২৪ অক্টোবর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

ভারতে সৌদি কূটনীতিকের বিরুদ্ধে ধর্ষণের অভিযোগ

জনকণ্ঠ ডেস্ক ॥ ভারতে নিযুক্ত এক সৌদি কূটনীতিকের বিরুদ্ধে ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে। তার বিরুদ্ধে অভিযোগ, রাজধানী দিল্লীর কাছের গুরগাঁও এলাকার এক ফ্ল্যাটে দুই জন নেপালী গৃহপরিচারিকাকে আটকে মাসের পর মাস ধর্ষণ এবং তাদের ওপর বিকৃত যৌন নির্যাতন চালিয়েছেন। অবশ্য ভারতের সৌদি দূতাবাস এ অভিযোগ অস্বীকার করেছে। ভারতের পুলিশ এ কূটনীতিকের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেছে তবে তার নাম প্রকাশ করেনি। ওই দুই নারীর একজনের বয়স ৩০ এবং অপরজনের বয়স ৫০ বছর। এই দুই নারীকে গুরগাঁওয়ের ওই ফ্ল্যাটে চার থেকে পাঁচ মাস আটকে রাখা হয়েছিল। সোমবার রাতে স্থানীয় একটি এনজিওর কাছ থেকে পাওয়া অভিযোগের ভিত্তিতে পুলিশ ওই ফ্ল্যাটে অভিযান চালায় এবং ওই দুই নেপালী মহিলাকে উদ্ধার করে। তবে এ ঘটনায় এখনও কাউকে গ্রেফতার করা সম্ভব হয়নি। খবর বিবিসি ও দ্য হিন্দু অনলাইনের।

গুরগাও পুলিশ প্রধান নবদ্বীপ সিং ভার্ক বলেছেন, উদ্ধার হওয়া ওই দুই নারী জানিয়েছে, তাদের একটানা চার-থেকে পাঁচ মাস ঘরের বাইরে যেতে দেয়া হয়নি। এ সময় তাদের ধর্ষণ করা হতো এবং প্রচ- যৌন নির্যাতন চালানো হতো। তাদের শরীরে আঘাতের এসব চিহ্ন রয়েছে।

ওই কূটনীতিকের কী ধরনের ডিপ্লোম্যাটিক ইমিউনিটি আছে সে ব্যাপারে আমরা সরকারের কাছে খোঁজখবর নিচ্ছি

গুরগাঁও পুলিশ ইতোমধ্যে ভারতের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের কাছে জানতে চেয়েছে অভিযুক্ত ওই সৌদি কূটনীতিকের কী ধরনের ডিপ্লোম্যাটিক ইমিউনিটি বা কূটনৈতিক রক্ষাকবচ আছে।

ভারতের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ও পুলিশের কাছে গোটা ঘটনার বিস্তারিত রিপোর্ট চেয়ে পাঠিয়েছে, সৌদি দূতাবাসের সঙ্গেও এ ব্যাপারে তাদের যোগাযোগ হয়েছে বলে জানা গেছে।

দিল্লীতে সৌদি দূতাবাস অবশ্য ওই অভিযোগ পুরোপুরি অস্বীকার করেছে। সৌদি রাষ্ট্রদূত ভারতের একটি সংবাদ সংস্থাকে বলেছেন পুরো ঘটনাটাই ‘সম্পূর্ণ মিথ্যা’।