২৩ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

প্রেমই ঠেকাতে পারে তৃতীয় বিশ্বযুদ্ধ

প্রেম শাশ্বত সততার প্রতীক। প্রেম শব্দতে কলম চলে বহুকাল, শিল্পের নিপুণ ছোঁয়ায়। প্রেম শব্দটি আমাদের মনে ভাবের উদয় করে। প্রেম নিয়ে কবি, সাহিত্যিক, শিল্পীরা কতভাবেই না গবেষণা করেছেন। সংজ্ঞাও দিয়েছেন বহু ভাবে। প্রেম পবিত্র। অনেক সময় প্রেমকে গলা টিপে ধরতে ভিলেন চরিত্রের জন্ম হয়। সাহিত্য ও কাব্যের অবিছিন্ন অংশ প্রেম। মানুষের জীবনে প্রেম ভিন্ন ভিন্নভাবে। একজন প্রেমিক বা প্রেমিকাকে তার কর্ম উদ্দীপনার লাখো শক্তিতে রূপান্তরিত করে তোলে প্রেম। আসলে প্রেমের সম্পর্ক হলো মানসিক প্রবণতা চিন্তার সঙ্গে। মানব-মানবীর প্রকৃত প্রেম-সৃষ্টিকর্তার ভাবে আসে।

নার্গিসকে লেখা চিঠির ওপর একটি অংশে নজরুল লিখেছেন- আত্মা অবিনশ্বর, আত্মাকে কেউ হত্যা করতে পারে না। আমি সংসার করছি, তবুও চলে গেছি এ সংসারের বাধাকে অতিক্রম করে উর্ধলোকে- সেখানে গেলে পৃথিবীর সকল অপূর্ণতা, সকল অপরাধ ক্ষমাসুন্দর চোখে পরম মনোহর মূর্তিতে দেখা যায়। মহাকাল সে স্মৃতি মুছে ফেলতে পারে না। কী উদগ্র অতৃপ্তি, কী দুর্দমনীয় প্রেমের জোয়ার সেদিন এসেছিল। সারাদিন রাত আমার ঘুম ছিল না। যাক আজ চলেছি জীবনের অস্তমান দিনের শেষের রশ্মি ধরে ভাটার স্রোতে, তোমার ক্ষমতা নেই সে পথ থেকে ফেরানোর। আর তার চেষ্টা কর না। তোমাকে লেখা এই আমার প্রথম ও শেষ চিঠি হোক। যেখানেই থাকি বিশ্বাস কর আমার অক্ষয় আশীর্বাদ কবচ তোমায় ঘিরে থাকবে।

প্রেম আছে। আধুনিকতায় যারা চির সুন্দর প্রেমকে কলুষিত নিন্দায় নিয়ে গেছেন, তারা অন্ধ হবেন একদিন আর প্রেম তার নিজের আলো ছড়িয়ে প্রেমিক-প্রেমিকাদের সুন্দর পথ দেখাবে। প্রেম আছে বলেই পৃথিবী এত সুন্দর কেবল, প্রেমই পারে তৃতীয় বিশ্বযুদ্ধ ঠেকাতে।

Ñশেখ আবদুল আওয়াল

গফরগাঁও থেকে