২৪ অক্টোবর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

ইংল্যান্ডের ইতিহাসে সর্বোচ্চ গোলদাতা রুনি

  • ৫০ গোল করে ছাড়িয়ে গেলেন কিংবদন্তি স্যার ববি চার্লটনকে, ভাঙলেন ৪৫ বছরের রেকর্ড, রুনিকে অভিনন্দন জানালেন চার্লটন, প্রশংসার জোয়ারে ভাসছেন ম্যানইউ তারকা

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ ‘এটা অসাধারণ এক অনুভূতি। এই রেকর্ডের জন্য গত কয়েকটি ম্যাচে আমি বেশ কাছাকাছি পৌঁছে গিয়েছিলাম। এটা স্বপ্ন পূরণের মতোই ঘটনা। এ জন্য অবশ্য আমি আবেগপ্রবণ হয়ে পড়েছিলাম। এটা সত্যিই অনেক বড় একটি সম্মান। আমি এ জন্য দারুণ গর্বিত। আমি জানি এটা আমার ক্যারিয়ারে অনেক বড় একটি মুহূর্ত। ৩০ বছর বয়সের আগেই এমন একটি রেকর্ড করার কথা আমি কখনই কল্পনা করিনি।’ কথাগুলো তারকা ফুটবলার ওয়েন রুনির। মঙ্গলবার রাতে ইংল্যান্ডের হয়ে সর্বকালের সর্বোচ্চ গোলদাতার রেকর্ড গড়ার পর বলেন ইংল্যান্ড অধিনায়ক।

ঘরের মাঠ লন্ডনের বিখ্যাত ওয়েম্বলি স্টেডিয়ামে ইউরো বাছাই ফুটবলে সুইজারল্যান্ডের বিপক্ষে মাঠে নামে ইংল্যান্ড। এই ম্যাচে সবার দৃষ্টি ছিল রুনির দিকে। কেননা আগের ম্যাচেই তিনি ছুঁয়ে ফেলেন ৪৯ গোল করা স্যার ববি চার্লটনকে। এই ম্যাচে তাই এক গোল করলেই হয়ে যাবেন ইংল্যান্ডের ইতিহাসের সর্বোচ্চ গোলদাতা। এমন সমীকরণ সামনে রেখে ক্যারিয়ারে ৫০তম গোল করে ইংল্যান্ডের হয়ে সর্বোচ্চ গোলের রেকর্ড গড়েছেন রুনি। ম্যাচের ৮৪ মিনিটে পেনাল্টি থেকে গোল করে ৫০ গোলের মাইলফলক স্পর্শ করার পাশাপাশি গৌরবময় রেকর্ড গড়েন ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড তারকা।

আগেই ইংল্যান্ডের ইউরোর চূড়ান্ত পর্বে খেলা নিশ্চিত হওয়ায় ম্যাচটিতে সবটুকু আলো ছিল রুনির উপর। অসাধারণ রেকর্ডের হাতছানি নিয়ে মাঠে নামেন তিনি। আর সেটা করতে পেরে আবেগপ্রবণ হয়ে পড়েন ম্যানইউর তারকা। ৪৫ বছর আগে কিংবদন্তি স্ট্রাইকার ববি চার্লটন ৪৯ গোল করে এতদিন পর্যন্ত ইংল্যান্ডের হয়ে সর্বোচ্চ গোলের মালিক ছিলেন। শনিবার সান ম্যারিনোর বিপক্ষে ৬-০ গোলে জয়ের ম্যাচটিতে রুনি চার্লটনের রেকর্ড স্পর্শ করেন। সুইসদের বিপক্ষে ম্যাচের ৬৭ মিনিটে প্রথম গোল করেন বদলি খেলোয়াড় হ্যারি কেন। এরপর কাক্সিক্ষত মুহূর্ত আসে রুনির সামনে ৮৪ মিনিটে। স্পট কিক থেকে সুইস গোলরক্ষক ইয়ান সোমারের ডান দিক দিয়ে গোল করার সঙ্গে সঙ্গে ওয়েম্বলি স্টেডিয়ামের দর্শকরা দাঁড়িয়ে রুনিকে অভিনন্দন জানান।

ইংল্যান্ডের হয়ে চার্লটনের রেকর্ড ভাঙ্গার পর ক্লাবের হয়েও সেটি ভাঙতে চলেছেন রুনি। কেননা ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডের হয়ে চার্লটনের করা ২৪৯ গোলের রেকর্ডেও খুব কাছাকাছি পৌঁছে গেছেন রুনি। যার রেকর্ড ভেঙ্গেছেন সেই চার্লটন সঙ্গে সঙ্গেই রুনিকে অভিনন্দন জানিয়ে বার্তা পাঠিয়েছেন। ৭৭ বছর বয়সী চার্লটন বলেন, ইংল্যান্ডের সর্বোচ্চ গোলদাতা হওয়ার জন্য আমি রুনিকে অভিনন্দন জানাচ্ছি। অবশ্য এটা বলব না যে, এতদিন পর্যন্ত আমি যে রেকর্ড ধরে রেখেছিলাম সেটা এখন আর না থাকায় আমি হতাশ হইনি। এরপরও রুনির জন্য আমি দারুণ খুশি। সে যেহেতু আমার প্রিয় ক্লাব ও দেশকে নেতৃত্ব দেয়, তার হাতেই নতুন এই রেকর্ড হওয়ায় আমি সত্যিই আনন্দিত। শুধু চার্লটনই নন, প্রায় সবার প্রশংসার জোয়ারে ভাসছেন এখন রুনি।

ইংল্যান্ড কোচ রয় হডসনও মহাখুশি। তিনি বলেন, আমি রুনির জন্য দারুণ খুশি। তার পূর্ণতা আমাকে সবসময়ই মুগ্ধ করে। বিশেষ করে অধিনায়কের ভূমিকায় সে যেভাবে দায়িত্ব পালন করে তা সত্যিই প্রশংসনীয়। ১৯ বছর বয়সে সে যখন পেশাদার ফুটবল খেলতে এসেছিল তখন থেকে এখন পর্যন্ত সমানভাবে পরিশ্রম করে চলেছে। তিনি জানান, আগামী ৯ অক্টোবর ওয়েম্বলিতে ইংল্যান্ডের পরবর্তী ম্যাচের আগে চার্লটনের কাছ থেকে রুনি গোল্ডেন বুট গ্রহণ করবেন। চার্লটন ছাড়াও ইংল্যান্ডের আরেক তারকা স্ট্রাইকার গ্যারি লিনেকারও রুনিকে অভিনন্দন জানিয়েছেন। সান ম্যারিনোর বিপক্ষে গোল করে রুনি লিনেকারের করার ৪৮ গোলের রেকর্ড ভেঙ্গে ছিলেন। এছাড়া রুনির সতীর্থরাও তাকে প্রশংসায় ভাসিয়েছেন। হ্যারি কেন যেমন রুনিকে মহানায়ক হিসেবে আখ্যায়িত করেছেন।