২১ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

‘জনপ্রিয় খেলা ক্রিকেটের আমিও ভক্ত’

  • ঢাকায় মার্কিন রাষ্ট্রদূত মার্শা স্টিফেন্স ব্লুম বার্নিকাট ্র বাংলাদেশের খেলাধুলার উন্নয়নে পাশে থাকবে যুক্তরাষ্ট্র

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ রীতিমতো অলরাউন্ডার, পেশাদার ব্যাটসম্যানের মতোই ব্যাটিং করলেন। দুর্দান্ত টাইমিংয়ে ব্যাটের আঘাতে বল উড়িয়ে মারলেন আকাশে। বল হাতেও কম যাননি। হাত ঘুড়িয়ে বল ছুড়লেন ঠিক উইকেট বরাবর। তার এই খেলার সঙ্গী অতি পরিচিত মুখ। বাংলাদেশ জাতীয় দলের অপরিহার্য এক অলরাউন্ডার। যেন পুরুষ-মহিলা ক্রিকেট লড়াই। প্রথমজন হচ্ছেন বাংলাদেশে নিয়োজিত আমেরিকান এ্যাম্বাসেডর মার্শা স্টিফেন্স ব্লুম বার্নিকাট। ব্যাটে-বলের রসিকতার লড়াইয়ে তার প্রতিদ্বন্দ্বী ছিলেন মাহমুল্লাহ রিয়াদ। যাকে নতুন করে পরিচয় করিয়ে দেয়ার প্রয়োজন পড়ে না। মিরপুর ক্রিকেট একাডেমি মাঠে শুক্রবার আয়োজিত বর্ণাঢ্য এ অনুষ্ঠান, তথা খেলায় প্রথমে ব্যাট করেন মার্কিন রাষ্ট্রদূত। অপরপ্রান্ত থেকে মাহমুদুল্লাহ রিয়াদের ঘূর্নি বল। পরবর্তীতে ব্যাট হাতে মাহদুল্লাহ। আর বোলিংয়ে মার্শা স্টিফেন্স। উপস্থিত সবাই বেশ প্রাণভরে উপভোগ করেন তাদের খেলা, কড়তালি দিয়ে অভিনন্দনও জানান দু’জনকে।

অনুষ্ঠানের মূল উপলক্ষ ছিল প্রতিবন্ধী ক্রিকেটারদের পাশে থেকে খেলাধুলায় তাদের উৎসাহিত করা। এতে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন মার্শা স্টিফেন্স ব্লুম বার্নিকাট। তারকা ক্রিকেটার মাহদুল্লাহ রিয়াদ উপস্থিত ছিলেন ‘গুডউইল এ্যাম্বাসেডর’ হিসেবে। আমেরিকান শারীরিক প্রাতিবন্ধী এ্যাক্ট-এর ২৫ বছর পূর্তি উপলক্ষে আয়োজিত অনুষ্ঠানে ৬ ওভারের এক প্রীতি ম্যাচের আয়োজন করা হয়। এতে অংশ নেন শারীরিক প্রতিবন্ধী ক্রিকেটাররা।

অনুষ্ঠানে আরও উপস্থিত ছিলেন, বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিবি) পরিচালক, মিডিয়া কমিটির চেয়ারম্যান জালাল ইউনুস, পরিচালক আহমেদ সাজ্জাদুল আলম ববি, বিসিবির সিইও নিজাম উদ্দিন আহমেদ চৌধুরী সুজন। ঢাকার আমেরিকান দূতাবাস, ফিজিক্যাল চ্যালেঞ্জ ডেভেলপমেন্ট ফাউন্ডেশন (পিডিএফ) ও ইমাগো স্পোর্টস ম্যানেজমেন্ট এ্যাজেন্সি এর যোৗথ আয়োজক। প্রীতি ম্যাচ পরবর্তী ব্যাট-বল হাতে গোটা আয়োজন আরও মাতিয়ে তুলেন মার্কিন রাষ্ট্রদূত মার্শা স্টিফেন্স ব্লুুম বার্নিকাট ও মাহদুল্লাহ রিয়াদ।

মার্শা স্টিফেন্স বাংলাদেশের ক্রিকেটের ভূয়সী প্রশংসা করে বলেন আগামীতে এ দেশের ছেলেরা আরও চমক দেখাবে বলে আশা করি। ক্রিকেট বাংলাদেশের সবচেয়ে জনপ্রিয় খেলা। আমি নিজেও একজন ক্রিকেট অনুরাগী। একটু রসিকতার ছলে হাসতে হাসতে ভদ্র মহিলা বললেন, সবাই দেখেছেন তো আমি কিভাবে ব্যাটিং ও বোলিং করেছি? এ খেলা আমার খুব ভাল লাগে। একাডেমি থেকে পরে মিরপুর শেরেবাংলা স্টেডিয়ামের মাঠে প্রবেশ করেন তিনি।

মাঠে দাঁড়িয়ে গ্যালারিসহ গোটা স্থাপনায় চোখ রাখেন। মার্শা আরও বলেন, বাংলাদেশের ক্রিকেট তথা খেলাধুলার উন্নয়নে যুক্তরাষ্ট্র সব সময় পাশে থাকবে। প্রয়োজনে যে কোন সহযোগিতার আশ্বাস দেন তিনি।

আমেরিকার লস এ্যাঞ্জেলেস অনুষ্ঠিত প্রতিবন্ধী অলিম্পিকে বাংলাদেশ ক্রিকেট ও অন্য ইভেন্টগুলোতে প্রত্যাশিত পদক লাভ করায় মার্কিন রাষ্ট্রদূত মার্শা প্রশংসা করেন। বক্তব্য পরবর্তী আয়োজকদের পক্ষ থেকে মার্শা স্টিফেন্স ও মাহদুল্লাহকে ক্রেস্ট প্রদান করা হয়। এ ছাড়া মার্শা ও মাহদুল্লাহ নিজেদের অটোগ্রাফ সংবলিত ব্যাট পরস্পরকে উপহার দেন। অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন আমেরিকান দূতাবাসের সংস্কৃতিক কর্মকর্তা ক্যালভিন হেইস।