২৩ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

মাগুরায় যৌতুকের কারনে গৃহবধু নির্যাতন ॥ সংবাদ সন্মেলন

মাগুরায় যৌতুকের কারনে গৃহবধু  নির্যাতন ॥  সংবাদ সন্মেলন

নিজস্ব সংবাদদাতা, মাগুরা॥ মাগুরায় যৌতুকের কারনে মামলা করার অভিযোগে শশুর ও তার লোকজন গহবধু সাবিনা ইয়াসমিনকে খুন করার হুমকি দিয়েছেন বলে তিনি অভিযোগ করেছেন । আজ বৃহস্পতিবার দুপুরে মাগুরা প্রেসক্লাব মিলনায়তনে সংবাদ সন্মেলনে তিনি নিরাপত্তা দেয়ার দাবি জানিয়েছেন ।

সংবাদ সন্মেলনে নির্যাতিতা গহবধু সাবিনা ইয়াসমিনের শিশু সন্তান রুহানা সাবিত (৬) উপস্থিত ছিলো ।

মাগুরা জেলার মহম্মদপুর উপজেলার খালিয়া গ্রামের আ: সালামের মেয়ে গৃহবধু সাবিনা ইয়াসমিনের সাথে , ২০০৭ সালের জুন মাসে গোপালগঞ্জ জেলার তেবাড়িয়া গ্রামের হেকমত আলীর ছেলে সুলতান আহম্মদের বিয়ে হয় । গহবধু সাবিনা ইয়াসমিন সাংবাদ সন্মেলনে জানান, বিয়ের সময় ২ লক্ষ টাকা যৌতুক দাবী করা হলে একলক্ষ টাকা প্রদান করা হয় । তাদের রুহানা সাবিত একটি পুত্র সন্তান হয় । স্বামী ও শ্বশুড় ম্বাশুড়ি তাকে যৌতুকের জন্য নির্যাতন করতো এবং যৌতুকের দাবীতে তাড়িয়ে দিলে তিনি মাগুরায় আদালতে মামলা করেন । তারপর তারা মীমাংসা করে বাড়িতে ফিরিয়ে নেন । তারা আবার ৩লক্ষ টাকা যৌতুক দাবী করে এবং নির্যাতন করে বাবার বাড়িতে রেখে যায় । স্বামী সুলতান আহম্মদ আবার বিয়ে করেছে । গৃহবধূ সাবিনা আবার মাগুরার সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিষ্টেট আদালতে যৌতক আইনের ৪ ধারায় মামলা করলে ২৫ আগষ্ট মামলার দিন ছিলো । এই দিন আদালতে হাজির হয়ে স্বামী সুলতান আহম্মদ জামিনের আবেদন করলে আদালত শুনানীশেষে জামিন না মঞ্জুর করে কারাগারে প্রেরনের আদেশ দেন । ফলে শশুর ও তার লোকজন সাবিনাকে খুন করার হুমকি দিয়েছেন বলে অভিযোগ করেছেন । ফলে তিনি চরম নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছেন । সাবিনা ইয়াসমিন আরও জানান, তার স্বামী ১২৩০৭১১ নং সেনা সদস্য সুলতান আহম্মদ-এর বর্তমান কর্মস্থল খাগড়াছড়ির সিন্দুকছড়িতে।

নিরাপত্তা ও নার্য্য অধিকার ফিরিয়ে দবার জন্য সাবিনা ইয়াসমিন সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের কাছে দাবি জানিয়েছেন ।