২৩ অক্টোবর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

বিটিআরসির অলস টাকা ব্যয় হবে বঞ্চিত অঞ্চলে

অনলাইন রিপোর্টার ॥ বিটিআরসির তহবিলে পড়ে থাকা ৭২৫ কোটি টাকায় ওয়াইফাই হটস্পট, দুর্গম এলাকায় ইন্টারনেট এবং প্রাকৃতিক দুর্যোগে টেলিযোগাযোগ সেবায় ব্যয়ের পরিকল্পনার কথা জানিয়েছেন ডাক ও টেলিযোগাযাগ প্রতিমন্ত্রী তারানা হালিম।

বুধবার সচিবালয়ে টেলিকম খাতের প্রতিবেদকদের সংগঠন ‘টেলিকম রিপোর্টার্স নেটওয়ার্ক বাংলাদেশ’ এর সঙ্গে এক মতবিনিময় অনুষ্ঠানে সেই পরিকল্পনা জানান তারানা।

তিনি বলেন, টেলিযোগাযোগ ও তথ্য যোগাযোগ প্রযুক্তি সেবা সম্প্রসারণ, উন্নয়ন ও পরামর্শমূলক কাজে এ তহবিল ব্যয় করা হবে।

“বিভিন্ন দুর্গম এলাকায় চা বাগান এলাকায় শিক্ষা প্রতিষ্ঠান কম, হাওর এলাকা, বন্যাদুর্গত এলাকায় পানি উঠে যায়, সে সমস্ত জায়গায় কম্পিউটার গ্রাম বা কম্পিউটার হাট করা। কম্পিউটার থাকবে, কানেকটিভিটি থাকবে, সেখানকার গ্রামবাসী বিনামূল্যে প্রশিক্ষণ দেব। এটা একটা স্কুলের মতো হবে। পরবর্তীতে যেন বাচ্চারা কম্পিউটার জ্ঞান নিয়ে বড় হয়।”

বাংলাদেশের বৃদ্ধ নিবাসগুলোতে ইন্টারনেট সংযোগ ও কম্পিউটার দেওয়ার পরিকল্পনাও রয়েছে প্রতিমন্ত্রীর।

সেই সঙ্গে তিনি বলেন, “বিভিন্ন জায়গায় ওয়াইফাই হট স্পট তৈরি করতে পারি কি না, এ বিষয়টাও চিন্তা করা হচ্ছে।”

বিটিআরসি চেয়ারম্যান সুনীল কান্তি বোস বলেন, তহবিলের টাকা কোন জায়গায় ব্যবহার করা যায়, তা আলোচনা করে ঠিক করা হবে।

যে সব স্থানে টেলিযোগাযোগ সেবা পৌঁছানো দুষ্কর, জীবনযাত্রা কঠিন, সেই সব স্থানের মানুষের বঞ্চনা লাঘবে এই তহবিল ব্যবহারের উপর জোর দেন তিনি।

সামাজিক দায়বদ্ধতা তহবিলের এই অর্থ খরচের বিধির মধ্যে প্রাকৃতিক দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা সংক্রান্ত বিষয় আছে বলেও জানান বিটিআরসি চেয়ারম্যান।

বাংলাদেশের টেলিকমিউনিকেশনের প্রসারে মোবাইল ফোন অপারেটরদের মোট আয়ের এক শতাংশ কেটে নিয়ে ২০১২ সালের ডিসেম্বরে এই তহবিল গঠন করা হয়।

স্বচ্ছতার সাথে সাথে প্রকল্পে যেন ধীরগতি না থাকে তার জন্য প্রত্যেক প্রকল্পের সময় নির্ধারণ করে তা বাস্তবয়নের উপর জোর দিয়ে প্রতিমন্ত্রী বলেন, “মন্ত্রণালয় সচল থাকলে সকলে সচল হয়।”

টেলিযোগাযোগ খাতে অভ্যন্তরীণ নেটওয়ার্ক সম্প্রসারণে অগ্রগতি না হওয়াতে অসন্তোষ প্রকাশ করেন তিনি।

সম্প্রতি বিডি নিউজের এক অনুষ্ঠানে টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রক সংস্থার কাছে এই টাকা অলস পড়ে থাকার তথ্য উঠে আসার পর নতুন প্রতিমন্ত্রী বলেছিলেন, এই তহবিল ব্যবহারের উদ্যোগ নেবেন তিনি।

নির্বাচিত সংবাদ
এই মাত্রা পাওয়া