২২ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

আনসারুল্লাহ বাংলা টিম প্রধানসহ তিনজন রিমান্ডে

  • অভিজিত হত্যা মামলা

স্টাফ রিপোর্টার ॥ নিষিদ্ধ জঙ্গী সংগঠন আনসারুল্লাহ বাংলা টিমের প্রধান মোঃ আবুল বাশারসহ তিনজনকে ব্লগার অভিজিত রায় হত্যা মামলায় জিজ্ঞাসাবাদের জন্য সাত দিনের রিমান্ডে পাঠিয়েছে আদালত। শুক্রবার ঢাকার মহানগর হাকিম শাহরিয়ার মাহমুদ আদনান রিমান্ড আবেদনের শুনানি করে এই আদেশ দেন। অপর দুই আসামি হচ্ছেন, আনসারুল্লাহর গণমাধ্যম শাখার সদস্য জুলহাস বিশ্বাস ও জাফরান আল হাসান।

এ মামলার তদন্ত কর্মকর্তা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশের উপ-পরিদর্শক ফজলুর রহমান তিন আসামিকে আদালতে হাজির করেন। তিনি আদালতের কাছে তাদের দশ দিনের রিমান্ড নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদের অনুমতি চান। পরে মহানগর হাকিম শাহরিয়ার মাহমুদ সাতদিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন। এদিকে আসামিদের মধ্যে জাফরানের পক্ষে জামিনের আবেদন করা হলে বিচারক তা নাকচ করে দেন। আদালত পুলিশের সাধারণ নিবন্ধন কর্মকর্তা উপ-পরিদর্শক মাহামুদুর রহমান এ তথ্য জানান।

উল্লেখ্য, বৃহস্পতিবার বিকাল ৫টার দিকে রাজধানীর ফকিরাপুল থেকে ওই তিনজনকে গ্রেফতার করে র‌্যাব। এ সময় র‌্যাবের পক্ষ থেকে বলা হয়, তিনজনের মধ্যে বাশার আনসাররুল্লাহ বাংলা টিমের প্রধান জসিম উদ্দিন রাহমানীর ভাই। রাহমানী কারাগারে থাকায় বাশারই দলের নেতৃত্ব দিয়ে আসছিলেন।

র‌্যাবের এক সংবাদ সম্মেলনে বলা হয়, ব্লগার হত্যা ও আনসারুল্লাহ বাংলা টিমের কার্যক্রম পরিচালিত হতো মূলত জসিম উদ্দিন রাহমানীর নির্দেশে। ওই নির্দেশ আসত তার ছোট ভাই বাশারের মাধ্যমে। আনসারুল্লাহ বাংলা টিম কোন হত্যাকা- ঘটালে জুলহাস ও জাফরানের কাজ ছিল বিভিন্ন নামে হত্যাকা-ের দায় স্বীকার করা। র‌্যাবের দাবি, গত ২৬ ফেব্রুয়ারি ঢাকায় একুশে বই মেলায় ব্লগার অভিজিত রায়ের হত্যাকা-ে মোট পাঁচজনের একটি দল অংশ নিয়েছিল। আড়াই মাস পর ১২ মে তারাই সিলেটে ব্লগার অনন্ত বিজয় দাশকে হত্যা করে। এই দলের সদস্য সন্দেহে তৌহিদুর রহমান, আমিনুল মল্লিক, আরিফুল ইসলাম, জাকিরুল প্রকাশ ও সাদেক আলিম মিঠু নামের পাঁচজনকে গ্রেফতার করে। তাদের দুই মামলাতেই গ্রেফতার দেখানো হয়েছে। এদের মধ্যে তৌহিদুর বাংলাদেশী বংশোদ্ভূত ব্রিটিশ নাগরিক। যাকে হত্যাকা-ের অন্যতম পরিকল্পনাকারী বলছে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী।