২৪ অক্টোবর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

ওয়েলকাম ব্যাক তারার সমাবেশ

  • নিবিড় লতিফুল বারি

বলিউড

এক সিনেমায় নাসিরউদ্দিন শাহ, পরেশ রাওয়াল, নানা পাটেকার, অনিল কাপুর, ডিম্পল কাপাডিয়া, জন আব্রাহাম, শ্রুতি হাসান, শাইনি আহুজার এত এত তারকার সমাবেশ। ছবি দেখার আর কোন কারণ না থাকলেও এটাই যথেষ্ট। এ সুযোগ কি বার বার মেলে? তার ওপর এটি সিক্যুয়াল। ২০০৭-এ নির্মিত হয়েছিল ওয়েলকাম। ২০১৫-তে ওয়েলকাম ব্যাক। স্বভাবতই মানুষের তো আগ্রহ থাকেই সিক্যুয়ালের প্রতি। আর এমনই শত প্রত্যাশা নিয়ে বলিউডের বড় পর্দায় গত ৪ সেপ্টেম্বর মুক্তি পেয়েছে আনিস বাজমি পরিচালিত এই ছবিটি। হতাশ করেনি ছবিটি। মুক্তির প্রথম দিনের বক্স অফিসে এই বছরের দ্বিতীয় সর্বোচ্চ প্রায় ১৪ কোটি রুপী আয় করেছে ছবিটি। অনেক বোদ্ধাই অবশ্য ভেবেছিলেন অক্ষয় কুমারের অনুপস্থিতি ছবিটির ব্যবসায় প্রভাব ফেলবে। কারণ প্রিক্যুয়াল ‘ওয়েলকাম’-এ অক্ষয় ছিলেন। তবে সে শঙ্কা ভুল প্রমাণ করে ছবিটি দ্বিতীয় দিনেও আয় করে নেয় প্রায় ১৭ কোটি রুপী।

এই ছবিতে নানা পাটেকার ও অনিল কাপুর ওয়েলকাম ছবিতে যেখানে শেষ করেছিলেন সেই সেখান থেকেই ওয়েলকাম ব্যাক শুরু করেছেন। তাদের চরিত্রের নাম উদয় শেঠী ও মাঞ্জু। তাদের জীবনে কোন পরিবর্তন নেই। সেই আগের মতোই রয়ে গেছেন। বিয়ে ছাড়া, ভালবাসা ছাড়া এবং কোন নারীকে সুইমিংপুল বা বিচ থেকে উঠতে দেখলেই তারা নিজেদের সেখানে কল্পনা করে নেন।

২০১৩-তে মাদ্রাজ ক্যাফেতে অভিনয়ের পর দুই বছরের একটা বিরতি নিয়েছিলেন জন আব্রাহাম। এবার ফিরছেন ওয়েলকাম ব্যাক দিয়ে। এ যেন নামের সঙ্গে অত্যন্ত সঙ্গতিপূর্ণ। একই সঙ্গে এই ছবিতে তার প্লেব্যাকেও অভিষেক হতে যাচ্ছে। শূটআউট ওয়াদালা ছবিতে সর্বশেষ গ্যাংস্টার চরিত্রে অভিনয় করেছিলেন। এবার এই রোলেও ফিরছেন অনেক দিন পর। ২০১৫ সালটা যেন জনেরই। সবকিছু ঠিক থাকলে এই বছর মুক্তি পেতে যাচ্ছে হেরা ফেরি ৩। জন রয়েছেন ধোনিকে নিয়ে নির্মিত ‘এম এস ধোনি দ্য আনটোল্ড স্টোরি’ ছবিতেও। অবশ্য সেখানে তিনি আছেন যুবরাজ সিংয়ের চরিত্রে। জনের সঙ্গে অনিল কাপুরও ছিলেন শূটআউট ওয়াদালা ছবিতে। দু’বছর পর আবার একসঙ্গে পর্দার সামনে দাঁড়ানো। অবশ্য এই বছর অনিল কাপুরের ‘দিল ধাড়কে দো’ সিনেমা মুক্তি পেয়েছে। আপাতত আর কোন কাজ নেই এই সুপারস্টারের হাতে। ওদিকে হেরা ফেরি ৩-তে জনের সঙ্গে পরেশ রাওয়ালও থাকছেন। আর নাসিরউদ্দিন শাহ ২০১৫-তে ডার্টি পলিটিক্স দিয়ে ইনিংস শুরু করলেও শেষ করছেন ওয়েলকাম ব্যাক দিয়েই।

জন আব্রাহামের সঙ্গে শ্রুতি হাসানের শুধু এটিই নয়, সামনে ‘রকি হ্যান্ডসাম’ও অপেক্ষা করছে। এই বছর মুক্তি পাওয়ার কথা থাকলেও এটি শেষ পর্যন্ত ২০১৬-এর ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত পিছিয়েছে। আর এটি পরিচালনার দায়িত্বে আছেন নিশিকান্ত কামাত, যিনি কিনা ‘দৃশ্যাম’ নামক থ্রিলার ফিল্ম বানিয়ে বলিউডে সাড়া ফেলে দিয়েছেন ইতোমধ্যে। অপেক্ষায় থাকতে হবে জন ও শ্রুতিকে নিয়ে কী চমক দেন তিনি। সে হিসেবে একটা ভাল পূর্বপ্রস্তুতি হয়ে গেছে প্রায় সব আর্টিস্টের মাঝেই।

এই ছবির শূটিং লোকেশন একটি অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ বিষয়। কারণ বেশকিছু দৃশ্যধারণের কাজ হয়েছে আবুধাবির এমিরেটস প্যালেসে। শুধু তাই নয়, এটিই প্রথম হিন্দি সিনেমা যার শূটিং দুবাইয়ের বুর্জ আল খলিফাতেও হয়েছে।

ছবিটি সম্পর্কে পরিচালক আনিস বাজমি বলছেন, ‘এত এত গুণী শিল্পী নিয়ে কাজ করতে গেলে পরিচালনার আনন্দের চেয়ে শেখার আনন্দটাই বড় হয়ে যায়। আমি অনেক কিছু শিখেছি এই ছবি পরিচালনা করতে গিয়ে। এটি পরিবারের সবাইকে নিয়ে দেখার মতো একটি ফ্যামিলি ড্রামা মুভি।’ এই ছবির প্রযোজনায় ছিলেন ফিরোজ নাদিদওয়ালা এবং পরিবেশনার দায়িত্বে ছিল এরোস ইন্টারন্যাশনাল। আর সঙ্গীত পরিচালনার দায়িত্বে ছিলেন মিট ব্রাদার্স এবং অনু মালিক।