২১ অক্টোবর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

ব্রাজিলের জয়ে নেইমারের জোড়া গোল

  • ইজ্জত রক্ষা আর্জেন্টিনার

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ ব্রাজিল বিখ্যাত হলুদ জার্সি গায়ে আরও একবার নিজেকে প্রমাণ করলেন নেইমার। সেই সঙ্গে মোক্ষম জবাব দিয়েছেন কোচ কার্লোস দুঙ্গাকে। তারকা এই উইঙ্গারের দুর্দান্ত নৈপুণ্যে ভর করে আন্তর্জাতিক প্রীতি ফুটবল ম্যাচে সহজ জয় পেয়েছে সেলেসাওরা। বাংলাদেশ সময় বুধবার সকালে অনুষ্ঠিত ম্যাচে ব্রাজিল ৪-১ গোলে উড়িয়ে দেয় স্বাগতিক যুক্তরাষ্ট্রকে। ফক্সবোরোর জিলেট স্টেডিয়ামে সাম্বা ছন্দের প্রতিনিধিদের হয়ে জোড়া গোল করেন অধিনায়ক নেইমার। অপর গোল দুটি করেন হাল্ক ও রাফিনহা।

ব্রাজিলের সাম্বা ছন্দে মার্কিনীরা উড়ে গেলেও হারতে হারতে কোন রকমে ড্র করে ইজ্জত রক্ষা করেছে বিশ্বকাপ ও কোপা আমেরিকার রানার্সআপ আর্জেন্টিনা। বাংলাদেশ সময় বুধবার সকালে যুক্তরাষ্ট্রে অনুষ্ঠিত ম্যাচে মেক্সিকোর সঙ্গে ২-২ গোলে ড্র করে জেরার্ডো মার্টিনোর দল। যুক্তরাষ্ট্রের এ্যারলিংটনে ৮৪ মিনিট পর্যন্ত দুই গোলে পিছিয়ে ছিল আর্জেন্টিনা। যে কারণে ২০০৪ সালের পর উত্তর আমেরিকার দলটির কাছে হারের শঙ্কায় পড়েছিল দিয়াগো ম্যারাডোনার দেশ। কিন্তু শেষ পাঁচ মিনিটে সার্জিও এ্যাগুয়েরো ও অধিনায়ক লিওনেল মেসির গোলে কোনরকমে হার এড়িয়ে ড্র করেছে আর্জেন্টিনা। আগের ম্যাচে ব্রাজিলের কাছে হার মানা কোস্টারিকা জয়ে ফিরেছে। তারা ১-০ গোলে হারিয়েছে শক্তিশালী উরুগুয়েকে। কলম্বিয়া ও পেরুর মধ্যকার অপর ম্যাচটি অমীমাংসিত থাকে ১-১ গোলে।

আগের ম্যাচে শেষদিকে মাঠে নামানোয় কোচ কার্লোস দুঙ্গার ওপর চটেছিলেন নেইমার। যুক্তরাষ্ট্রের বিপক্ষেও অধিনায়ককে শুরুর একাদশে রাখেননি ১৯৯৪ সালের বিশ্বকাজয়ী অধিনায়ক। মাঠে নামান বিরতির ঠিক পরপরই। আর ময়দানী লড়াইয়ে নেমেই কোচকে মোক্ষম জবাব দিয়েছেন বার্সিলোনা তারকা। জোড়া গোল করে আরেকবার জানিয়ে দিয়েছেন, কি জাতীয় দল, ক্লাব সবখানেই তিনি অপ্রতিরোধ্য। তবে নেইমারের এই পারফর্মেন্স আক্ষেপও ঝরাতে পারে সেলেসাও কোচের। কেননা আগামী মাসেই চিলির বিপক্ষে দক্ষিণ অঞ্চলের বিশ্বকাপ বাছাইপর্বের মহাগুরুত্বপূর্ণ ম্যাচ খেলবে ব্রাজিল। ওই ম্যাচে নেইমারকে পাচ্ছে না ব্রাজিল। গত জুনে কোপা আমেরিকায় মাঠে গোল বাঁধিয়ে নিষেধাজ্ঞা মাথায় নেয়া এই তরুণ তারকা তাই বিশ্বকাপ বাছাইয়ের প্রথম দুই ম্যাচ খেলতে পারবেন না।

