২৩ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

পদ্মা সেতু কনস্ট্রাকশন ইয়ার্ডের নদী ভাঙ্গন বন্ধ

স্টাফ রিপোর্টার, মুন্সীগঞ্জ ॥ পদ্মা সেতুর কনস্ট্রাকশন ইয়ার্ডের নদী ভাঙ্গন বন্ধ হয়েছে। সংশ্লিষ্ট এক প্রকৌশলী শুক্রবার রাতে এই তথ্য দিয়ে বলেন, গত দু’দিনে আর ভাঙ্গন দেখা দেয়নি এবং নতুন করে ভাঙ্গনের আশঙ্কা নেই। শুক্রবার পদ্মার পানি ছিল একরকম স্থিতিশীল, মাত্র এক সেন্টিমিটার পানি বেড়েছে। পানি বিশেষজ্ঞরা জানিয়েছেন, পানি আর বৃদ্ধিরও আশঙ্কা নেই। কারণ বর্ষার এখন বিদায়বেলা। ভাঙ্গনরোধে সর্বাত্মক ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে। শুক্রবারও বালির বস্তা ফেলা হয়েছে। রাতে এখানে সতর্কতামূলক ব্যবস্থা রয়েছে। পদ্মা সেতুর মূল প্রকল্পও পুরোপুরি নিরাপদ।

একদিন থেমে থাকার পর এই ইয়ার্ডের বুধবার প্রায় ২০ মিটার দীর্ঘ এবং ৪ মিটার প্রস্থ এলাকা নদীগর্ভে বিলীন হয়ে গেছে। এর আগে রবিবার রাতে বিলীন হয় প্রায় ২শ’ মিটার দীর্ঘ এবং প্রায় ৫০ মিটার প্রস্থ এলাকা। মূল সেতু এলাকা থেকে প্রায় ১ কিলোমিটার ভাটিতে লৌহজংয়ের কুমারভোগে পদ্মা সেতুর কনস্ট্রাকশন ইয়ার্ডের এই ভাঙ্গন প্রথম দেখা দেয় গত ২৭ জুন। সে সময় ১শ’ মিটার দীর্ঘ ও ৫০ মিটার প্রস্থ এলাকায় বিলীন হয়। এবার সেই একই স্থানে ভাঙ্গন দেখা দেয় প্রায় দু’মাস পর। তবে এবারের ভাঙ্গন আগের চেয়ে বেশি ভয়াবহ।

তবে কনস্ট্রাকশন এলাকার বাইরেও কুমারভোগ ৩ নম্বর ওয়ার্ডের খড়িয়া এবং মাওয়ার পুরনো ফেরিঘাটে পদ্মার ভাঙ্গন রয়েছে। পদ্মার প্রচণ্ড ঘূর্ণি স্রোতই ভাঙ্গনের মূল কারণ।

মুন্সীগঞ্জের জেলা প্রশাসক মোঃ সাইফুল হাসান বাদল জানান, নদী ভাঙ্গন একটি প্রাকৃতিক বিষয়। তবে পদ্মা সেতুর নদী শাসন কাজ সম্পন্ন হলে এই এলাকায় আর কোন নদী ভাঙ্গন হবে না। আর বিচ্ছিন্ন এই ভাঙ্গনে মূল সেতুর কাজে কোন সমস্যা হবে না।