১০ ডিসেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

দুর্বৃত্তের গুলিতে চিংড়ি প্রক্রিয়াজাতকারী কারখানার কর্মকর্তা নিহত

স্টাফ রিপোর্টার, খুলনা অফিস ॥ দুর্বৃত্তের গুলিতে খুলনায় চিংড়ি প্রক্রিয়াজাতকারী কারখানার এক কর্মকর্তা নিহত হয়েছেন। নিহতের নাম ফারুক হোসেন মোল্লা (৪৪)। অবৈধ পুশকৃত চিংড়ি গ্রহণ না করায় চিংড়ি কারখানার কর্মকর্তা খুন হয়েছেন বলে দাবি করেছে বাংলাদেশ ফ্রোজেন ফুড এক্সপোটার্স এসোসিয়েশন (বিএফএফইএ)। এঘটনার তীব্র নিন্দা ও অবিলম্বে গ্রেফতার দাবি করেন তারা।

বুধবার রাত পৌনে ১০টার দিকে কারখানায় কাজ শেষ করে বাড়িতে ফেরার পথে জেলার রূপসা উপজেলার রহিম নগরের শেখ বাড়ি সংলগ্ন এলাকায় তিনি গুলিবিদ্ধ হন। পরে আশঙ্কাজনক অবস্থায় তাকে খুলনা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে নেয়া হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত বলে ঘোষণা করেন।

জানা গেছে, নিহত ফারুক হোসেন তিনি চর মোসাব্বরপুর এলাকার মৃত আব্দুল খালেক মোল্লার ছেলে। পূর্ব রূপসায় অবস্থিত ফ্রেশ ফুড নামক মৎস্য প্রক্রিয়াজাতকরণ প্রতিষ্ঠানের রিসিভ ইনচার্জ হিসেবে কর্মরত ছিলেন।

নিহতের পরিবার ও ফ্রেশ ফুড্স লিঃ কর্তৃপক্ষ জানায়, দীর্ঘদিন যাবত কতিপয় মুনাফালোভী চিংড়ি ব্যবসায়ী গ্রেড বাড়িয়ে দেয়া ও পুশ চিংড়ি গ্রহণ করতে চাপ দিয়ে আসছে। তাদের দাবি না রাখলে তারা ফারুককে হত্যাসহ নানাধরনের হুমকি দিয়ে আসছিলো।

রূপসা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মেসবাহ উদ্দিন জানান, এ ঘটনায় মামলা হয়েছে। কোম্পানিতে চিংড়ি সরবরাহকারী এক শ্রেণীর ব্যবসায়ীর সঙ্গে বিরোধের জের হিসাবে এ হত্যাকান্ড ঘটেছে বলে প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে বলে ওসি জানান।

এদিকে হত্যা কাণ্ডের প্রতিবাদে বাংলাদেশ ফ্রোজেন ফুড্স এক্সপোর্টার্স এসোসিয়েশন (বিএফএফইএ) খুলনা আঞ্চলিক কার্যালয়ে বৃহস্পতিবার প্রতিবাদ সভা অনুষ্ঠিত হয়।

এতে চিংড়ি রপ্তানীকারকদের নেতৃবৃন্দ বলেন, সম্প্রতি অনুষ্ঠিত মৎস্য সপ্তাহে প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশে রপ্তানীকারকগণ চিংড়িতে অপদ্রব্য পুশবিরোধী কঠোর অবস্থান গ্রহণ করায় স্বার্থান্বেষী ও মুনাফা লোভী একশ্রেণীর চিংড়ি ব্যবসায়ীর চক্রান্তের বলি হয়েছে চিংড়ি প্রক্রিয়াজাত কারখানার এই নিরীহ কর্মকর্তা।

অবিলম্বে এই হত্যাকান্ডের নিন্দা জানিয়ে সুষ্ঠু তদন্ত, দোষীদের গ্রেফতার ও দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবি করেন তারা।

এছাড়া খুলনায় চিংড়ি রপ্তানীকারী প্রক্রিয়াজাতকরণ কারখানাগুলো একটি নির্দিষ্ট এলাকায় প্রতিষ্ঠিত হওয়ায় সুষ্ঠু আইন শৃংখলা বজায় রাখার স্বার্থে “শিল্প পুলিশ” নিয়োগ ও পুলিশ ফাঁড়ি প্রতিষ্ঠা করতে সরকারের নিকট দাবি জানায় বিএফএফই।