২২ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

মেসিভক্ত টেনিস কন্যা আজারেঙ্কা

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ লিওনেল মেসির গুণমুগ্ধ নন, এমন মানুষ খুঁজে পাওয়া দুষ্কর। শত্রু-মিত্র সবাই বার্সিলোনার আর্জেন্টাইন তারকাকে পছন্দ করেন। সেটা ফুটবল মাঠে অতিমানবীয় পারফর্মেন্সের কারণেই। ব্যক্তি মেসিও অনন্য। যে কারণে মেসিকে পছন্দ করেন অনিন্দ্যরূপসীরাও। তেমনি একজন বেলারুশের টেনিস সুন্দরী ভিক্টোরিয়া আজারেঙ্কা। মঙ্গলবার এক সাক্ষাতকারে বেলারুশ কন্যা মেসির প্রতি তার ভাললাগার কথা জানান। এই ভাললাগা অবশ্য ফুটবল মাঠের নৈপুণ্যের কারণে।

সাক্ষাতকারে আজারেঙ্কা বলেন, ক্লাব হোক আর আন্তর্জাতিক পর্যায়ে হোক, মেসি মাঠে যা করেন তা অবিশ্বাস্য, অচিন্তনীয়। তার খেলা দেখলে মনে হয়, ভিডিও গেমে কোন খেলোয়াড়কে দেখছি। চলমান ইউএস ওপেন টেনিসে প্রমীলা এককের কোয়ার্টার ফাইনালে জায়গা করে নিয়েছেন আজারেঙ্কা। চতুর্থ পর্বের ম্যাচে তিনি হারিয়েছেন বারবারা লেপচেঙ্কোকে। ওই ম্যাচে শেষে কথা বলতে গিয়ে মেসির প্রসঙ্গ উঠে আসে। সে সময় ২৬ বছর বয়সী এই সুন্দরী মেসিকে প্রশংসায় ভাসান। আজারেঙ্কা জানান, সময়-সুযোগ পেলেই মেসির খেলা দেখতে টেলিভিশন সেটেরে সামনে বসে পড়েন তিনি। ক’দিন আগে প্রীতি ম্যাচে বলিভিয়ার বিপক্ষে আর্জেন্টিনা ৭-০ গোলে জয় পেয়েছে। ম্যাচে শেষের বদলি হিসেবে নেমে মেসি দুটি গোলও করেন। টেনিস নিয়ে ব্যস্ত থাকায় এই ম্যাচটি দেখতে পারেননি বলে আফসোস করেন বেলারুশ কন্যা।

তিনি জানান, একবার বার্সিলোনার স্টেডিয়ামে বসেই মেসির খেলা দেখার সৌভাগ্য হয়েছিল তার। সেই স্মৃতিচারণ করে আজারেঙ্কা বলেন, সেই অনুভূতিটি ছিল দারুণ। মাঠে তিনি যেভাবে এক দিক থেকে আরেক দিকে বল নিয়ে ছুটছিলেন, সামন্য জায়গা পেলেই যেভাবে গোলের সুযোগ সৃষ্টি করেছিলেন তা অবিশ্বাস্য। আমার কাছে মেসি মানে দারুণ আনন্দের উৎস। মেসিকে দেখে টেনিস কোর্টে ভাল কিছু করার অনুপ্রেরণাও খুঁজে পান তারকা এই টেনিস খেলোয়াড়। এ প্রসঙ্গে মজা করে আজারেঙ্কা বলেন, ফুটবলাররা পা দিয়ে খেলে। তাই আমি বলতে পারি না যে তিনি পা দিয়ে ফুটবলে যতটা ভাল, আমি হাত দিয়ে টেনিসে ততটা ভাল। তবে আমি তার মতোই সেরা হওয়ার চেষ্টা করি।

বার্সিলোনা ছেড়ে চেলসিতে যাওয়ার পর মেসিকে খুব মিস করছেন পেড্রো রড্রিগুয়েজ। আগেও বলেছেন একথা। মঙ্গলবার আরেক সাক্ষাতকারে ফের প্রিয় মেসিকে নিয়ে কথা বলেন স্প্যানিশ ফরোয়ার্ড। দীর্ঘ ১১ বছরের বন্ধন ছিন্ন করে চেলসিতে যোগ দিলেও সাবেক সতীর্থদের দারুণ মিস করছেন তিনি। তবে অভাবটা বেশি বুঝতে পারছেন পেড্রো। চলতি মৌসুমে ২১ মিলিয়ন পাউন্ডের বিনিময়ে চার বছরের চুক্তিতে স্টামফোর্ড ব্রিজে পাড়ি জমিয়েছেন পেড্রো। ক্যারিয়ারের সিংহভাগ সময় পার করেছেন বার্সার হয়ে। সতীর্থ হিসেবে কয়েকজন বিশ্বমানের খেলোয়াড় পেয়েছেন। দীর্ঘ সময় ধরে মেসির পাশে খেলার সুবাদে চারবারের ব্যালন ডি’অর জয়ীকে স্মরণ করেন তিনি। পেড্রো বলেন, আমি মেসিকে খুবই মিস করব। সে অসাধারণ একজন মানুষ। সতীর্থ হিসেবে তার তুলনা নেই। আমরা একসঙ্গে দীর্ঘ সময় পার করেছি এবং অনেক ম্যাচ খেলে অসংখ্য গোলও করেছি। সে আমাকে খুব ভাল করেই চেনে।

নতুন ক্লাবে সতীর্থদের মিস করার প্রসঙ্গ টেনে তিনি বলেন, চেলসির জার্সি গায়ে মাঠে নামার সময় অন্যরকম অনুভূতি আসে। মেসি, জর্ডি আলবা, সার্জিও বুসকেটস, আন্দ্রেস ইনিয়েস্তা সহ সবাইকেই মিস করি। সৌভাগ্যবশত জাতীয় দলের হয়ে সাবেক ক্লাব সতীর্থদের সঙ্গে খেলতে পারব। চ্যাম্পিয়ন্স লীগে প্রথম পর্বের বাধা পার হলে বার্সা-চেলসি মুখোমুখি হওয়ার সম্ভাবনা আছে। এ প্রসঙ্গে পেড্রো বলেন, ন্যুক্যাম্পে বার্সার বিপক্ষে খেলার ইচ্ছা নেই। তবে এমন পরিস্থিতির সম্মুখীন হলেও কোন ধরনের গোল উদযাপন করব না।