১২ ডিসেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

এবার ছাত্রী ধর্ষণের ভিডিও নিয়ে উত্তাল হবিগঞ্জ

নিজস্ব সংবাদদাতা, হবিগঞ্জ, ১০ সেপ্টেম্বর ॥ বিকেজিসি (গব) গার্লস হাইস্কুলের ৮ম শ্রেণীর এক মেধাবী ছাত্রীকে অপহরণ ও ধর্ষণের পর ভিডিও চিত্র সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম হোয়াটসআপে ছেড়ে দেবার ঘটনায় হবিগঞ্জ শহর আবারও উত্তপ্ত হয়ে উঠেছে। এ ঘটনার প্রতিবাদে গ্রেফতারকৃতদের কঠোর শাস্তি ও ভিডিও চিত্র প্রকাশকারী মূল হোতা বাঁধনকে গ্রেফতারের দাবিতে বৃহস্পতিবার সকাল থেকে জেলা কালেক্টরেট প্রাঙ্গণ নিমতলায় জমায়েত করেছে স্কুল-কলেজের ছাত্রছাত্রী, শিক্ষক, সাংবাদিকসহ বিভিন্ন পেশার শত শত মানুষ। বেলা ১১ টায় নিমতলায় অনুষ্ঠিত হয় মানববন্ধন ও প্রতিবাদ সমাবেশ। এতে বক্তব্য রাখেন কবি তাহমিনা বেগম গিনি, প্রাক্তন অধ্যাপক ও জেলা বাপা নেতা ইকরামুল ওয়াদুদ, সংশ্লিষ্ট মামলা পরিচালনাকারী আইনজীবী ত্রিলোক কান্তি চৌধুরী বিজন, নিলাদ্রী শেখর পুরকায়স্থ টিটু, জুনায়েদ আহমেদ, জেলা যুবলীগ সভাপতি আতাউর রহমান সেলিম, জেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগ সভাপতি সৈয়দ কামরুল হাসান, বৃন্দাবন সরকারী কলেজের (বৃকসু) সাবেক ভিপি আবু হেনা মোস্তফা কামাল, কমিউনিস্ট নেতা পীযূষ চক্রবর্তী, বাসদ নেতা কমরেড হুমায়ূন খান, আব্দুর রকিব রনি, বিপ্লব রায় সুজন, জেলা একাত্তরের ঘাতক দালাল নির্মূল কমিটির সেক্রেটারি সাংবাদিক রফিকুল হাসান চৌধুরী তুহিন, গণজাগরণ মঞ্চের নেত্রী মাহমুদা খান বিকেজিসি স্কুলের শিক্ষক শুধাংশু কর্মকার। সমাবেশ থেকে বক্তারা আগামী ২৪ ঘণ্টার মধ্যে ওই ছাত্রী ধর্ষণের ভিডিও চিত্র ছড়িয়ে দেবার হোতা বাঁধনকে গ্রেফতারের দাবি জানিয়ে বলেন, অন্যথায় জেলার সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ও সুশীল সমাজের নেতৃবৃন্দসহ বিভিন্ন পেশার মানুষকে নিয়ে লাঠি হাতে পুরো শহর অচল করে দেয়া হবে। সেই সঙ্গে অভিভাবক ও জনতাকে নিয়ে বখাটেদের প্রতিরোধও শুরু হবে। এছাড়া একের পর এক ছাত্রী নিপীড়নের ঘটনা ঘটলেও শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে ছাত্রীদের আসা-যাওয়া নিশ্চিতে পুলিশী দুর্বল ভূমিকা নিয়ে কঠোর সমালোচনা করা হয়।