ম্যাচের শুরু থেকেই স্বাগতিকদের ওপর চড়াও হয়ে খেলতে থাকে ব্রাজিল। অনেকদিন পর এই ম্যাচে সাম্বা ছন্দের ছোঁয়া মেলে ম্যাচের নবম মিনিটেই এগিয়ে যায় অতিথিরা। চেলসি মিডফিল্ডার উইলিয়ানের ক্রস থেকে বল পেয়ে ডি বক্সের মধ্যে তিনজন ডিফেন্ডারকে বোকা বানিয়ে জোরালো শটে গোল করেন হাল্ক। চার মিনিট পর সমতা ফেরানোর সুযোগ পেয়েছিল যুক্তরাষ্ট্র। কিন্তু ব্রাজিলের ডিফেন্ডার মিরান্ডার দৃঢ়তায় গোলে ঠিকমতো শট নিতে পারেননি এ্যাল্টিডোর। প্রীতি ম্যাচে মেক্সিকো, হল্যান্ড, জার্মানি, গুয়েতেমালা ও পেরুকে হারানো যুক্তরাষ্ট্রকে দ্বিতীয়ার্ধে দাঁড়াতেই দেননি নেইমার। আগের ম্যাচে নয় মিনিট খেলা ব্রাজিলের সবচেয়ে তারকা এবার দ্বিতীয়ার্ধের শুরুতেই বদলি হিসেবে মাঠে নামেন। গোলের জন্য মাত্র ছয় মিনিট অপেক্ষা করতে হয় অধিনায়ককে। ৫১ মিনিটে নিজেই পেনাল্টি আদায় করে নিজেই স্পট কিকে গোল করে ব্যবধান করেন ২-০।

ম্যাচের ৬৪ মিনিটে ব্যবধান ৩-০ করার কৃতিত্ব রাফিনহার। লুকাসের পাস পেয়ে স্বাগতিক ডিফেন্ডারদের বোকা বানিয়ে গোল করেন বার্সিলোনা মিডফিল্ডার। তিন মিনিট পর অসাধারণ দক্ষতায় নিজের দ্বিতীয় ও দলের চার নম্বর গোলটি করেন নেইমার। এ সময় স্বাগতিক তিন ডিফেন্ডার ও গোলরক্ষককে বোকা বানান বার্সা তারকা। এটি ব্রাজিরের হয়ে নেইমারের ৪৬ নম্বর গোল। ম্যাচের যোগ করা সময়ে ড্যানিয়েল উইলিয়ামস দূরপাল্লার শটে লক্ষ্যভেদ করে যুক্তরাষ্ট্রকে সান্ত¡নার গোল এনে দেন। ম্যাচ শেষে ব্রাজিল অধিনায়ক নেইমার বলেন, ব্রাজিল এককনির্ভর দল নয়। এই দলে অনেক গ্রেট ফুটবলার আছে। আমার অনুপস্থিতিতে যারা দলকে সাফল্য উপহার দিতে সক্ষম।

আর্জেন্টিনার বিপক্ষে ম্যাচের ৭০ মিনিটে দুই গোলে এগিয়ে যায় মেক্সিকো। ওই সময় গোলটি করেন হেক্টর হেরেরা। এর আগে ম্যাচের ১৯ মিনিটে মেক্সিকানদের হয়ে প্রথম গোলটি করেন জ্যাভিয়ের হার্নান্দেজ। পেনাল্টি থেকে লক্ষ্যভেদ করেন তিনি। দুই গোলে পিছিয়ে পড়ার পর আর্জেন্টিনা মুহুর্মুহু আক্রমণ শাণাতে থাকে। ৮৫ মিনিটে এ্যাগুয়েরো ব্যবধান কমালেও মেক্সিকো হয়তো জয়ের চিন্তাই করেছিল। কিন্তু ম্যাচ শেষের এক মিনিট আগে মেসি জাদুতে ড্র নিয়ে মাঠ ছাড়ে আর্জেন্টিনা। ওই সময় এ্যাগুয়েরোর ফ্রিকিক ?নিজের বুকে নিয়ে দারুণ এক শটে গোলরক্ষককে বোকান বানান মেসি। এটি আর্জেন্টিনার জার্সি গায়ে বার্সা তারকার ৪৯ নম্বর গোল। ১০৫ আন্তর্জাতিক ম্যাচ খেলা মেসি আর সাত গোল করলেই হয়ে যাবেন আর্জেন্টিনার ফুটবল ইতিহাসের সর্বকালের সর্বোচ্চ গোলদাতা। ৫৬ গোল করে বর্তমানে সবার উপরে আছেন সাবেক ফরোয়ার্ড গ্যাব্রিয়েল বাতিস্তুতা।