১৬ অক্টোবর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

জাতীয় দলের ছায়া!

জাতীয় দলের ছায়া!
  • বাংলাদেশ ‘এ’ দলের ভারত সফর;###;মুমিনুল হক অধিনায়ক, সহ অধিনায়ক নাসির হোসেন

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ ভারত ‘এ’ দলের বিপক্ষে তিনটি একদিনের ও একটি তিনদিনের ম্যাচ খেলবে বাংলাদেশ ‘এ’ দল। আর রঞ্জি ট্রফির চ্যাম্পিয়ন দল কর্ণাটকের বিপক্ষেও আরেকটি তিনদিনের ম্যাচ খেলবে। সবমিলিয়ে ভারত সফরে গিয়ে তিনটি একদিনের ও দুটি তিনদিনের ম্যাচ খেলবে। এ জন্য ১৫ সদস্যের শক্তিশালী দলও গঠন করেছে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিবি) নির্বাচক কমিটি। মুমিনুল হককে অধিনায়ক ও নাসির হোসেনকে সহ-অধিনায়ক করে মঙ্গলবার দল ঘোষণা করা হয়েছে। যে দল ঘোষণা হয়েছে, তাতে দেখা যাচ্ছে ‘এ’ দলের আড়ালে খেলবে আসলে জাতীয় দলই। জাতীয় দলের সিনিয়র ক্রিকেটাররা ছাড়া সব নির্ভরযোগ্য ক্রিকেটারকেই ভারত সফরে পাঠানো হচ্ছে।

আর ৪ দিন পর ১৩ সেপ্টেম্বর ভারত যাবে বাংলাদেশ ‘এ’ দল। ঢাকা থেকে সরাসরি ব্যাঙ্গালুরুতে পৌঁছাবে। ব্যাঙ্গালুরুতেই যে ভারত ‘এ’ দলের বিপক্ষে ১৬, ১৮ ও ২০ সেপ্টেম্বর যথাক্রমে প্রথম, দ্বিতীয় ও তৃতীয় ওয়ানডে খেলবে। এরপর ২২-২৪ সেপ্টেম্বর কর্ণাটকের বিপক্ষে মহিশুরে তিনদিনের ম্যাচটি শেষে আবার ভারত ‘এ’ দলের বিপক্ষে ব্যাঙ্গালুরুতে ২৭-২৯ সেপ্টেম্বর তিনদিনের ম্যাচ খেলবে বাংলাদেশ ‘এ’ দল। ৩০ সেপ্টেম্বর দেশে ফিরে আসবে।

এ সফরটির জন্য শক্তিশালী দলই গঠন করেছে নির্বাচকরা। ভারতের পত্রপত্রিকাগুলোর মাধ্যমে যতদূর জানা যাচ্ছে, মহেন্দ্র সিং ধোনি, বিরাট কোহলি ‘এ’ দলে খেলতে পারেন। বাংলাদেশ দলও তাই শক্তিশালীই করা হয়েছে। সাকলায়েন সজিব ছাড়া জাতীয় দলের জার্সি গায়ে জড়িয়ে খেলা ক্রিকেটারদেরই দলে নেয়া হয়েছে। মুমিনুল হক, নাসির হোসেন, এনামুল হক বিজয়, রনি তালুকদার, লিটন কুমার দাস, সাব্বির রহমান রুম্মন, সৌম্য সরকার, আরাফাত সানি, রুবেল হোসেন, শফিউল ইসলাম, আল আমিন হোসেন, তাসকিন আহমেদ, শুভগত হোম চৌধুরী ও জুবায়ের হোসেন আছেন। এর আগে ২০০১, ২০০৯ ও ২০১২ সালে ভারত সফরে গিয়েছিল ‘এ’ দল।

‘এ’ দল ঘোষণার আগেই প্রধান নির্বাচক ফারুক আহমেদ শক্তিশালী দল গঠনের ইঙ্গিত দিয়েছিলেন। কথামত কাজও করেছেন। বলেছিলেন, ‘দলটা আমরা দক্ষিণ আফ্রিকা এবং জিম্বাবুইয়ের জন্য চিন্তা করছিলাম। এর মধ্যে ভারত সফরেও যেতে হবে, অল্প কিছু দিনের মধ্যেই ওই সফরে যেতে হবে। সফরটা বাংলাদেশের জন্য খুব গুরুত্বপূর্ণ।’

শক্তিশালী ‘এ’ দল গঠন করা হবে জানিয়ে ফারুক বলেছিলেন, ‘অন্য দেশের ‘এ’ দলগুলো তাদের জাতীয় দলের মতোই প্রায়। আমরাও শক্তিশালী ‘এ’ দল করতে চেয়েছি। আমরা যে দলগুলোর সঙ্গে সামনের সিরিজগুলো খেলব, সেই দলগুলো ওই দেশের জাতীয় দলের খেলোয়াড়রা থাকবে। সে দিকে চিন্তা করে আমাদের দলটাকেও আমরা শক্তিশালী করতে চেয়েছি।’ ভারত সফরে ‘এ’ দল তিনটি ওয়ানডে ও দুটি তিন দিনের ম্যাচ খেলবে। ১৫ জনের দলে তাই ওয়ানডে ও লংগার ভার্সন ম্যাচ খেলার মতো ক্রিকেটারই রাখা হয়েছে। দলটা সম্পর্কে জানাতে গিয়ে প্রধান নির্বাচক জানিয়েছিলেন, ‘কিছুদিন পর অস্ট্রেলিয়া খেলতে আসবে। সৌম্য-নাসির-সাব্বির দীর্ঘ পরিসরের বেশি ম্যাচ খেলেনি। রনি তালুকদারকে ওয়ানডেতে চেষ্টা করেছি। বিজয় দলে ফেরার চেষ্টা করছে। এদের নিয়ে আমাদের ভাবনা আছে। আমরা যে দলটি তৈরি করেছি, সেটা নানা বিষয় মাথায় রেখে তৈরি করেছি।’ এমন দলই গঠন করে ফেলেছেন নির্বাচকরা, ‘এ’ দলের আড়ালে খেলবে আসলে জাতীয় দলই।

বাংলাদেশ ‘এ’ দল ॥ মুমিনুল হক (অধিনায়ক), নাসির হোসেন (সহ-অধিনায়ক), এনামুল হক বিজয়, রনি তালুকদার, লিটন কুমার দাস, সাব্বির রহমান রুম্মন, সৌম্য সরকার, আরাফাত সানি, রুবেল হোসেন, শফিউল ইসলাম, আল আমিন হোসেন, তাসকিন আহমেদ, শুভগত হোম চৌধুরী, জুবায়ের হোসেন ও সাকলায়েন সজিব।