১১ ডিসেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

সিরিয়ায় বিষাক্ত গ্যাস ব্যবহার করেছে আইএস

ইসলামিক স্টেট (আইএস) গত সপ্তাহের শেষের দিকে সিরিয়ার উত্তরাঞ্চলে বেসামরিক নাগরিক ও প্রতিদ্বন্দ্বীদের বিরুদ্ধে হয়তো রাসায়নিক গ্যাস ব্যবহার করেছে। স্থানীয় বিদ্রোহীরাও একটি আন্তর্জাতিক ত্রাণ গ্রুপ এ কথা বলেছে। খবর নিউইয়র্ক টাইমস অনলাইনের।

মানবিক ত্রাণ গ্রুপ সিরিয়ান আমেরিকান মেডিক্যাল সোসাইটি বলেছে, মারিয়া শহরে শুক্রবার ঐ হামলায় ৫০টির বেশি কামানের গোলা ছোড়া হয়েছে এবং সেগুলোর লক্ষ্যস্থল ছিল বেসামরিক এলাকা। সোসাইটি এক বিবৃতিতে বলেছে, হামলার পর তাদের হাসপাতালে ৫০ জনের বেশি রোগী আনা হয়েছে। এদের মধ্যে শিশুসহ ২৩ রোগীর মধ্যে রাসায়নিক গ্যাসে আক্রান্ত হওয়ার লক্ষণ দেখা যায়। তাদের মধ্যে কাশি, বমি, শ্বাসকষ্ট ও মারাত্মক চুলকানি দেখা যায়। কারও কারও শরীরে ফোসকা দেখা যায় যা মাস্টার্ড গ্যাসের শিকার হওয়ার লক্ষণ। স্থানীয় বিদ্রোহী সৈন্যরা রিপোর্টটির প্রতি দৃঢ় সমর্থন ব্যক্ত করেছে। তারা বলেছে, মারিয়ার পূর্বে ইসনিবিল গ্রাম থেকে কামানের গোলা ছোড়া হয়েছে। মারিয়ার শহরের নিয়ন্ত্রণে রয়েছে আইএস। সিরীয় বিদ্রোহী গ্রুপ শামি ফ্রন্টের মুখপাত্র হুসেন নাসির বলেছেন, আইএসের ছোড়া মর্টার ও কামানের ৫০টি গোলায় মধ্যে অন্তত অর্ধেক সংখ্যক গোলায় বিষাক্ত মাস্টার্ড গ্যাস ছিল। তিনি বলেন, তার গ্রুপ সিরীয় সেনাবাহিনী থেকে স্বপক্ষ ত্যাগকারী এক জেনারেলের সঙ্গে এ ব্যাপারে কথা বলেছে। হামলার বিবরণ শুনে এবং গোলার ভিডিও আলোকচিত্র দেখে জেনারেল বলেছেন, বেশকিছু গোলার মধ্যে মাস্টার্ড গ্যাস ছিল।

কিশোরের আঘাতে ১৫ লাখ ডলারের শিল্পকর্ম ক্ষতিগ্রস্ত

তাইওয়ানে একটি প্রদর্শনীতে ১২ বছরের এক বালক ভারসাম্য হারিয়ে পড়ে গেলে তার হাতের আঘাতে সপ্তদশ শতাব্দীর ইতালীয় এক শিল্পীর বিখ্যাত একটি চিত্রকর্মের ক্যানভাস ফুটো হয়ে গেছে। দেশটির রাজধানী তাইপের একটি শিল্পকর্ম প্রদর্শনীতে মঙ্গলবার এ ঘটনা ঘটেছে। খবর ওয়েবসাইটের।

ইতালীয় শিল্পী পাওলো পোরপোরার ‘ফ্লাওয়ারস’ নামের ওই চিত্রকর্মটির বাজারমূল্য বর্তমানে ১৫ লাখ ৪০ হাজার ডলার বলে জানিয়েছেন প্রদর্শনীর উদ্যোক্তারা।

প্রদর্শনীর প্রধান উদ্যোক্তা ডেভিড সান জানিয়েছেন, বিখ্যাত চিত্রশিল্পী লিওনার্দো দ্য ভিঞ্চির প্রেরণায় পোরপোরা ‘ফ্লাওয়ারস’ চিত্রকর্মটি এঁকেছিলেন। সচরাচর এ ধরনের দুর্ঘটনা ঘটে না। গাইডের কথা শুনতে শুনতে তন্ময় হয়ে থাকা ছেলেটি কোথায় যাচ্ছে খেয়াল করেনি। একটা কিছুতে পা হড়কে সে চিত্রকর্মটির উপর পড়ে যায়। এতে চিত্রকর্মটি ফুটো হয়ে যায়। এ ঘটনায় বালকটি ও তার পরিবার আন্তরিকভাবে দুঃখপ্রকাশ করেছে এবং তাদের কোন জরিমানার মুখোমুখি হতে হবে না বলে জানিয়েছেন সান।