২০ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

রাজধানীতে মাদ্রাসা ছাত্রের রহস্যজনক মৃত্যু

  • সড়ক দুর্ঘটনায় ঝুট ব্যবসায়ী নিহত

স্টাফ রিপোর্টার ॥ রাজধানীর মতিঝিলে এক মাদ্রাসা ছাত্রের রহস্যজনক মৃত্যু হয়েছে। মিরপুরে সড়ক দুর্ঘটনায় এক ঝুট ব্যবসায়ী নিহত হয়েছেন। বনানীতে এক যুবকের ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার হয়েছে। এদিকে পুরান ঢাকার ওয়ারীর এক শিশুকে ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে। অন্যদিকে যাত্রাবাড়ীতে চাঁদা না পেয়ে সন্ত্রাসীরা এ্যাসিড ছুঁড়ে এক লন্ডন প্রবাসীর স্ত্রীর মুখম-লে ঝলসে দিয়েছে। পুরান ঢাকার গে-ারিয়ার দয়াগঞ্জে ছিনতাইকারীরা মামা-ভাগ্নেকে এলোপাতাড়ি ছুরিকাঘাত করে সর্বস্ব ছিনিয়ে নিয়েছে। শনিবার পুলিশ ও মেডিক্যাল সূত্রে এসব তথ্য জানা গেছে।

স্থানীয় সূত্র জানায়, মতিঝিল জামিলা দারুল উলুম মাদ্রাসার ছাত্র আব্দুর রহমানের (১৮) মৃত্যু নিয়ে রহস্যের সৃষ্টি হয়েছে। শনিবার ভোরের দিকে মাদ্রাসার মসজিদ থেকে ওই ছাত্রকে অচেতন অবস্থায় উদ্ধার করে ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের জরুরী বিভাগে আনেন মাদ্রাসার শিক্ষকরা। এ সময় কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। নিহতের বাবার নাম নূরুল হক। গ্রামের বাড়ি টাঙ্গাইল সদর উপজেলার তালগাছী গ্রামে। সে মতিঝিল জামিলা দারুল উলুম মাদ্রাসার অষ্টম শ্রেণীর ছাত্র ছিল। মাদ্রাসার শিক্ষক হাফিজুর রহমান জানান, শুক্রবার রাতে কয়েক ছাত্র মাদ্রাসার মসজিদের তৃতীয় তলায় পড়ালেখা করছিল। রাত ১২টার পরে ছাত্ররা যে যার রুমে চলে যায়। তিনি জানান, ভোরে ফজরের নামাজ পড়তে গিয়ে আব্দুর রহমানকে সেখানে ঘুমিয়ে থাকতে দেখা যায়। অনেক ডাকাডাকি করে তার কোন সাড়া শব্দ পাওয়া যায়নি। পরে ঘুম না ভাঙ্গায় তাকে দ্রুত উদ্ধার করে ঢামেক হাসপাতালে আনলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। এ ব্যাপারে ঢামেকের জরুরী বিভাগের মেডিক্যাল অফিসার ডাঃ সৈয়দ আমজাদ আলী জানান, ওই মাদ্রাসা ছাত্রের মৃত্যু নিশ্চিত জেনেই শিক্ষকরা হাসপাতালে নিয়ে আসেন। কিন্তু এখানে আসার পর তারা জানান, আব্দুর রহমান শ্বাসকষ্টে অসুস্থ হয়ে পড়েছেন। শিক্ষকদের মিথ্যা তথ্যের কারণে ওই মাদ্রাসা ছাত্রের লাশের ময়নাতদন্তের জন্য মর্গে পাঠানো হয়েছে বলে ডাঃ আমজাদ আলী জানান।

সড়ক দুঘর্টনায় ব্যবসায়ীর মৃত্যু ॥ শনিবার দুপুরে মিরপুর-১০ নম্বরে বাসের ধাক্কায় সুমন হাওলাদার (৩৩) নামে এক ঝুট ব্যবসায়ীর মৃত্যু হয়েছে। নিহত শাশুড়ি সুফিয়া বেগম জানান, শনিবার দুপুরে জামাতা সুমন ১০ নম্বর সেকশনের কবরস্থান রোডের সামনের রাস্তা পার হচ্ছিল। এ সময় বেপোরোয়া গতির বাস তাকে ধাক্কা দেয়। পরে সুমনকে উদ্ধার করে দুপুর পৌনে ২টার দিকে ঢামেক হাসপাতালে আনলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। তিনি জানান, সুমনের বাসা ১০ নম্বর সেকশনে। সেখানে তিনি ঝুট ব্যবসা করেন।

বনানীতে এক কিশোরের আত্মহত্যা ॥ বনানীতে সজীব আহমেদ (১৯) নামে এক যুবক আত্মহত্যা করেছে। শুক্রবার রাত সাড়ে ১২টার দিকে সংবাদ পেয়ে বনানীর ২ নম্বর রোডের ৩৪ নম্বর ভবনের ছয় তলার ছাদ থেকে তার ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার করে। পরে তার লাশের সুরতহাল প্রতিবেদন তৈরি করে ময়নাতদন্তের জন্য ঢামেক মর্গে পাঠায়। নিহতের বাবার নাম মৃত আনোয়ার হোসেন। গ্রামের বাড়ি কিশোরগঞ্জ জেলার কটিয়াদি থানার নিমুকপোড়া গ্রামে। তিনি ওই ভবনের তৃতীয় তলায় একটি মেসে থাকতেন। বনানী থানার উপ-পরিদর্শক আবু মুসান্না জানান, এসএস ট্রেডার্স নামে একটি নেট কোম্পানিতে কাজ করতেন সজীব। শুক্রবার রাত সাড়ে ১০টার দিকে তিনি রুম থেকে বের হন। রুমে ফিরে না আসায় রুমমেটরা তাকে খোঁজাখুঁজি করে। পরে ছাদে রডের সঙ্গে গলায় দড়ি পেঁচানো অবস্থায় তার লাশ দেখতে পেয়ে পুলিশকে খবর দেয়।

