১৬ নভেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

যুব সাফ ফুটবলে ব্যর্থতার নেপথ্যে দলীয় সমঝোতার অভাব

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ দলীয় সমঝোতার অভাবেই সাফ অনুর্ধ-১৯ ফুটবল চ্যাম্পিয়নশিপে প্রত্যাশিত ভাল ফল করতে পারেনি বাংলাদেশ। এমনটাই মনে করেন দেশের সাবেক ফুটবলাররা। আর এ জন্য টুর্নামেন্টের আগে ফুটবলারদের পর্যাপ্ত অনুশীলনের সুযোগ না পাওয়াকেই দায়ী করেছেন তারা। পাশাপাশি ভবিষ্যতে ভাল ফল পেতে এসব টুর্নামেন্টকে ঘিরে বাফুফেকে আরও দীর্ঘমেয়াদী পরিকল্পনা হাতে নেয়ার পরামর্শ দেন সাবেক ফুটবলাররা।

জাতীয় দলের সাবেক ফুটবলার ও কোচ শফিকুল ইসলাম মানিক বলেন, ‘সাফ অনুর্ধ-১৯ ফুটবল চ্যাম্পিয়নশিপে অংশ নেয়ার আগে প্রায় দেড় মাস অনুশীলনের সুযোগ পেয়েছিলেন ফুটবলাররা। তবে প্রিমিয়ার লীগের কারণে এই স্বল্প সময়েও অনেক ফুটবলারকেই দেখা যায়নি প্রশিক্ষণ ক্যাম্পে। তাই মাঠের পারফর্মেন্সে খেলোয়াড়দের মাঝে দলীয় বোঝাপড়ার অভাবটা বেশ স্পষ্ট ছিল।’

প্রথমবারের মতো সাফ অনুর্ধ-১৯ ফুটবলের বয়সভিত্তিক এ আসর। যাতে ভাল করতে পারলে ইতিহাসের পাতায় ঠাঁই পেত বাংলার যুবাদের এ অর্জন। সে লক্ষ্যে গ্রুপপর্বের প্রথম ম্যাচেই ভুটানকে ২-০ গোলে হারিয়ে বাজিমাত করেছিল সাইফুল বারী টিটুর শিষ্যরা। কিন্তু এর পরের ম্যাচেই স্বাগতিক নেপালের কাছে হারে বাংলাদেশ দল। সেই হারের মিছিল অব্যাহত থাকে ভারতের বিপক্ষে সেমিফাইনালেও টাইব্রেকারে হেরে। ফলে টুর্নামেন্ট থেকেই ছিটকে যায় বাংলাদেশ।

ঘরের মাঠে সাফ অনুর্ধ-১৬ চ্যাম্পিয়নশিপে ভাল করেছিল বাংলাদেশ, যার পেছনে ছিল বাফুফের দীর্ঘমেয়াদী পরিকল্পনা। এ প্রসঙ্গে দেশের আরেক প্রখ্যাত সাবেক জাতীয় ফুটবলার-গোলরক্ষক আমিনুল হক বলেন, ‘ভবিষ্যতে ফুটবলের বয়সভিত্তিক এ আসরগুলোতে ভাল করতে হলে ফুটবল ফেডারেশনকে এখন থেকেই পরিকল্পনা করে সেটা যথাযথভাবে বাস্তবায়ন করতে হবে। শফিকুল ইসলাম মানিক আরও বলেন, ‘তৃণমূল পর্যায় থেকে প্রতিভা খুঁজে বের করা, বাফুফেকে স্কুল পর্যায়ের ফুটবল কাঠামোকে আরও শক্তিশালী করা এবং বিদেশী কোচদের দিয়ে উন্নতমানের প্রশিক্ষণ দিতে হবে বাফুফেকে।’