১৯ অক্টোবর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

রাশিয়ার সিরিয়ায় সামরিক অভিযান

অনলাইন ডেস্ক ‌॥ রাশিয়ার সশস্ত্র বাহিনী সিরিয়ার প্রেসিডেন্ট বাশার আল আসাদের সরকারি বাহিনীকে সমর্থন দিতে সামরিক অভিযানে অংশগ্রহণ করতে শুরু করেছে।

সিরিয়ার রাজনৈতিক ও সামরিক পরিস্থিতির বিষয়ে অবগত তিনটি লেবাননি সূত্র এ কথা জানিয়েছে।

সিরিয়ার গৃহযুদ্ধে রাশিয়ার সামরিক ভূমিকা গভীর হচ্ছে- যুক্তরাষ্ট্রের এমন শঙ্কার মধ্যেই লেবাননি সূত্রগুলো বিষয়টি সম্পর্কে প্রথমবারের মতো সরাসরি স্পষ্ট তথ্য দিল।

লেবাননি সূত্রগুলোর মধ্যে দুজন জানিয়েছেন, সিরিয়ায় দুটি ঘাঁটি স্থাপন করছে রাশিয়া। একটি উপকূলের কাছে ও অপরটি দেশের অভ্যন্তরে। দ্বিতীয়টি অভিযান পরিচালনার ঘাঁটি হতে পারে বলে ধারণা করছেন তারা।

এদের মধ্যে একজন বলেছেন, “রুশরা উপদেষ্টা মাত্র। তবে তারা সন্ত্রাসবিরোধী যুদ্ধে যোগ দেয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে।”

অপর লেবাননি সূত্রটি জানিয়েছে, লড়াইয়ের ক্ষেত্রে রুশদের ভূমিকা এখনও ছোট।

“অল্প সংখ্যা দিয়ে তারা শুরু করেছে। তবে বাহিনীর বড় অংশটি এখনও অংশ নেয়নি। সিরিয়ায় উল্লেখযোগ্য সংখ্যক রুশ বিভিন্ন ভূমিকা রাখছে। কিন্তু তারা এখনও সন্ত্রাসবিরোধী লড়াইয়ে পুরোপুরি যোগ দেয়নি,” বলেন তিনি।

যুক্তরাষ্ট্রের কর্মকর্তারা বলেছিলেন, কয়েকদিনে বা এই সময়ের মধ্যে সিরিয়ায় দুটি ট্যাঙ্ক ল্যান্ডিং জাহাজ ও পরিবহন বিমান পাঠিয়েছে রাশিয়া এবং নৌবাহিনীর অল্প কিছু পদাতিক সেনাকে সেখানে মোতায়েন করেছে।

যুক্তরাষ্ট্রের ওই কর্মকর্তারাও নাম প্রকাশ না করার শর্তে বলেছেন, সিরিয়ায় রাশিয়ার সামরিক উদ্যোগের উদ্দেশ্য পরিষ্কার নয়। এদের মধ্যে একজন কর্মকর্তার ধারণা, প্রেসিডেন্ট আসাদের অন্যতম শক্তিকেন্দ্র বন্দর শহর লাতাকিয়ায় একটি বিমানক্ষেত্র প্রস্তুত করাই সম্ভবত রুশ সামরিক উদ্যোগের উদ্দেশ্য।