২৩ অক্টোবর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

চোট-দুর্ভাগ্যে হতাশ বাউচার্ড

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ গত বছর হঠাৎ করেই টেনিস বিশ্বের পাদপ্রদীপের আলোয় চলে আসেন ইউজেনি বাউচার্ড। মৌসুমের প্রথম দুই গ্র্যান্ডসøাম টুর্নামেন্টের সেমিফাইনালে উঠা কানাডিয়ান এই টেনিস তারকা উইম্বল্ডনের ফাইনালে উঠে রীতিমতো চমকে দেন টেনিস বিশ্বকেই। টেনিসের নতুন তারা হিসেবে বিবেচনায় চলে আসেন ২১ বছর বয়সী এই কানাডিয়ান। কিন্তু পারফর্মেন্সের সেই ধারাবাহিকতা খুব বেশি দিন ধরে রাখতে পারেননি তিনি। চলতি মৌসুমের প্রথম গ্র্যান্ডসøাম টুর্নামেন্ট অস্ট্রেলিয়ান ওপেনের কোয়ার্টার ফাইনালে উঠলেও পরের সময়টাতে আর কোর্টে পাওয়া যায়নি তাকে। অবশেষে বছরের শেষ মেজর টুর্নামেন্ট ইউএস ওপেনে নিজেকে মেলে ধরার সুযোগ পান তিনি। অস্ট্রেলিয়ান ওপেনের পর ফ্লাশিং মিডোতেই টানা তিন জয়ের দেখা পান তরুণ প্রতিভাবান এই টেনিস তারকা। সেই সঙ্গে টুর্নামেন্টের শেষ ষোলোতেও জায়গা করে নেন ২৫তম বাছাই বাউচার্ড। কিন্তু এই সময়ই চোটের কবলে পড়েন তিনি। এর ফলে ইউএস ওপেনের মিশ্র দ্বৈতের লড়াই থেকে শনিবারই নাম প্রত্যাহার করে নেন বাউচার্ড। তারপরও মহিলা এককে খেলার ইচ্ছে ছিল তার। কিন্তু আপ্রাণ চেষ্টা করেও পারেননি তরুণ প্রতিভাবান এই টেনিস তারকা। রবিবার ম্যাচের আগেই সরে দাঁড়ান তিনি। আর ইউজেনি বাউচার্ড না খেলার কারণে ওয়াকওভারে টুর্নামেন্টের কোয়ার্টার ফাইনালে জায়গা করে নিয়েছেন ইতালির রবার্টা ভিঞ্চি।

বছর শুরুর টুর্নামেন্ট অস্ট্রেলিয়ান ওপেনের পর পুরো বছর নিষ্প্রভ থাকেন বাউচার্ড। তবে ইউএস ওপেনেই স্বরূপে ফেরার ইঙ্গিত তিনি! টানা তিন ম্যাচে জয় তুলে নেন তিনি। এর পেছনে কারণও রয়েছে। তা হলো জিমি কনর্সের সহযোগিতা। টেনিসের কিংবদন্তি হিসেবে বিবেচিত জিমি কনর্স। আর তাকে মেন্টর হিসেবে নিয়োগ দিয়েছেন বাউচার্ড। তার পরামর্শেই ইউএস ওপেনের শেষ ষোলোর টিকেট কাটতে সক্ষম হয়েছেন বলে জানান বাউচার্ড, ‘তিনি খুবই শক্তিশালী খেলোয়াড়। তার সংস্পর্শেই আমার স্পৃহা অনেকগুণ বেড়ে গেছে। তিনিই আমার মাঝে আস্থা ফিরিয়ে এনেছেন। টেনিস কোর্টে ব্যর্থতার বৃত্ত থেকে বেরিয়ে আসতে এবং আত্মবিশ্বাস বাড়ানোর ক্ষেত্রে তার ভূমিকা অনেক কাজে লাগছে। তার সঙ্গে কাজ করার পর সত্যিই আমার চিন্তা চেতনায় ভিন্নতা এসেছে।

নির্বাচিত সংবাদ