২১ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

বাংলাদেশে ‘মেরিন এ্যাকুরিয়াম’ স্থাপনে সহায়তা দেবে চীন

স্টাফ রিপোর্টার ॥ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশের আর্থ-সামাজিক ক্ষেত্রে বিশেষ উন্নতি হয়েছে বলে মনে করে চীন। বাংলাদেশে বিনিয়োগ অব্যাহত রাখবে বলে জানিয়েছে দেশটি। এছাড়া বাংলাদেশে প্রথম ‘মেরিন অ্যাকুরিয়াম’ স্থাপনে সহায়তা দেবে চীন। বাংলাদেশ ‘একক চীন নীতি’তে অবিচল থাকবে। বুধবার পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে পররাষ্ট্রমন্ত্রী আবুল হাসান মাহমুদ আলীর সঙ্গে সফররত চীনা বাণিজ্য মন্ত্রী গাও হিউচেঙয়ের বৈঠকে এ সব আলোচনা হয়। পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয় এছাড়া পররাষ্ট্রমন্ত্রী আবুল হাসান মাহমুদ আলীর সঙ্গে সৌজন্য বৈঠক করেছেন ঢাকায় নিযুক্ত সৌদি রাষ্ট্রদূত।

বৈঠকে চীনা বাণিজ্য মন্ত্রী গাও হিউচেঙ বলেন, বাংলাদেশের উন্নয়নে পাশে থাকবে চীন। এছাড়া বাংলাদেশে বিশেষ অর্থনৈতিক জোনে চীনা বিনিয়োগ বাড়বে। বৈঠকে পররাষ্ট্রমন্ত্রী আবুল হাসান মাহমুদ আলী একক চীন নীতিতে বাংলাদেশের দৃঢ় থাকবে বলে জানান।

পররাষ্ট্রমন্ত্রী আবুল হাসান মাহমুদ আলী বলেন, বাংলাদেশের সঙ্গে চীনের সম্পর্ক ঐতিহাসিক। দুই দেশের মধ্যে শত শত বছর ধরে শক্তিশালী বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্ক বিরাজ করছে। বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ১৯৫২ ও ১৯৫৭ সালে চীন সফর করেন। বর্তমান সময়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাও চীনের সঙ্গে বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্ক গড়ে তুলেছেন। সে কারণে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা গতবছর চীন সফর করেন। এই সফরের মাধ্যমে দুই দেশের মধ্যে অংশীদারি সম্পর্ক আরও শক্তিশালী হয়েছে।

বৈঠকে চীনা বাণিজ্য মন্ত্রী জানান, চীন বিভিন্ন ক্ষেত্রে বাংলাদেশের সহযোগিতা ও সমর্থন পেয়ে আসছে। তিনি আশা করেন ভবিষ্যতেও এই সহযোগিতা অব্যাহত থাকবে। চীনা বাণিজ্য মন্ত্রী বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশের আর্থ-সামাজিক ক্ষেত্রে গুরুত্বপূর্ণ অগ্রগতি হয়েছে বলে উল্লেখ করেন তিনি। বিশেষ করে গত ছয় বছর ধরে ৬ শতাংশ প্রবৃদ্ধি খুবই গুরুত্বপূর্ণ বিষয়। শেখ হাসিনার সরকারের বিভিন্ন উন্নয়ন কর্মকা-ে চীনের সহযোগিতা অব্যাহত থাকবে বলে বলে তিনি আশা প্রকাশ করেন।

বঙ্গপোসাগরে সমুদ্র সম্পদ উন্নয়নে চীনের সহযোগিতা প্রত্যাশা করেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী আবুল হাসান মাহমুদ আলী। তিনি জানান, জাতীয় সমুদ্র গবেষণা ইনস্টিটিউট বাংলাদেশের কক্সবাজারে প্রথমবারের মতো মেরিন এ্যাকুরিয়াম স্থাপনে সিদ্ধান্ত নিয়েছে। এ বিষয়ে চীনের সহায়তা প্রত্যাশা করেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী। এ প্রেক্ষিতে চীনা বাণিজ্য মন্ত্রী বলেন, বাংলাদেশের সমুদ্র সম্পদ ও সমুদ্র অর্থনীতির বিকাশে চীন সরকার সহযোগিতা করবে। বাংলাদেশে প্রথমবারের মতো মেরিন এ্যাকুরিয়াম স্থাপনেও সহায়তা দেবে চীন।

বৈঠকে চীনা বাণিজ্য মন্ত্রী বলেন, প্রেসিডেন্ট শি জিনপিং-এর ‘এক বেল্ট-এক রোড’ নীতি অনুযায়ী বিভিন্ন দেশের সঙ্গে যোগাযোগ, সহযোগিতা সর্বপরি মানুষে মানুষে যোগাযোগ বাড়াতে চীন বিশেষ আগ্রহী। সকল দেশের সঙ্গেই চীন সমানভাবে উন্নয়নে বিশ্বাসী বলেও তিনি জানান।

উল্লেখ্য, চীনের বাণিজ্য মন্ত্রী গাও হিউচেঙ তিনদিনের সফরে মঙ্গলবার ঢাকায় এসেছেন। তিনি ঢাকায় এসে বাংলাদেশের পোশাক খাতে তিনশ’ মিলিয়ন ডলার বিনিয়োগের ঘোষণা দিয়েছেন।

সৌদি রাষ্ট্রদূতের সঙ্গে বৈঠক ॥ চলতি হজ মৌসুমে এ পর্যন্ত ৮০ হাজার বাংলাদেশীকে ভিসা দেয়া হয়েছে। এখনও ভিসা দেয়া অব্যাহত রয়েছে বলে অবহিত করেছেন সৌদি আরবের নবনিযুক্ত রাষ্ট্রদূত আবদুল্লাহ এই এম আলমুতাইরি। বুধবার পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে পররাষ্ট্রমন্ত্রী আবুল হাসান মাহমুদ আলী সঙ্গে এক সৌজন্য বৈঠকে তিনি এ সব কথা বলেন। পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়।

বৈঠকে দু’দেশের মধ্যে উচ্চপর্যায়ের সফর বিনিময়ের ব্যাপারে আলোচনা হয়। সৌদি রাষ্ট্রদূত মন্ত্রীকে হজ ভিসার অগ্রগতি সম্পর্কে অবহিত করেন। তিনি জানান, এ পর্যন্ত ৮০ হাজার ভিসা দেয়া হয়েছে। রাষ্ট্রদূত বলেন, তিনি বাংলাদেশ ও সৌদি আরবের মধ্যকার বিদ্যমান সম্পর্ক আরও জোরদার এবং দু’দেশের মধ্যে অন্যান্য সহযোগিতা সম্প্রসারণে কাজ করে যাবেন। পররাষ্ট্রমন্ত্রী সৌদি রাষ্ট্রদূতকে বাংলাদেশে স্বাগত জানিয়ে দায়িত্ব পালনকালে তাকে সার্বিক সহযোগিতার আশ্বাস দেন।

উল্লেখ্য, আল মুতাইরি চলতি বছরের ২৬ জুলাই দায়িত্ব নিয়ে বাংলাদেশে আসেন। তিনি ১৯ আগস্ট তার পরিচয়পত্র পেশ করেন। এর আগে তিনি সৌদি আরবের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের ফলো-আপ সেকশনে পরিচালকের দায়িত্ব পালন করেন।