ওয়ারীতে শিশু ধর্ষণ ॥ পুরান ঢাকার ওয়ারীর কেএম দাস লেনে চার বছরের এক শিশুকে যৌন নির্যাতনের অভিযোগ পাওয়া গেছে। শনিবার সন্ধ্যা ৬টার দিকে ধর্ষিতা ওই শিশুকে ঢামেক হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। শিশুটির মা অভিযোগ করে জানান, ওয়ারীর ৬তলা একটি ভবনে মেয়েকে নিয়ে তিনি থাকেন। বিভিন্ন বাসায় কাজ করেন। তিনি জানান, বুধবার বেলা ৩টার দিকে নিচে নামলে পাশের বাসার দারোয়ান বাবুল হোসেন তার রুমে নিয়ে চার বছরের মেয়েকে যৌন নির্যাতন করে। বিষয়টি ওই বাড়ির মালিক গাজী সুলতান হোসেনকে জানালে তিনি বিচারের আশ্বাস দেন। কিন্তু তিনদিন অপেক্ষা করে কোন বিচার তিনি পাননি। পরে শনিবার সন্ধ্যায় তাকে ঢামেক হাসপাতালের ২১২ নম্বর ওয়ার্ডে ভর্তি করেন। ঢামেক হাসপাতালে পুলিশ ফাঁড়ির এএসআই সেন্টুচন্দ্র দাস জানান, ধর্ষিতা ওই শিশুকে ২১২ নম্বর ওয়ার্ডে চিকিৎসার জন্য পাঠিয়েছি। পরীক্ষা-নিরীক্ষার পর বিষয়টি জানা যাবে।

এ্যাসিড দগ্ধ প্রবাসীর স্ত্রী ॥ যাত্রাবাড়ীর মাতুয়াইল এলাকায় পাঁচ লাখ টাকা চাঁদা না পেয়ে সন্ত্রাসীরা প্রিয় পাখির (৫৫) নামে এক গৃহবধূর মুখম-ল এ্যাসিডে ঝলছে দিয়েছে। শনিবার সকালে প্রিয় পাখিকে এ্যাসিড দগ্ধ অবস্থায় উদ্ধার করে ঢামেক হাসপাতালের বার্ন ইউনিটে ভর্তি করা হয়েছে। এ্যাসিড দগ্ধ পাখির ছেলে আনোয়ার হোসেন জানান, ছয় মাস আগে আমরা লন্ডন থেকে বাংলাদেশে আসি। এরপর যাত্রাবাড়ীর মাতুয়াইলে বাসা ভাড়া নিয়ে বাস করছি। তিনি জানান, স্থানীয় সন্ত্রাসী হাবিব আমাদের কাছে পাঁচ লাখ টাকা চাঁদা দাবি করে। ঘটনাটি তারা পুলিশকে জানান। পরে পুলিশ হাবিবকে এ ব্যাপারে সতর্ক করে দেয়। ঘটনার বর্ণনা দিয়ে আনোয়ার হোসেন, শুক্রবার দিবাগত রাত ১টার দিকে যাত্রাবাড়ীতে এক আত্মীয়ের বাড়িতে দাওয়াত খেয়ে আমরা বাসায় ফিরছিলাম। পথে দলবল নিয়ে হাবিব আমাদের গতিরোধ করে। এ সময় হাবিব তার দাবিকৃত চাঁদা দেয়ার জন্য বলে। কিন্তু আম্মু তার প্রস্তাব রাজি হয়নি। এ সময় হাবিব ও তার দল ক্ষুব্ধ হয়ে উঠে। তাদের দিকে এ্যাসিড ছুঁড়ে মারে। এতে আম্মুর মুখম-ল ঝলসে যায়।

ছিনতাই ॥ পুরান ঢাকার গে-ারিয়ার দয়াগঞ্জে ছিনতাইকারীরা আব্দুল হান্নান বিশ্বাস (৩২) ও ভাগ্নে ইব্রাহিম মোল্লাকে (১৯) এলোপাতাড়ি ছুরিকাঘাত করে নগদ টাকা ও মোবাইল সেট ছিনিয়ে নিয়ে পালিয়ে যায়। পরে তাদের উদ্ধার করে ঢামেক হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। আহত ব্যবসায়ী মামা হান্নান বিশ্বাস জানান, যাত্রাবাড়ী মীর হাজিরবাগ ছাত্রাবাসে থাকেন তারা। তিনি জানান, শুক্রবার রাত সাড়ে ১২টার দিকে তারা বংশাল নাজিরাবাজার এক আত্মীয়ের বাড়িতে দাওয়াত খেতে যান। পরে রিক্সাযোগে তারা যাত্রাবাড়ীর মীর হাজিরবাগের ছাত্রাবাসে ফিরছিলেন। রিক্সাটি গে-ারিয়া দয়াগঞ্জ ইবনে সিনা ডায়াগনস্টিক সেন্টারের সামনে পৌঁছলে ছিনতাইকারীরা তাদের গতিরোধ করেন। এ সময় ছিনতাইকারীরা তাদের হাতে-পিঠে ছুরিকাঘাত করে চারটি মোবাইল ফোন ও তিন হাজার আটশ’ টাকা নিয়ে যায়। ঢামেক হাসপাতাল পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ পরিদর্শক মোজাম্মেল হক জানান, রাত আড়াইটার দিকে তারা হাসপাতালে ভর্তি হন। ভোরে চিকিৎসা শেষে চলে গেছেন।