২৬ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

দেশের ফুটবলে লোপেজ অধ্যায় শুরু

  • মামুনুলদের নতুন কোচ ফ্যাবিও লোপেজের চুক্তি আপাতত চার মাসের

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ ক্রুইফ অধ্যায় শেষ। এবার লোপেজ অধ্যায় শুরু। বাংলাদেশ জাতীয় ফুটবল দলের নতুন কোচ হিসেবে ইতালিয়ান কোচ ফ্যাবিও লোপেজকে আনুষ্ঠানিকভাবে নিয়োগ দিয়েছে বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশন (বাফুফে)। বৃহস্পতিবার (১০ সেপ্টেম্বর) থেকে আগামী জানুয়ারি পর্যন্ত বাফুফের সঙ্গে চুক্তিবদ্ধ হয়েছেন এই ইতালীয় কোচ। জানুয়ারির নির্দিষ্ট তারিখ উল্লেখ করা হয়নি। তার কারণ, ওই সময় যদি সাফ ফুটবল চ্যাম্পিয়নশিপ কোন কারণে পিছিয়ে যায়। মোট কথা, সাফ ফুটবল চ্যাম্পিয়নশিপ পর্যন্তই আপাতত দলের সঙ্গে থাকবেন লোপেজ।

ন্যাশনাল টিমস ম্যানেজমেন্ট কমিটির উর্ধতন কর্মকর্তা এবং বাফুফের সহ-সভাপতি তাবিথ আওয়াল জানান, ‘সেপ্টেম্বরের ১০ তারিখ থেকে আমাদের জাতীয় দলের কোচের দায়িত্ব বদলে যাচ্ছে। আগামী ৪ মাসের জন্য আমরা একজন ইতালিয়ান হেড কোচ, একজন সহকারী এবং একজন ফিটনেস কোচকে নিয়োগ দিতে যাচ্ছি। বাংলাদেশী কোচ সাইফুল বারী টিটু এবং পূর্বের গোলরক্ষক কোচ ক্রিস্টিয়ান শোয়েচলার অবশ্য থাকছেন এই কোচিং স্টাফদের সঙ্গে। সবমিলিয়ে আমাদের কোচিং স্টাফ হবে পাঁচ জনের।’ সহকারী কোচের নাম কস্তানতিনো জুকারিনি আর ফিটনেস কোচের নাম এ্যাঞ্জেলো পাভিয়া।

ইতালিয়ান কোচ লোপেজ একজন হাই-প্রোফাইল কোচ। ইতালিয়ান ক্লাব এএস রোমার যুবদলের কোচের দায়িত্ব পালন করেছেন। তিনি উয়েফার ‘এ’ লাইসেন্সধারী কোচ হলেও ‘প্রো লাইসেন্স’ কোচ নন। যে কারণে ইতালির প্রথম এবং দ্বিতীয় বিভাগ ক্লাবের কেয়ারটেকার কোচের দায়িত্বে ছিলেন। তবে ২০০৭-০৮ মৌসুমে প্রথমবারের মতো প্রধান কোচ হিসেবে যাত্রা শুরু করেছিলেন লিথুনিয়ার প্রফেশনাল ক্লাব এফকে বাঙ্গা গারজদাইয়ের। এরপর মালয়েশিয়া এবং মালদ্বীপের ক্লাবে দায়িত্ব পালন করেছেন। বাংলাদেশ জাতীয় দলের ১৭তম বিদেশী কোচ হিসেবে দায়িত্ব পেলেন ৪২ বছর বয়সী এই কোচ। খেলোয়াড়ি জীবনে লোপেজ ছিলেন গোলরক্ষক। তার মানে ইরানের নাসির হেজাজীর পর আবারও একজন বিদেশী কোচ পেল জাতীয় দল, যিনি গোলরক্ষক পজিশনে খেলেছেন।

‘বাংলাদেশকে বিশ্বের কাছে উপস্থাপন করতে চাই। নিজের সেরাটা দিয়ে চেষ্টা করব।’ দায়িত্ব নেয়ার পর ইতালিয়ান কোচ লোপেজও আশা এমনই মন্তব্য করেন। বাংলাদেশের শেষ দুটি আন্তর্জাতিক ম্যাচ দেখেছেন এই কোচ। বিশেষ করে জর্দানের সঙ্গে ম্যাচটিতে বাংলাদেশ জাতীয় দল খুব খারাপ খেলেছে বলে মন্তব্য করেন। তবে দায়িত্বটা এখন তার কাঁধে। তিনি চান বাংলাদেশের ফুটবলারদের মধ্যে জয়ের মানসিকতা এনে দিতে। চান বাংলাদেশের ফুটবলের আরও উন্নতি করতে।

কি ফর্মেশনে লোপেজ খেলাবেন মামুনুলকে। ‘আগে আমি আমার খেলোয়াড়দের জানব, বুঝব। তারপর আমি ফর্মেশন ঠিক করব। সেটি হতে পারে ৪-৩-৩ অথবা ৪-১-৪-১ বা অন্য কিছু।’

তাবিথ আউয়াল জানালেন, আগামী ১৫ সেপ্টেম্বর থেকেই শুরু করা হবে বাংলাদেশ জাতীয় দলের ক্যাম্প। প্রাথমিকভাবে সেই ক্যাম্পে থাকবেন ৪০ জন। আর অতিরিক্ত হিসেবে অনুর্ধ ১৯ দল। সেখান থেকে ২৩ খেলোয়াড়কে চূড়ান্ত করবেন নতুন কোচ। তাদের নিয়ে ৯ অক্টোবর কিরগিজস্তানের উদ্দেশে রওনা হবেন তারা।

ক্রুইফের সঙ্গে কেন চুক্তি নবায়ন করা হলো না আর কেনই বা নতুন এই কোচিং স্টাফের উপর আস্থা রাখছে বাফুফে? তাবিথ জানালেন, ‘কোন চুক্তিই আজীবন থাকে না। কোচ, খেলোয়াড় পরিবর্তন হবে। এটাই নিয়ম। ক্রুইফের সঙ্গে আমাদের চুক্তি শেষ হয়ে গেছে। তার সঙ্গে আমরা নতুন চুক্তি করিনি। সবদিক বিবেচনা করে ইতালিয়ান কোচিং স্টাফের ওপর আস্থা রাখা যায় মনে হয়েছে তাই তাদের নিয়েছি। আশা করছি, এই হাইপ্রোফাইল কোচের মাধ্যমে আমরা সফলতা পাব।’

দুই ইতালিয়ান কোচ যোগ দেবেন আগামী ১৩ সেপ্টেম্বরের মধ্যে। যদিও এখনই তিন কোচের বেতনের কথা প্রকাশ করছে না বাফুফে। তবে বিশ্বস্ত সূত্রে জানা গেছে এই তিন কোচের সর্বমোট বেতন হতে পারে মাসিক ১৫ হাজার ডলার।

গতকাল বুধবার বাফুফে সভাপতি কাজী মোঃ সালাউদ্দিনের সঙ্গে আনুষ্ঠানিক আলোচনা করেন। হল্যান্ডের কোচ লোডভিক ডি ক্রুইফের মেয়াদ বুধবার শেষ হয়। বিশ্বকাপ বাছাই ফুটবলে অস্ট্রেলিয়া সফরে থাকাকালীন সময়েই কোচ পদে পরিবর্তন হবেÑ এমন গুঞ্জন শোনা যায়। অবশেষে সেটারই সত্যতা মিলেছে বৃহস্পতিবার। এখন দেখার বিষয়, নতুন কোচ লোপেজ কেমন করেন।