২৫ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

বিপিএলে নতুন দল ‘কুমিল্লা’

  • ঈদের আগেই ক্রিকেটারদের আংশিক পাওনা পরিশোধ

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লীগের (বিপিএল-টি২০) তৃতীয় আসর শুরু হবে ২৫ নবেম্বর। শেষ হবে ২৫ ডিসেম্বর। এবার এ আসরে পুরনো সব দলের নাম বাদ দিয়ে নতুন করে সব দলের নাম হবে। ফ্র্যাঞ্জাইজিও যে বেশিরভাগ দলের নতুন হবে। দল ৫টি, ৭টি, ৮টি না ১২টি হবে; তা সময়ই বলবে। তবে এবার বিপিএলে কুমিল্লা নামে একটি দল থাকার সম্ভাবনা আছে বলে একটি সূত্রে জানা গেছে।

সূত্র মতে, কুমিল্লা নামে একটি দল থাকার সম্ভাবনা অনেক। এ নামেই এক ফ্র্যাঞ্জাইজি দল নিতে নাকি আগ্রহী। যেহেতু বিপিএলে ৭ বিভাগই রাখতে হবে, এমন কোন গঠনতন্ত্র নেই। ৭ বিভাগের নাম রেখেই নামগুলো চূড়ান্ত করতে হবে, এমন কোন নিয়মও নেই। তাই যে প্রতিষ্ঠান দল কিনবে, তারাই নিজেদের মতো করে নাম দিতে পারে। সেক্ষেত্রে একটি ফ্র্যাঞ্জাইজি কুমিল্লা নামটিও দিতে পারে। যদি বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি) ও বিপিএল গবর্নিং কাউন্সিল কুমিল্লা নামটি আগ্রহী ফ্র্যাঞ্চাইজিকে দিতে রাজি হয়, তাহলে এ নামে একটি দল হওয়ার সম্ভাবনা অনেক জোরালো।

এর আগে বিপিএলে ৭ বিভাগ ঢাকা, চট্টগ্রাম, সিলেট, রংপুর, রাজশাহী, খুলনা, বরিশাল ছিল।

প্রতি নামের সঙ্গে ফ্র্যাঞ্জাইজিরা নিজেদের পছন্দের নাম যুক্ত করেছেন। ঢাকা যেমন ঢাকা গ্ল্যাডিয়েটর্স, চট্টগ্রাম যেমন চিটাগাং কিংস, সিলেট যেমন সিলেট রয়্যালস, রংপুর যেমন রংপুর রাইডার্স, রাজশাহী যেমন দুরন্ত রাজশাহী, খুলনা যেমন খুলনা রয়েল বেঙ্গলস ও বরিশাল যেমন বরিশাল বার্নার্স ছিল।

এবার নতুন করে দল নিতে আগ্রহী প্রতিষ্ঠানের চাহিদা অনেক। সেই প্রতিষ্ঠানগুলো হচ্ছে বেক্সিমকো, মিডিয়াকম (স্কয়ার), সোহানা গ্রুপ অব কোম্পানি, ইনডেক্স গ্রুপ, এক্সিওম টেকনোলজি লিমিটেড, ডিবিএল গ্রুপ, বিবিএস কেবলস, বেঙ্গল কমিউনিকেশন, ব্লুজ কমিউনিকেশন, নেট ওয়ার্ল্ড বিডি লিমিটেড ও ফাইবার এড হোম লিমিটেড। এর সঙ্গে পুরনো ফ্র্যাঞ্জাইজিদের মধ্যে রংপুর রাইডার্স ও সিলেট রয়্যালস পাওনা পরিশোধ করে দিয়ে এবারও বিপিএলে দল চালানোর সঙ্গে থাকার আগ্রহও প্রকাশ করেছে। তাই দল সংখ্যাও এবার বাড়ানো হতে পারে। সেই দল হবে কোনটা? এ প্রশ্ন ঘুরপাক খাচ্ছে। প্রশ্নও উঠেছে, তাহলে কী ৭ বিভাগের সঙ্গে ঢাকা মেট্রো অষ্টম দল থাকবে?

বৃহস্পতিবার বিসিবির পরিচালক ও বিপিএল গবর্নিং কাউন্সিলের চেয়ারম্যান আফজালুর রহমান সিনহা জানিয়ে দিয়েছেন ঢাকা মেট্রো থাকছে না। বলেছেন, ‘ঢাকা মেট্রো বোধ হয় হবে না। এটা যে কোন একটা বাইরের দল হতে পারে।’ এরপরই খোঁজ নিয়ে জানা গেল, দলটি কুমিল্লা হতে পারে। খুব দ্রুত কুমিল্লা বিভাগ ঘোষণা করে দিলে তো কথাই নেই। যদি বিভাগ নিয়ে খেলা হয়, আর কুমিল্লা বিপিএলের দলগুলো চূড়ান্ত করার আগে এ মাসেই বিভাগ ঘোষণা হয়ে যায়, তাহলে কুমিল্লা দলটি এক ফ্র্যাঞ্জাইজি পাবেই।

সিনহা অবশ্য তা নিয়ে বেশি কথা বলতে রাজি হলেন না। তবে জানালেন, ‘পুরনো যারা তাদের একটা সময়সীমা ছিল। সিলেট রয়্যালস ১ কোটি পে অর্ডার, ১ কোটি ব্যাংক গ্যারান্টি দিছে। ওনার পুরনো দেনা পরিশোধ হয়েছে। বাকি যা আছে ব্যাংক গ্যারান্টি তাদের, তা ৩০ আগস্টের মধ্যে দেবে। শুধু সিলেট, রংপুর এসেছে।’ বরিশাল বার্নার্সের মালিক এর মধ্যে কিস্তিতে টাকা পরিশোধ করার কথা বলেছেন। সিনহা এ নিয়ে জানান, ‘কিস্তির কথা অনেকেই বলে। কিন্তু আপনি দুই বছর ধরে টাকা দেন না। এখন যখন পরবর্তী আসর শুরু হবে তখন আপনি এসে বললেন, কিস্তিতে দেবেন। আমরা আপনাকে কিভাবে বিশ্বাস করব।’ এরপর জানালেন, ‘কাকে কোন টিম দেয়া হবে, এখন বলা যাবে না। বোর্ড সিদ্ধান্ত নেবে।’

সিনহা এও ইঙ্গিত দিলেন এবারও বিপিএলে আকসু (এন্টি করাপশন এ্যান্ড সিকিউরিটি ইউনিট) থাকছে, ‘এটা মিটিংয়ে আলাপ করা হবে। এটা আমরা নিজেরাও করতে পারি। যেমন আইপিএল করে।’ আবার বললেন, ঈদের আগে বিপিএলের গত আসর থেকে ক্রিকেটারদের যে পাওনা বাকি আছে, তার আংশিক পরিশোধ করা হবে। বললেন, ‘দুর্জয়কে (ক্রিকেট অপারেশন্স কমিটির চেয়ারম্যান নাঈমুর রহমান) দায়িত্ব দেয়া হয়েছে। ঈদের আগেই স্থানীয় প্লেয়াররা একটা পেমেন্ট পাবে। দুর্জয় তালিকা দিলে আমরা এটা বোর্ডকে দেব।’