২৫ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

মৎস সম্পদ রক্ষায় সরকার কঠোর হবে : আমু

অনলাইন ডেস্ক ॥ শিল্পমন্ত্রী আমির হোসেন আমু বলেছেন, জাতীয় মৎস সম্পদ রক্ষায় আইন মেনে চলতে সরকার কঠোর হবে। তিনি বলেন, `মাছ জাতীয় সম্পদ, এই সম্পদ রক্ষা করার জন্য যে আইন রয়েছে, তা মানতে হবে। এর ব্যতয় ঘটলে প্রয়োজনে সরকার কঠোর হতে বাধ্য হবে।’

মন্ত্রী আজ সকালে ঝালকাঠির নলছিটি উপজেলা পরিষদ মিলনায়তনে নিবন্ধনকৃত মৎস্যজীবীদের আইডিকার্ড বিতরণ ও উন্মুক্ত জলাশয়ে মাছের পোনা অবমুক্তকরণ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় এ কথা বলেন।

শিল্পমন্ত্রী এবং আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা পরিষদের সদস্য আমু বলেন, আগে মায়ানমার থেকে ফরমালিন দেয়া মাছ আমদানি করা হতো। এখন আর সেই মাছ আমদানি করা হয় না। বরং দেশে উৎপাদিত মাছ দেশের আমিষের চাহিদা মেটানোর পর বিদেশেও রপ্তানি করার উদ্যোগ নেয়া হচ্ছে।

মাছে বেশি লাভ করতে হলে এটাকে সংরক্ষণ করা প্রয়োজন উল্লেখ করে তিনি বলেন, সরকার ইলিশ মাছ রক্ষায় জাটকা সংরক্ষণ আইন করেছে। এই আইন মানলে সুফল জেলেরাই ভোগ করবেন।

মাছ ধরা বন্ধ রাখার সময়ে সরকার জেলেদের জন্য ৪০ কেজি করে চাল দিচ্ছে উল্লেখ করে শিল্পমন্ত্রী বলেন, চাল নিয়েও জাটকা ধরা বন্ধ না করলে তাদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হবে।

উপজেলা মৎস্য বিভাগ আয়োজিত এ অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা নমিতা দে।

অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে বক্তৃতা করেন- জেলা মৎস্য কর্তকর্তা রেজাউল করিম, জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক খান সাইফুল্লাহ পনির, নলছিটি উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান ইউনুস লস্কর, নলছিটি উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি তছলিম উদ্দিন চৌধুরী প্রমুখ।

অনুষ্ঠানে শিল্পমন্ত্রী আমির হোসেন আমু উপজেলার নিবন্ধনকৃত জেলেদের হাতে আইডিকার্ড তুলে দেন।

শিল্পমন্ত্রী পরে উপজেলা পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় অধিদপ্তরের উদ্যোগে একটি বাড়ি একটি খামার প্রকল্পের সুবিধাভোগীদের মাঝে ক্রেস্ট বিতরণ করেন।

এছাড়া, তিনি নলছিটি উপজেলা পরিষদ চত্বরে তিন দিনব্যাপী ফলদ বৃক্ষ মেলারও উদ্বোধন করেন। এসময় তিনি মেলার ১৫টি স্টল ঘুরে দেখেন এবং এ উপলক্ষে আয়োজিত অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় প্রত্যেককে ঘরের আঙিনায় ফলদবৃক্ষ রোপণের পরামর্শ দেন। সূত্র: বাসস