয়সী পিস্টোরিয়াসকে হত্যার দায়ে দোষী সাব্যস্ত করে গত বছর সেপ্টেম্বরে কারাদ- দেয় দক্ষিণ আফ্রিকার আদালত। কিন্তু বিচারক থোকোজাইল মাসিপার দাবি সরকারী আইনজীবীরা আসলে প্রমাণ করতে ব্যর্থ হয়েছেন যে পিস্টোরিয়াস খুনের কোন মনোভাব দেখিয়েছিল। ৬ মাসের দীর্ঘ শুনানি চলার সময় সরকারী আইনজীবীরা বিতর্ক করে প্রমাণের চেষ্টা করেছেন যে বাথরুমের ভেতরে থাকা রিভাকে হত্যার উদ্দেশে দরজার অপরপ্রান্ত থেকে চার রাউন্ড গুলি ছুড়েছেন পিস্টোরিয়াস। যদিও সবসময় প্যারাঅলিম্পিক পদকজয়ী পিস্টোরিয়াস দাবি করেছেন অনুপ্রবেশকারী মনে করে তিনি গুলি ছুড়েছিলেন। শেষ পর্যন্ত ৫ বছরের সাজা পান তিনি। গত সপ্তাহে নতুন করে সরকারী আইনজীবীরা আপীল করেছেন এ খুনের রায় পরিবর্তন করার জন্য। তারা এখন বলতে চাইছেন যে, পিস্টোরিয়াস অবশ্যই জানতেন দরজার ওপাশে যে ছিল তিনি মারা যাবেন তা জেনেই গুলি ছুড়েছেন। হয়তো তিনি জানতেন না দরজার ওপাশে রিভা ছিলেন। নবেম্বরে এ আপীলের শুনানি শুরু হবে।

কিন্তু আদালতের নতুন করে এ শুনানি শুরুর প্রক্রিয়াতে অসন্তোষ প্রকাশ করেছেন রিভার বাবা-মা। এ বিষয়ে রিভার বাবা ব্যারি স্টিনক্যাম্প বলেন, ‘আদালতে এখন যে বিষয়টি উঠেছে তা আসলে সত্য নয়। তিনি রাগান্বিত ছিলেন এবং আমার মেয়ে বাথরুমে গিয়েছিল ও দরজা বন্ধ করে দিয়েছিল। এরপর সে (পিস্টোরিয়াস) রিভলবার বের করেছেন এবং অনবরত গুলি ছুড়েছেন।’ রিভার মা জুন স্টিনক্যাম্প বলেন, ‘কেন তিনি তাকে বের হয়ে যেতে দিলেন না?’ গত শুক্রবার পিস্টোরিয়াস মাত্র ১০ মাস কারাভোগের পর ছাড়া পাওয়ার আদেশ পেয়েছেন আদালত থেকে এবং তাকে গৃহবন্দী থাকতে হবে। কিন্তু তার ছাড়া পাওয়া স্থগিত হয়ে গেছে দেশের বিচারমন্ত্রী মাইকেল মাসুথার হস্তক্ষেপে। কারণ তিনি মনে করেন আইনী কোন ভিত্তি ছাড়াই পিস্টোরিয়াসকে ছাড়ার নির্দেশ দেয়া হয়েছে।