২৬ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

অনুশীলনে ফিরলেন মাশরাফি

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ এলিট প্লেয়ারস কন্ডিশনিং ক্যাম্পে শুরুতে যোগ না দিলেও দু’দিন পর জ্বর থেকে মুক্তি মেলা মুশফিকুর রহীম, বিয়ের অনুষ্ঠান শেষে রনি তালুকদার যোগ দিয়েছেন। বুধবার সিঙ্গাপুর থেকে দেশে ফিরে ক্যাম্পে যোগ দিয়েছেন মাশরাফি বিন মর্তুজাও।

সিঙ্গাপুর থেকে দেশে ফিরে কন্ডিশনিং ক্যাম্পে যোগ দিয়েছেন জাতীয় দলের ওয়ানডে অধিনায়ক মাশরাফি বিন মর্তুজা। মঙ্গলবার দেশে ফিরেই বুধবার ক্যাম্পে অনুশীলন করেন মাশরাফি। মিরপুরের জিমনেশিয়ামে বেশ কিছুক্ষণ ঘাম ঝরান মাশরাফি। দেশের বাইরে থাকায় কন্ডিশনিং ক্যাম্পের শুরুর দিনগুলোতে থাকতে পারেননি তিনি। ২২ আগস্ট থেকে শুরু হয় দেশের শীর্ষ ক্রিকেটারদের নিয়ে কন্ডিশনিং ক্যাম্প। ছেলের চিকিৎসা ও পরিবারের সদস্যদের নিয়ে ভ্রমণের উদ্দেশে সপ্তাহখানেকের জন্য সিঙ্গাপুর গিয়েছিলেন তিনি। স্ত্রী সুমনা হক সুমি, মেয়ে হুমায়রা ও ছেলে সাহিলকে নিয়ে ১৮ আগস্ট ঢাকা ছাড়েন মাশরাফি। অনুশীলনে যোগ দিলেও আগামী নবেম্বরের আগে ম্যাচ খেলার সম্ভাবনা নেই মাশরাফি বিন মর্তুজার। কেননা, মাশরাফি লঙ্গারভার্সন ক্রিকেট খেলতে পারছেন না। সেই সুবাদে নবেম্বরে বিপিএল মাঠে গড়ালে সেখানে দেখা যাবে মাশরাফিকে। আর আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে ফিরতে মাশরাফিকে ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত অপেক্ষা করতে হবে। তখন জিম্বাবুইয়ে দলের বিপক্ষে তিন ম্যাচের ওয়ানডে ও তিন ম্যাচের টি২০ সিরিজ খেলবে বাংলাদেশ।

অনুশীলন ক্যাম্পের শুরুতে মাশরাফি, মুশফিক, সাকিব, সাব্বির, রাজু ও রনি যোগ দেননি। ২৭ ক্রিকেটারের মধ্যে ২১ জনই অনুশীলনে ছিলেন। এখন শুধু অনুশীলনে যোগ দেয়া বাকি রইল সাকিব আল হাসান, সাব্বির রহমান রুম্মন ও আবুল হাসান রাজুর।

মাসব্যাপী ‘এলিট প্লেয়ারস কন্ডিশনিং ক্যাম্প’ শুরু হয়ে গেছে ২২ আগস্ট। আমেরিকায় থাকায় সাকিব অনুশীলনে এখনও যোগ দেননি। ছুটি নিয়েই আমেরিকায় গেছেন বিশ্বসেরা অলরাউন্ডার। কন্ডিশনিং ক্যাম্প চলবে ২২ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত। যে ক্রিকেটাররা ক্যাম্পে আছেন, তাদের নিয়ে টানা ২ সপ্তাহ ফিটনেস ঠিক করার কাজ চলবে। এরপর ২৭ ক্রিকেটার দুই ভাগে বিভক্ত হয়ে যাবে। একদল থাকবে জাতীয় দল হয়ে। আরেক দল ‘এ’ দলের হয়ে যাবে। টানা ১ মাস ফিটনেস ধরে রাখার ক্যাম্প হবে। ২২ আগস্ট শুরু হয়ে ২২ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত চলবে ক্যাম্প। যে জাতীয় দলটি থাকবে তারাই অক্টোবরে অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে দুই ম্যাচের টেস্ট সিরিজ খেলবে। তবে অস্ট্রেলিয়া সিরিজের আগে জাতীয় দলের ক্রিকেটারদের খেলতে হবে জাতীয় ক্রিকেট লীগও (এনসিএল)। জাতীয় দলের ক্রিকেটাররা লীগের দুটি পর্ব খেলবেন। লীগে খেলে জাতীয় দলের ক্রিকেটাররা অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে টেস্টে খেলতে নামার আগে নিজেদের দীর্ঘ পরিসরের খেলার সঙ্গে মানিয়ে নেবেন।