২৩ অক্টোবর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

‘বঙ্গবন্ধুর খুনীদের সঙ্গে ত্রিপলিতে বৈঠক করেন এমাজউদ্দীন’

অনলাইন রিপোর্টার ॥ ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক উপাচার্য অধ্যাপক ড. এমাজউদ্দীন আহমেদ বঙ্গবন্ধুর খুনীদের সঙ্গে লিবিয়ার ত্রিপলিতে গেয়ে বৈঠক করেছিলেন বলে দাবি করেছেন জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. মিজানুর রহমান।

রাজহধানীর ইঞ্জিনিয়ারিং ইনস্টিটিউটে বঙ্গবন্ধুর ৪০তম শাহাদাত বার্ষিকী উপলক্ষে ঢাকা মহানগর আওয়ামী লীগ আয়োজিত এক আলোচনা সভায় বুধবার বিকেলে তিনি এ দাবি করেন। ঢাকা মহানগর আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি এম এ আজিজের সভাপতিত্বে আরও উপস্থিত ছিলেন আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা পরিষদ সদস্য ও শিল্পমন্ত্রী আমির হোসেন আমু, সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য ও কৃষিমন্ত্রী মতিয়া চৌধুরী, সাধারণ সম্পাদক ও জনপ্রশাসনমন্ত্রী সৈয়দ আশরাফুল ইসলাম, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুব-উল-আলম হানিফ, সাংগঠনিক সম্পাদক খালিদ মাহমুদ চৌধুরী, নগরের সাধারণ সম্পাদক ও ত্রাণমন্ত্রী মোফাজ্জল হোসেন চৌধুরী মায়া, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ও খাদ্যমন্ত্রী এ্যাডভোকেট কামরুল ইসলাম প্রমুখ।

মিজানুর রহমান বলেন, বঙ্গবন্ধুর খুনীরা দেশে থেকে প্রথমে মিয়ানমার যায়। তাদের সেখানে নিরাপদে পাড়ি জমাতে সহায়তা করেন জিয়াউর রহমান গংরা। এরপর জাতির পিতার খুনীদের পাঠানো হয় লিবিয়াতে। পরে বাংলাদেশ থেকে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক ভিসি অধ্যাপক ড. এমাজউদ্দীনের নেতৃত্বে একটি বুদ্ধিজীবী দল গিয়ে ত্রিপলিতে বঙ্গবন্ধুর খুনীদের সঙ্গে বৈঠক করেন। আজ আমি এ কথা বলতে বাধ্য হচ্ছি।

দিনে দিনে মুক্তিযুদ্ধের প্রজন্মের পাশাপাশি রাজাকারের প্রজন্মও তৈরি হচ্ছে দাবি করে তিনি জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসি বলেন, খালেদা জিয়াকে বঙ্গবন্ধুর মৃত্যুর দিনে কেক না কাটার জন্য এই এমাজউদ্দীনই আহ্বান জানিয়েছেন। কিন্তু খালেদা জিয়া সেই দিন কেক কাটলেন আর তার পাশেই ছিলেন এমাজউদ্দীন আহমেদ। জাতির জন্য কতটা দুঃখজনক বিষয়টি।

নির্বাচিত সংবাদ