২৬ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

লালমনিরহাটে ২ গরুর ব্যবসায়ীকে হত্যা

নিজস্ব সংবাদদাতা, লালমনিরহাট॥ ডাকাতের হত্যা কান্ডের শিকার গরু ব্যবসায়ী শহিদুল ইসলাম (২৩) এর লাশ শুক্রবার ভোর রাতে জেলা সদরের দুরাকুটি গ্রামে এসে পৌচ্ছায়। এই সময় এক হ্নদয়বিদায়ক দৃশ্যের সৃষ্টি হয়। পরে ভোর রাতেই পারিবারিক কবর স্থানে দাফন করা হয়। এই ঘটনার লালমনিরহাট সদরের ভারতীয় সীমান্ত সংলগ্ন বিখ্যাত গরুর হাট দুরারকুটি ও বড়বাড়ি হাটের গরুর ব্যবসায়ীদের মধ্যে আতস্ক বিরাজ করছে। ঈদকে সামনে রেখে গরুর ব্যবসায়ীরা নিরাপত্তাহীন হয়ে পড়েছে। যাহা গরুর ব্যবসায় এবারের ঈদের বাজারে প্রভাব ফেলতে পারে। গরুর ব্যবসায়ীরা উত্তরাঞ্চলের বিখ্যাত এই গরুর হাট হতে গরু কিনে দেশের বিভিন্ন অঞ্চলের হাট বাজারের ভোক্তাদের নিকট নির্বিঘেœ পৌচ্ছে দিতে নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে দাবি তুলেছে।

মোগলহাট ইউপির মেগারাম গ্রামের খামারি মোঃ মুন্না মিয়া জানান, এবছর তার খামারে ১৪টি গরু কোরবানির ঈদের বিক্রয় করতে পালন করা হয়েছে। কুমিল্লার জনৈক ব্যবসায়ীর কাছে ১০ লাখ টাকায় গরু ১৪টি বিক্রয় করেছি। উত্তরাঞ্চলের খামারিরা দক্ষিনাঞ্চলের গরুর ব্যবসায়ীদের উপর নির্ভরশীল। দক্ষিণাঞ্চলের ব্যবসায়ীরা গরু না কিনলে খামারিরা প্রকৃতভাবে সঠিক গরুর দাম পাবেনা। খামারিদের বাঁচাতে ও উত্তরাঞ্চলের গরুর ব্যবসা চাঙ্গা রাখতে ক্রেতা ও বিক্রেতা দুই পক্ষের নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে হবে। মহাসড়ক গুলোতেও গরু পরিবহনের গাড়ি গুলোর দিকে বাড়তি নজর দিতে হবে।