১৩ ডিসেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

চট্টগ্রামে মাজারে ঢুকে ল্যাংটা ফকির ও খাদেমকে জবাই

স্টাফ রিপোর্টার, চট্টগ্রাম অফিস ॥ শুক্রবার বন্দরনগরীর বায়েজিদ বোস্তামী এলাকার বাংলাবাজাররে’ একটি আস্তানায় ঢুকে এক যুবক রহমত উল্লাহ প্রকাশ ল্যাংটা ফকির (৫২) তার খাদেমকে জবাই করে হত্যা করেছে। বেলা দুটার দিকে এ ঘটনা ঘটে। নিহত অপরজন আবদুল কাদের (২৫)।

পুলিশ জানায়, দুপুরে অজ্ঞাতনামা এক সন্ত্রাসী লম্বা একটি ধারালো ছুরি নিয়ে আস্তানায় প্রবেশ করে এবং সে আস্তানায় ঢুকেই রহমত উল্লাহ প্রকাশ ল্যাংটা ফকিরকে জবাই করে হত্যা করে। অনতিদূর থেকে ঘটনা দেখে আবদুল কাদের নামের এক যুবক। ঘটনাটি দেখে ফেলায় ঘাতক আবদুল কাদেরকেও জবাই করে হত্যা করে। বিষয়টি সঙ্গে সঙ্গে টের পেয়ে এলাকার লোকজন ঘাতককে ধাওয়া করে। কিন্তু প্রায় দুই কিলোমিটার পর্যন্ত ধাওয়া করার পর ওই ঘাতক ধাওয়াকারীদের লক্ষ্য করে দফায় দফায় ককটেল বিস্ফোরণ ঘটায়। এতে তিনজন আহত হয়। আহতদের চমেক হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

ঘটনার পর পরই সিএমপির উর্ধতন কর্মকর্তারা ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন এবং ঘটনার বিভিন্ন আলামত সংগ্রহ করেন। এ ডাবল মার্ডারের ঘটনার কারণ সম্পর্কে পুলিশ তাৎক্ষণিকভাবে কিছুই জানাতে পারেনি। তবে তাদের ধারণা, মাজার বিরোধী কোন গোষ্ঠী এ হত্যাকা- ঘটিয়েছে। পুলিশের আরও ধারণা, এ আস্তানার টাকা পয়সা নিয়ে বিরোধের কারণেও হত্যাকা-টি ঘটে থাকতে পারে। এছাড়া পূর্ব শত্রুতার জের হিসেবেও এ হত্যাকা- ঘটে থাকতে পারে। তবে ঘটনাটি যে পূর্ব পরিকল্পিত তা নিয়ে পুলিশের কোন সন্দেহ নেই। কেননা, যে সন্ত্রাসী এ হত্যাকা- ঘটিয়েছে সে জনরোষ থেকে বাঁচার জন্য সঙ্গে ককটেল রাখে এবং জনতার ধাওয়া খেয়ে সে ককটেল ফাটিয়ে নিজেকে রক্ষা করতে সক্ষম হয়েছে।

এ ব্যাপারে স্থানীয় বিভিন্ন সূত্রে বলা হচ্ছে, লেংটা ফকির ওই জায়গায় আস্তানা গাড়ার পর থেকে এলাকার মানুষের মধ্যে বিভিন্ন কানাঘুষার জন্ম দেয়। আবার এলাকার একটি অংশের সমর্থনও ছিল নিহত লেংটা ফকিরের প্রতি।